Main Menu

Thursday, July 26th, 2018

 

ব্রহ্মপুত্র এশিয়া মহাদেশের গুরুত্বপূর্ণ আন্তঃসীমান্ত নদী

ব্রহ্মপুত্র নদ বা ব্রহ্মপুত্র নদী (ইংরেজি: এশিয়া মহাদেশের একটি গুরুত্বপূর্ণ আন্তঃসীমান্ত নদী। সংস্কৃত ভাষায় ব্রহ্মপুত্রের অর্থ হচ্ছে ব্রহ্মার পুত্র। ব্রহ্মপুত্রের পূর্ব নাম ছিল লৌহিত্য। আবার তিব্বতে এই নদী সাংপোবা জাঙপো নামে পরিচিত, এবং আসামে তার নাম দিহাঙ। ১৭৮৭ সালে ভূমিকম্পের কারণে ব্রহ্মপুত্র নদের মূল স্রোত দিক পরিবর্তিত হয়ে যমুনা নদী মূল প্রবাহপথ গ্রহণ করে। সেই হিসেবে ব্রহ্মপুত্রের প্রধান শাখা হচ্ছে যমুনা। উৎপত্তিস্থল থেকে এর দৈর্ঘ্য ২৮৫০ কিলোমিটার। ব্রহ্মপুত্র নদের সর্বাধিক প্রস্থ ১০৪২৬ মিটার (বাহাদুরাবাদ)। এটিই বাংলাদেশের নদীগুলোর মধ্যে সবচেয়ে দীর্ঘ পথ অতিক্রম করেছে। ব্রহ্মপুত্র নদের উৎপত্তি হিমালয় পর্বতমালার উত্তর ঢালRead More


দোলন চাঁপা দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সুগন্ধি ফুল

ভূমিকা: দোলন চাঁপা হচ্ছে আদা পরিবারের হেডিচিয়াম গণের একটি সপুষ্পক বীরুৎ। এটিকে বাংলাদেশে আলংকারিক উদ্ভিদ হিসেবে বাগানে বা গৃহে চাষাবাদ করা হয়। বাড়ির টবে বা বাগানের শোভাবর্ধন করে।  এটি আকারে বেশি বড় হয় না কিন্তু এর ফুল সুগন্ধযুক্ত। বর্ণনা: দোলন চাঁপা লম্বা রাইজোমসমৃদ্ধ শোভাবর্ধক বীরুৎ। পত্রলকান্ড, ১.০-১.৫ মিটার লম্বা, গোড়া গোলাপী। দোলন চাঁপার পাতা অবৃন্তক, ল্যান্সাকার, দীর্ঘাগ্র, ২০-৪০ x ৫.৬-৯.০ সেমি, গোড়ার দিকে গোলাকার, কচি পাতার নিচ তল চাপা লোমশ, পরিপক্ক অবস্থায় প্রায় মসৃণ, লিগিউল ২.০-৩.৫ সেমি লম্বা, ঝিল্লিবৎ, রোমশ, অখন্ড। স্পাইক উপবৃত্তাকার, ১০-১২ x ৪-৬ সেমি। মঞ্জরীপত্র ঘনভাবে প্রান্তRead More


পাতা বাহার উষ্ণমন্ডলীয় অঞ্চলের আলংকারিক উদ্ভিদ

ভূমিকা: পাতা বাহার হচ্ছে ইউফরবিয়াসি পরিবারের কোডিয়াম গণের একটি সপুষ্পক গুল্ম। এটিকে বাংলাদেশে আলংকারিক উদ্ভিদ হিসেবে বাগানে বা গৃহে চাষাবাদ করা হয়। বাড়ির টবে বা বাগানের শোভাবর্ধন করে এই  ছোট বৃক্ষ।  এটি আকারে বেশি বড় হয় না ও পাতায় নানা রং থাকে।  বর্ণনা: অতিশয় শাখায়িত চিরহরিৎ গুল্ম, প্রায় ১.৫ মিটার উঁচু, পল্লব বাদামী, তরুণ অংশ সমান রোমশ বা রোমশ বিহীন। পত্র ৫-২৭ x ১-৫ সেমি, পরিবর্তনশীল, ডিম্বাকার ভল্লাকার থেকে রৈখিক, স্থুলাগ্র থেকে সূক্ষ্মাগ্র, অখন্ড বা খন্ডিত, কাগজবৎ থেকে চর্মবৎ, পার্শ্বীয় শিরা প্রায়শ অসংখ্য, রোমশ বিহীন, উজ্জ্বল, সাদা, হলুদ বা লালRead More