Main Menu

Friday, September 21st, 2018

 

সাতকড়া এশিয়ার আবাদি টক ফল

ভূমিকা: সাতকড়া বা সাতকরা (বৈজ্ঞানিক নাম: Citrus hystrix ইংরেজি নাম: Kaffir Lime, Mauritius Papeda, Leech-lime) হচ্ছে  সপুষ্পক একটি উদ্ভিদ। এই প্রজাতিটি ছোট বৃক্ষ আকারে হয়ে থাকে। বর্ণনা: সাতকড়া মধ্যম আকৃতির বৃক্ষ, ১২ মিটার পর্যন্ত উঁচু হয়, অণু শাখাপ্রশাখা চ্যাপ্টা এবং কোণাকার, কন্টক খাটো এবং দৃঢ়। পত্র একপত্রিক, বৃন্তক, বৃন্ত সমান বা পত্রক থেকে বড়, বি-হৃৎপিন্ডাকারভাবে বিডিম্বাকার বা বিবল্লমাকার, উপাঙ্গের নিম্নে পত্রবৃন্তের অংশ ০.৫-০.৮ সেমি লম্বা, খাঁজবিশিষ্ট বা দাগযুক্ত, পত্রক ডিম্বাকার-উপবৃত্তাকার বা বল্লমাকার, ৪-১০ x ২-৫ সেমি, শীর্ষ খাঁজবিশিষ্ট, অখন্ডিত বা সূক্ষ্মভাবে গোলাকার দন্তর, চর্মবৎ, তৈলাক্ত গ্রন্থিল দাগযুক্ত। পুষ্প কাক্ষিক, একলRead More


তিতা কমলা উষ্ণমন্ডলীয় এবং অর্ধ-উষ্ণমন্ডলীয় অঞ্চলের আবাদী ফল

  ভূমিকা: তিতা কমলা (বৈজ্ঞানিক নাম: Citrus aurantium ইংরেজি নাম: Sour Orange, Bitter Orange, Seville Orange, Bigarade) হচ্ছে  সপুষ্পক একটি উদ্ভিদ। এই প্রজাতিটি ছোট বৃক্ষ আকারে হয়ে থাকে। এবং এর ফল টক স্বাদ যুক্ত।  মনে করা হয় এরা Citrus maxima × Citrus reticulata দুই প্রজাতির সংকর। বর্ণনা: কমলা ছোট বৃক্ষ, উচ্চতায় ১০ মিটার পর্যন্ত হয়, অধিক শাখান্বিত, অপরিণত শাখা কোণাকার এবং সরু খাটো কন্টকযুক্ত, পরিণত শাখাপ্রশাখা বলিষ্ঠ কন্টকিত, ৮ সেমি পর্যন্ত লম্বা। পত্র সরল, একান্তর, বৃন্তক, বৃন্ত ২-৩ সেমি লম্বা, উপরের অর্ধাংশ সরু থেকে প্রশস্ত উপাঙ্গযুক্ত, উপাঙ্গ ত্রিকোণাকার বিডিম্বাকার, ২.৫Read More


পাতি লেবু গ্রীষ্মমন্ডলীয় অঞ্চলের জনপ্রিয় ও সহজলভ্য ফল

ভূমিকা: পাতি লেবু (বৈজ্ঞানিক নাম: Citrus aurantifolia ইংরেজি নাম: Lime, Sour Lime, Common Lime) হচ্ছে  সপুষ্পক একটি উদ্ভিদ। এই প্রজাতিটি ছোট বৃক্ষ আকারের হয়ে থাকে এবং এর ফল টক স্বাদ যুক্ত।   বর্ণনা: চিরহরিৎ, ঘনভাবে এবং অনিয়মিতভাবে শাখান্বিত। ছোট, কন্টকিত বৃক্ষ, ৫ মিটার পর্যন্ত উঁচু। পত্র একান্তর, ৪৮ x ২-৫ সেমি, উপবৃত্তাকার-আয়তাকার, গোলাকার দপ্তর, পত্রবৃন্ত সরু পক্ষযুক্ত। পুষ্পবিন্যাস খাটো, কাক্ষিক । রেসিম, ৩-১০ পুস্পক। পুষ্প সাদা, ছোট, উভলিঙ্গ এবং পুংপুষ্পক। বৃতি পেয়ালাকার, ৪-৬ খন্ডিত, রসালো। পাপড়ি ৪-৬টি, আয়তাকার, ৮-১২ মিমি লম্বা, শীর্ষ তীক্ষ্মাগ্র, চর্মবৎ, বিশুদ্ধ সাদা। পুংকেশর ২০-৪০টি, পুংদন্ড সাদা,Read More


সাইট্রাস হচ্ছে রুটাসি পরিবারের সপুষ্পক উদ্ভিদের একটি গণ

ভূমিকা: সাইট্রাস হচ্ছে রুটেসি পরিবারের সপুষ্পক একটি উদ্ভিদের গণ। এই গণের প্রজাতিগুলো ছোট গুল্ম বা বৃক্ষ আকারের হয়ে থাকে। সাইট্রাস বলতে সাধারণত বিভিন্ন ধরনের লেবু, কমলা ও মাল্টার প্রজাতিগুলোকে বোঝানো হয়ে থাকে। বিবরণ: গুল্ম বা ছোট বৃক্ষ, কাক্ষিক একক কন্টকযুক্ত, অপরিণত শাখাপ্রশাখা কোণাকার, পরিণত শাখাপ্রশাখা সাধারণত কন্টকহীন। পত্র একান্তর, একপত্রক বা সরল, কাগজ সদৃশ বা চর্মবৎ, পত্রবৃন্ত সাধারণত পক্ষযুক্ত বা স্পষ্ট প্রান্তবিশিষ্ট এবং পত্রফলকে সন্ধিযুক্ত, পত্রফলক অখন্ডিত বা গোলাকার অনুদস্তুর। পুষ্পবিন্যাস রেসিমোস-করিম্বোস, কাক্ষিক বা একক পুষ্প। পুষ্প উভলিঙ্গ বা গর্ভাশয় লুপ্তের মাধ্যমে কার্যকরভাবে পুংপুষ্প। বৃতি পেয়ালা-আকৃতির, ৪-৫ খন্ডিত। পাপড়ি ৪-৮টি,Read More


লেবু তুলসি রান্নায় ব্যবহৃত আফ্রিকা ও দক্ষিণ এশিয়ার বিরুৎ

ভূমিকা: (ইংরেজি: Thai lemon basil, বা Lao basil, বৈজ্ঞানিক নাম: Ocimum × africanum) হচ্ছে বাবুই তুলসি এবং বন তুলসির সংকর প্রজাতি। লেবু তুলসী আমাদের খুব একটা পরিচিত উদ্ভিদ নয়। বিবরণ: লেবু তুলসি গাছের গড়ন ও ফুল-মঞ্জরী প্রায় আমাদের পরিচিত তুলসীর মতো। এরা লেবু বেসিলের ডাল ২০-৪০ সেমি (৮-২০ ইঞ্চি) লম্বা হতে পারে।  গ্রীষ্মের শুরুতে এবং শরতের প্রথমে সাদা ফুল ফোটে। পাতাগুলি কালো তুলসির পাতাগুলির মতো, কিন্তু প্রান্তের দিকে সংকীর্ণ হতে থাকে। উদ্ভিদ উপর ফুল এবং শুকনো পরে উদ্ভিদ উপর বীজ ফর্ম। লেবু তুলসি আরব, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, লাও, মালয়, ফার্সি এবংRead More


আট প্রজাতির তুলসি গাছ ভারত ও বাংলাদেশের ঔষধি বিরুৎ

ভূমিকা: তুলসি বা তুলসী বা তুলশী (ইংরেজি: Basil) মহা উপকারি ভেষজ বিরুত জাতীয় উদ্ভিদ। এরা লামিয়াসি পরিবারের ওসিমাম গণের উদ্ভিদ প্রজাতি। বাংলাদেশ ভারতে সাধারণত ওসিমাম গণের ৮টি প্রজাতির গাছকে তুলসি বলা হয়।[১] বাংলাদেশে যে পাঁচ প্রজাতির তুলসি পাওয়া যায় সেগুলো হচ্ছে কালো তুলসি, বন তুলসি, বাবুই তুলসি, রাম তুলসি এবং শ্বেত তুলসি। এছাড়াও ভারতে আরো ৩ প্রজাতির তুলসি পাওয়া যায়, সেগুলো হচ্ছে কর্পূর তুলসি, লেবু তুলসি, Ocimum filamentosum. সবগুলো তুলসিই ভেষজগুণে অনন্য এবং একটির পরিবর্তে অন্যটি ভেষজ কাজে লাগানো যায়। সারা দুনিয়ায় ১৫ প্রজাতির তুলসি খুবই জনপ্রিয়। সাধারণত প্রচলিত তুলসিRead More