Main Menu

Friday, June 22nd, 2018

 

লিসিয়ান্থিস সোলানাসি পরিবারের একটি গুল্মের গণ

গণের বৈজ্ঞানিক নাম: Lycianthes Hassl., Ann. Conserv. & Jard. Bot. Gereve. 20: 180 (1917). জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae – Plants শ্রেণী: Eudicots উপশ্রেণি: Asterids বর্গ:  Solanales পরিবার: Solanaceae গণ: Lycianthes Hassl.,   বর্ণনা: লিসিয়ান্থিস সোলানাসি পরিবারের কন্টকহীন ঘন ঝোপের ন্যায় বীরুৎ অথবা গুল্ম। এদের পত্র সরল, বেশীরভাগ অখন্ড, উপরেরটি প্রায়শই নকলভাবে জোড়ায় স্থাপিত এবং অসমান। পুষ্পবিন্যাস একটি আম্বেলেট সাইম। পুষ্প এক হতে কয়েকটি, অক্ষীয়, গুচ্ছিত, পুষ্পবৃন্তিকাযুক্ত। বৃতি সামান্য ঘন্টাকার অথবা পেয়ালাকৃতি, কর্তিতা, ৫-১০ দন্তকবিশিষ্ট, প্রায়শই গোড়া স্ফীত যা বৃতি খন্ডকের সাথে একান্তর। দলমন্ডল চক্রাকার, খন্ডক আংশিকভাবে গোড়ায় সংযুক্ত, কুঁড়িতে প্রান্তস্পর্শী, ডিম্বাকার। পুংকেশরRead More


হরিতকীর ১৪টি ভেষজ গুণ

বাংলাদেশ ও ভারতে এর আদি নিবাস। বাকল গাঢ় বাদামি। বাকলে লম্বা ফাটল থাকে।  ঔষধি গুণে সম্পুন্ন হরিতকী ত্রিফলার মধ্যে একটি। এর বৈজ্ঞানিক নাম Terminalia chebula ও পরিবার Combretaceae. বিভিন্ন রোগের প্রতিকারে: ১. অর্শরোগ: হরিতকীর চূর্ণ ৩ থেকে ৫ গ্রাম (কোষ্ঠকাঠিন্যের অবস্থাভেদে) মাত্রায় ঘোলের সঙ্গে একটু, সৈন্ধব লবণ মিশিয়ে খেলে উপশম হয়ে থাকে। ২. মৃদু বিরেচক হিসেবে একটু, সৈন্ধব লবণ মিশিয়ে এটি সবদাই ব্যবহার হয়ে থাকে। তবে শিশুদের ক্ষেত্রে ঘিয়ে ভাজা হরিতকী চূর্ণ করে বৈদ্যরা ব্যবহার করেন। ৩. জাঙ্গী হরিতকী ঘিয়ে ভেজে গুড়ো করে মৃদু, বিরেচক হিসাবে ব্যবহারে বিশেষ ফল পাওয়াRead More


নিসিন্দার ২৮টি ঔষধি গুণ

লোকায়তিক ব্যবহারে: এই গাছটির বোটানিক্যাল নাম Vitex negundo Linn. ফ্যামিলি Verbenaceae. ১. স্মৃতিশক্তি বাড়ানো:  ঘিয়ের সঙ্গে প্রতিদিন দুটি নিসিন্দাপাতা ভেজে খেলে স্মৃতি ধারক হয়। অবশ্য এটাও দেখতে হবে, যে ক্ষেত্রে আকস্মিক কোনো কারণে শ্লেমাবিকারে মস্তিকের  স্মৃতিকেন্দ্রটির কাজ ব্যাহত হলেই এটির কার্যকার হবে। ২. শিশু ও বৃদ্ধদের তরল পায়খানা হতে হতে মলদ্বারে ক্ষতের উপদ্রব হলে এর পাতার রস ২ থেকে ৩ দিন লাগালেই সেরে যায়। ৩. ফোড়ায়: তিলের তেলের সাথে এর পাতার রস মিশিয়ে পাক করলে (তেলের দ্বিগুণ রস) সেই তেল মাখলে ফোড়া পাকে, ফাটে ও শুকায়। ৪. খুস্কি ও টাক:Read More


ধুতুরা (গণ) সোলানাসি পরিবারের একটি শক্তিশালী বীরুৎ

গণের বৈজ্ঞানিক নাম: Datura L., Syst. ed. 1 (1753) জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae – Plants শ্রেণী: Eudicots উপশ্রেণি: Asterids বর্গ:  Solanales পরিবার: Solanaceae গণ: Datura প্রজাতি: Datura metel L’Herit. বর্ণনা: ধতুরা (গণ) সোলানাসি পরিবারের একটি শক্তিশালী বীরুৎ জাতীয় গণের নাম। এরা কখনও কখনও গুল্মের ন্যায়। পত্র সবৃন্তক, অখন্ড, তরঙ্গিত অথবা গভীরভাবে দন্তকযুক্ত। পুষ্প বৃহৎ, পুষ্পবৃন্তিকাযুক্ত, একক, অক্ষীয়। বৃতি লম্বা, নলাকার, ৫-দন্তকবিশিষ্ট, পর্ণমোচী, ফলের গোড়ার উপর একটি ছেদনকৃত ক্ষতের দাগ রেখে যায়। দলমন্ডল একটি বিস্তৃত মুখসহ চুঙি-আকৃতির, দলফলক বিনুনি করা, অখন্ড অথবা সামান্য ৫ অথবা ১০ খন্ডক। পুংকেশর ৫টি, দলমন্ডলের নালির গোড়ায় সংযুক্ত,Read More


চিকনপাতা বেলী একটি শোভাবর্ধনকারী গুল্ম

বৈজ্ঞানিক নাম: Cestrum parqui L’Herit., সমনাম: জানা নেই ইংরেজি নাম: green cestrum or willow-leaved jessamine. স্থানীয় নাম: চিকন-পাতা বেলী। জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae – Plants  শ্রেণী: Eudicots উপশ্রেণি: Asterids বর্গ:  Solanales পরিবার: Solanaceae গণ: Cestrum প্রজাতি: Cestrum parqui L’Herit. বর্ণনা: চিকন-পাতা বেলী সোলানাসি পরিবারের কেস্ট্রাম গণের একটি গুল্ম। এরা ২.৫ মিটার পর্যন্ত উঁচু, উইলো সদৃশ পত্রবিশিষ্ট, বিস্তৃত শাখাসহ প্রায় মসৃণ। পত্র ৫.০-৭.৫ x ১.৫-২.০ সেমি, বল্লমাকার হতে উপবৃত্তাকার, ঝিল্লিময়, পত্রবৃন্ত ০.৫-১.০ সেমি লম্বা। পুষ্পবিন্যাস একটি উন্মুক্ত প্যানিকল। পুষ্প অবৃন্তক, গন্ধহীন। বৃতি প্রায় ০.৫ সেমি লম্বা, লোমশ, খন্ডক প্রায় ০.১ সেমি লম্বা, ত্রিকোণাকার।Read More


পলাশ ক্রান্তীয় ও উপ-ক্রান্তীয় অঞ্চলের ফুল

বৈজ্ঞানিক নাম: Butea monosperma সমনাম: Butea frondosa, Erythrina monosperma, Plaso monosperma বাংলা নাম: পলাশ   সাধারণ নাম: Palashपलाश, Dhakढाक, Palah,पलाश, Flame of the Forest, Bastard Teak, Parrot Tree, Keshu (Punjabi) and Kesudo (Gujurati হিন্দি নাম: Palash पलाश, Dhak ढाक, Tesu टेसू মনিপুরী নাম:পাঙ গোঙ জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae – Plants বর্গ: Fabales পরিবার:Fabaceae গণ:Butea প্রজাতি/Species: Butea monosperma বিবরণ: মাঝারি আকারের পত্রঝরা বৃক্ষ। ৮-১০ মিটার পর্যন্ত বড় হয়। গোড়ার বাকল ফাটা হলেও আঁকাবাঁকা শাখা প্রশাখা। বাকল মসৃণ। বোঁটায় তিনটি করে পাতা থাকে। ফাল্গুনে গাছের পাতা ঝরে যায় এবং তখনই গাছে কুঁড়ি আসে।Read More


আশশেওড়া বা মটকিলা গাছ বাংলাদেশের ঔষধি উদ্ভিদ

বৈজ্ঞানিক নাম: Glycosmis  pentaphylla. সমনাম: Glycosmis arborea (Roxb.) A. DC. Glycosmis cochinchinensis Pierre ex Engler বাংলা নাম: দাতমাজন, মটকিলা; কওয়াটুটি, মটমটি, আশশেওড়া, Aidali, Fatik, Ban Jamir. ইংরেজি নাম: Toothbrush Plant, Motar tree. আদিবাসি নাম: তাতিয়াং (মারমা), হতিজ্ঞিরা (চাকমা), সি মা সেরে (মারমা), মোয়াতন (গারো). জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae – Plants উপরাজ্য: Tracheobionta – Vascular plants অধিবিভাগ: Spermatophyta – Seed plants বিভাগ: Magnoliophyta – Flowering plants শ্রেণী: Magnoliopsida – Dicotyledons উপশ্রেণি: Rosidae    বর্গ: Sapindales. পরিবার: Rutaceae – Rue family. গণ: Glycosmis Correa – glycosmis. প্রজাতি: Glycosmis pentaphylla (Retz.) A. DC.Read More


উলটচণ্ডাল এশিয়া আফ্রিকার এক ঔষধি ফুল গাছ

বাংলা নাম: উলটচণ্ডাল, অগ্নিশিখা, লাঙ্গলী, গুরটচণ্ডাল। ইংরেজি নাম: Malabar Glory Lily, Superb Lily. আদিবাসি নাম: বিশলানগুলা (চাকমা), কাসে-ই-কিং (খুমি) জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae – Plants উপরাজ্য: Tracheobionta – Vascular plants অধিবিভাগ: Spermatophyta – Seed plants বিভাগ: Magnoliophyta – Flowering plants শ্রেণী: Liliopsida – Monocotyledons উপশ্রেণি: Liliidae   বর্গ: Liliales পরিবার: Liliaceae – Lily family গণ: Gloriosa L. – flame lily প্রজাতি: Gloriosa superba L. – flame lily. পরিচিতি: অনুচ্চ লতানো উদ্ভিদ। বাংলাদেশ ও ভারতের প্রজাতি। পাতার ডগাস্থিত আকর্ষির সাহায্যে বেয়ে ওঠে। পাতা লম্বা, বোঁটাহীন, সরল, সমান্তরাল শিরা বিন্যাসযুক্ত। ফুল একক।Read More


রুদ্রাক্ষ এশিয়ার ঔষধি উদ্ভিদ

পরিচিতি: রুদ্রাক্ষ এলিওকারপাসি (Elaeocarpaceae) ফ্যামিলিভুক্ত, সমগ্র পৃথিবীতে এর ৯০টি প্রজাতি (species) আছে; তার মধ্যে ভারতবর্ষে ১৯টি বর্তমান। গাছটি দেখতে অনেকটা আমাদের দেশের মাঝারি ধরণের বকুল (Mimusops elengi) গাছের সঙ্গে সাদশ্য আছে। তার গুচ্ছবদ্ধ ফল আকারে ও বিন্যাসে পিটলি গাছের (Trewia nudiHora) মতো। ফলের শাস টক, এই শাস মৃগী রোগে উপকারী। নেপালে এটির আচার তৈরী করে খাওয়ার রেওয়াজ আছে। এর বীজগুলি সাধারণত ৫টি কোষ (কোয়া) একীভূত অবস্থায় থাকে, প্রতি দুটি কোষের মাঝখানে একটি রেখা বর্তমান, এই রকম ৫টি রেখা রুদ্রাক্ষকে ‘পঞ্চমুখী’ বলা হয়, এইটি হচ্ছে স্বাভাবিক। এ ভিন্ন বীজের গঠনের অস্বাভাবিকতারRead More


বাক্সবাদাম বাংলাদেশের বহিরাগত ফলদ বৃক্ষ

বৈজ্ঞানিক নাম: Sterculia foetida   সমনাম: নেই ইংরেজি নাম: bastard poon tree, hazel sterculia, wild almond tree বাংলা নাম: বাক্সবাদাম বা জংলিবাদাম, জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae – Plants অবিন্যসিত: Angiosperms অবিন্যসিত: Eudicots অবিন্যসিত: Rosids বর্গ: Malvales পরিবার: Malvaceae গণ: Sterculia প্রজাতি: Sterculia foetida C. Linnaeus পরিচিতি: বাক্সবাদাম বা জংলিবাদাম, হচ্ছে নরম কাষ্ঠল বৃক্ষ যেটি ১১৫ ফুট পর্যন্ত লম্বা হতে পারে। ১৭৫৩ সালে কার্ল লিনিয়াস এই প্রজাতির বিবরণ দেন। বর্ণনা: বাক্সবাদামের গঠন শিমুলের মতো। এদের পাতা করতলাকার-যৌগিক এবং শাখাবিন্যাস ভূসমান্তরালে হয়। এদের ছায়াদানকারী তরু। বসন্তের প্রারম্ভেই বাক্সবাদামের শাখায় ফুল জন্মে। ফুলেরRead More