Main Menu

Friday, July 13th, 2018

 

যাদুকাটা নদী বাংলাদেশ ও মেঘালয়ের একটি আন্তঃসীমান্ত নদী

যাদুকাটা নদী বা জাদুকাটা রক্তি নদী (ইংরেজি: Jadukata River): জাদুকাটা রক্তি নদীটি বাংলাদেশ ও মেঘালয়ের একটি আন্তঃসীমান্ত নদী। নদীটি ভারতের মেঘালয় রাজ্যের এবং বাংলাদেশের সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর, বিশ্বম্ভরপুর, সুনামগঞ্জ সদর ও জামালগঞ্জ উপজেলার একটি নদী। নদীটির বাংলাদেশ অংশের দৈর্ঘ্য প্রায় ৩৭ কিলোমিটার, গড় প্রশস্ততা ৫৭ মিটার এবং প্রকৃতি সর্পিলাকার। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড বা পাউবো কর্তৃক জাদুকাটা নদীর প্রদত্ত পরিচিতি নম্বর উত্তর-পূর্বাঞ্চলের নদী নং ৭২।  প্রবাহ: জাদুকাটা নদীটি মেঘালয়ের খাসিয়া জৈন্তিয়া পাহাড় হতে উৎপত্তি হয়ে দক্ষিণমুখে প্রবাহিত হয়ে সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলার উত্তর বাদাঘাট ইউনিয়ন দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে একইRead More


দামেস্ক গোলাপ বাড়ির টব বা বাগানের শোভাবর্ধনকারী ফুল

ভূমিকা: দামেস্ক গোলাপ (বৈজ্ঞানিক নাম: Rosa damascena, ইংরেজি: Summer Damask Rose) হচ্ছে রোজেসি পরিবারের রোজ গণের  একটি সপুষ্পক গুল্ম। এটিকে বাংলাদেশে আলংকারিক উদ্ভিদ হিসেবে বাগানে বা গৃহে চাষাবাদ করা হয়। এই গুল্মটি বাড়ির টবে বা বাগানের শোভাবর্ধন করে। বর্ণনা: দামেস্ক গোলাপ প্রচুর শাখাবিশিষ্ট একটি গুল্ম। সাধারণত ১.৫ মিটার পর্যন্ত এটি উঁচু হয়। অনেক শাখাপ্রশাখা হওয়ার কারণে বেশ ঘন ঝপালো হয় এই গুল্মোটি।  গায়ে ক্ষুদ্র কোমল রোমাবৃত, ছোট বড়ো কাঁটা থাকে, বড় হয়ে গেলে বড়শির সদৃশ মনে হয়, গ্রন্থিল লোমমিশ্রিত, লোম স্বল্প সংখ্যক থাকে। পাতা পক্ষল, পাতার কিনারায় করাতের দাঁতের মতো। ফুলRead More


বুনো গোলাপ দক্ষিণ ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার গুল্ম

ভূমিকা: বুনো গোলাপ বা জংলী গোলাপ (বৈজ্ঞানিক নাম: Rosa clinophylla, ইংরেজি: Wild Rose) হচ্ছে রোজেসি পরিবারের রোজ গণের  একটি সপুষ্পক গুল্ম। এটিকে বাংলাদেশে জঙ্গলের উদ্ভিদ হিসেবে ঝোপ-ঝারে অযত্নে বেড়ে ওঠে। এই গুল্মটি অনেকে বাড়ির টবে বা বাগানের শোভাবর্ধন করার জন্য লাগিয়ে থাকে। বর্ণনা: বুনো গোলাপ বলিষ্ঠ  গুল্ম, খাড়াভাবে উঠে কিছুটা লতানো দেখতে। এর শাখাপ্রশাখা ধনুকের ন্যায়  বাকানো ও চ্যাপ্টা কাঁটা আছে এই গুল্মের গায়ে। পাতা ৫ থেকে ১০ সেমি লম্বা, পত্রক ৭-৯টি, সামান্য বৃন্তক। পাতার দৈর্ঘ্য ১.৫-৩.১ ও প্রস্থ ০.৫-১.৫ সেমি দেখতে আয়তাকার থেকে উপবৃত্তাকার-বল্লমাকার, অর্ধসূক্ষ্মাগ্র থেকে স্থূলা, গোড়া গোলাকার বাRead More


টক পেয়ারা সারা দুনিয়ায় চাষকৃত একটি ফল

পরিচিতি: টক পেয়ারা মিরটাসি পরিবারের সিডিয়াম গণের একটি সপুষ্পক উদ্ভিদ। এরা বৃহদাকার গুল্ম এবং বৈশিষ্ট্যময় ডোরাকাটা দাগযুক্ত, মসৃণ এবং তামাটে বাকলবিশিষ্ট যাহা পাতলা এবং ছোট ছোট টুকরা আকারে উঠে যায়। কচি পল্লব চতুষ্কোণী, রোমশ, সবুজ। পাতা বৃন্তক, বৃন্ত ৫-৮ মিমি লম্বা, গোলাকৃতি, রোমশ, উপরের পৃষ্ঠ খাঁজকাটা, কচি পাতা বিপরীত তির্যকপন্ন কিন্তু পরিণত পাতা বিপরীত উপরিপন্ন, ৬-১২ x ৩-৬ সেমি, দীর্ঘায়ত-ভল্লাকার থেকে উপবৃত্তাকার, অখন্ড, শীর্ষ সুক্ষ্ম খর্বাগ্রবিশিষ্ট থেকে তীক্ষ, সচরাচর খর্ব দীর্ঘাগ্র, পাদদেশ স্থূলাগ্র, উপরের পৃষ্ঠ অর্ধ মসৃণ, নিম্নপৃষ্ঠ রোমশ এবং সুস্পষ্ট শিরাবিশিষ্ট, পার্শ্বশিরা ৫-৯ জোড়া, উপসমান্তরাল, ঢেউখেলানো অন্ত:কিনারীয় শিরার সহিতRead More


কাঁটা গোলাপ টব বা বাগানের শোভাবর্ধনকারী ফুল

ভূমিকা:  কাঁটা গোলাপ (বৈজ্ঞানিক নাম: Rosa chinensis, ইংরেজি: Tea Rose, China rose,  Chinese rose)  হচ্ছে রোজেসি পরিবারের রোজ গণের  একটি সপুষ্পক গুল্ম। এটিকে বাংলাদেশে আলংকারিক উদ্ভিদ হিসেবে বাগানে বা গৃহে চাষাবাদ করা হয়। এই গুল্মটি বাড়ির টবে বা বাগানের শোভাবর্ধন করে। বর্ণনা: কাঁটা গোলাপ ছোট চিরহরিৎ ছড়ানো গুল্ম। এই গাছের ডালে কাঁটা থাকলেও শাখাপ্রশাখা মসৃণ এবং লোমমিশ্রিত নয়। পাতা পাতলা ও কিনারা করাতের দাঁতের মতো। উপরের পাতা খুবই সরু, শীর্ষের কাছাকাছি যুক্ত থাকে। ফুল বড়ো হয় এবং রং সাদা, গোলাপী, রক্ত- বেগুনি বা হলুদ, লম্বা পুষ্পবৃন্তে অবস্থিত, প্রচন্ড সুগন্ধি। বৃতি খন্ডকRead More