Main Menu

Monday, October 8th, 2018

 

দই খাওয়ার ১৫টি উপকারিতা

ভূমিকা: দই হলো পঞ্চামৃতের মধ্যে একটি অমৃত। পঞ্চামৃতের পাঁচটি উপকরণ হলো দুধ, দই, ঘি, মধু ও চিনি। দুধ জমিয়ে দই তৈরি হয় ! দই রুচিকর ও অগ্নিদীপন অর্থাৎ রুচি বৃদ্ধি করে আর সেই সঙ্গে খিদেও বাড়িয়ে দেয়। অনেকে মনে করেন দুধের চেয়ে দই-এর উপকারিতা বেশি। বাড়িতে পাতা টাটকা দই যা বেশি টকও নয়, আবার যাতে ঝাঁঝও নেই গুণের দিক থেকে সর্বশ্রেষ্ঠ। দইও আবার পাঁচ রকমের হতে পারে মন্দ, স্বাদু, স্বা, অন্ন আর অত্য। আয়ুর্বেদের মতে দই খিদে বাড়ায়, স্নিগ্ধ, কষায়, ভারী, পাকে অন্ন, মলরোধ করে, পিত্ত, রক্তবিকার, রক্তপিত্ত, ফোলা, মেদRead More


ভেনাসের জুতা অর্কিড এশিয়া এবং ওশেনিয়া অঞ্চলের অর্কিডের একটি গণ

ভূমিকা: ভেনাসের জুতা অর্কিড বা পাফিওপেডিলাম (বৈজ্ঞানিক নাম: Paphiopedilum) হচ্ছে অর্কিড পরিবারের সপুষ্পক উদ্ভিদের গণ। বাংলাদেশের ২০১২ সালের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনের তফসিল-৪ অনুযায়ী বাংলাদেশে প্রাপ্ত এই গণের প্রজাতিগুলো সংরক্ষিত এবং বাংলাদেশে মহাবিপন্ন হিসেবে বিবেচিত। বিবরণ: উদ্ভিদ স্থলজ, কদাচিৎ বৃক্ষাশ্রয়ী বা শৈলাশ্রয়ী, ৫০ সেমি অপেক্ষা কম লম্বা, রাইজোম সম্বলিত। কান্ড অতি খাটো। পাতা ৪-৮টি, দ্বি-সারি, অনুদৈর্ঘ্য বরাবর ভঁজকরা, ডিম্বাকার-উপবৃত্তাকার, তীক্ষাগ্র, শীর্ষ ক্ষুদ্রাকারে ২ বা ৩-খন্ডিত, চর্মবৎ। পুষ্পমঞ্জরী ১ থেকে বহু পুষ্পী, প্রান্তীয়, মঞ্জরীদন্ড খাড়া। পুষ্প সুদৃশ্য, অপেক্ষাকৃত মোমের আস্তরণময়। পৃষ্ঠীয় বৃত্যংশ খাড়া, বৃহদাকার, পার্শ্বীয় বৃত্যংশগুলো যুক্ত হয়ে যুক্ত বৃত্যংশ গঠনRead More


ছোট চমকী অর্কিড বাংলাদেশ, ভারত, ভুটান ও তিব্বতের অর্কিড

ভূমিকা: ছোট চমকী অর্কিড  (বৈজ্ঞানিক নাম: Paphiopedilum venustum) অর্কিড পরিবারের পাফিওপেডিলাম  গণের বিরুৎ। বাংলাদেশের ২০১২ সালের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনের তফসিল-৪ অনুযায়ী বাংলাদেশে প্রাপ্ত এই প্রজাতিটি সংরক্ষিত এবং বাংলাদেশে মহাবিপন্ন হিসেবে বিবেচিত। বর্ণনা: পত্রময় কান্ড বিশিষ্ট স্থলজ বীরুৎ, ৪০ সেমি পর্যন্ত উঁচু। পাতা ৪-৫টি, ২৫ সেমি পর্যন্ত লম্বা, উপবৃত্তাকারআয়তাকার বা বৃক্কাকার, বিভিন্ন বর্ণের চৌখুপি দ্বারা শোভিত, গাঢ় সবুজ, উপরের পৃষ্ঠ ফ্যাকাশে সবুজ এবং নিম্নপৃষ্ঠ ফ্যাকাশে বেগুনি বর্ণে মর্মর প্রস্তরের ন্যায় রঙ করা । ভৌম পুষ্পদন্ড ১৫-২৩ সেমি লম্বা, ১-২টি পুষ্প সম্বলিত, রোমশ, মঞ্জরীপত্র গর্ভাশয়ের অর্ধেক লম্বা। পুষ্প ৫-৬ সেমিRead More


বড় চমকি অর্কিড বাংলাদেশ, ভারত, ভুটান ও মায়ানমারের অর্কিড

ভূমিকা: বড় চমকি অর্কিড (বৈজ্ঞানিক নাম: Paphiopedilum insigne) অর্কিড পরিবারের পাফিওপেডিলাম গণের বিরুৎ। বাংলাদেশের ২০১২ সালের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনের তফসিল-৪ অনুযায়ী বাংলাদেশে প্রাপ্ত এই প্রজাতিটি সংরক্ষিত এবং বাংলাদেশে মহাবিপন্ন হিসেবে বিবেচিত। বর্ণনা: স্থলজ বীরুৎ। পাতা ২০-৩০ সেমি লম্বা, তীক্ষাগ্র, ফ্যাকাশে সবুজ, চাবুক আকৃতির, মসৃণ, বিভিন্ন বর্ণের চৌখুপি দ্বারা শোভিত নয়। ভৌম পুষ্পদন্ড ৩০ সেমি লম্বা, ১টি থেকে ২টি পুষ্প বিশিষ্ট, আয়তাকার, চেপ্টা, বৃহদাকার মঞ্জরীপত্র এবং গর্ভাশয় রোমশ, মঞ্জরীপত্র গর্ভাশয়ের সমান। পুষ্প ১০-১২ সেমি ব্যাস বিশিষ্ট, উজ্জ্বল। পৃষ্ঠীয় বৃত্যংশ আপেল সবুজ, বেগুনি দাগ বিশিষ্ট, বৃহৎ ধনুকাকার, বর্তুলাকার-ডিম্বাকার, কিনারা কিঞ্চিৎ নিম্নমুখীRead More


গমের বহুবিধ ব্যবহার

গম বা গহম (বৈজ্ঞানিক না Triticum aestivum, ইংরেজি নাম: Bread Wheat, Common Wheat)  পোয়াসি পরিবারের Triticum  গণের তৃণ। এটি সকল পরিবেশে জন্মাতে পারে। বাংলাদেশে গমের আটা খুব জনপ্রিয়। গম মূলত দক্ষিণ এশিয়ায় ধানের বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হয়। গম প্রায় সারা দুনিয়ার মানুষের প্রধান খাদ্য। শরীরের দৃঢ়তা বৃদ্ধি করে গম প্রতিদিনের খাদ্য হিসেবে যে শস্য খাবার তালিকায় ব্যবহার করা হয় অর্থাৎ ইংরেজিতে যাকে বলা হয় ‘স্টেপল ফুড’ সেগুলোর মধ্যে অনেকের মতে গম সর্বশ্রেষ্ঠ। সেজন্য নির্দিধায় গমকে শস্যের রাজা বলা হয়। এতে জীবনধারণের জন্য সব উপযোগী উপাদানই আছে বলে মনে করা হয়।Read More


যবের নানাবিধ উপকারিতা

যব বা যও (বৈজ্ঞানিক নাম: Hordeum vulgare, ইংরেজি: Barley) হচ্ছে পোয়াসি (Poaceae) পরিবারের Hordeum গণের অন্তর্ভুক্ত এবং  এটি  বিরুৎ জাতীয় উদ্ভিদ। বাংলাদেশের এর ব্যবহার বিশ শতকে যথেষ্ট থাকলেও এখন অনেক কমে গেছে। যব হচ্ছে একটি খাদ্যশস্য যা একদা গমের বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হত। যবের ছাতুতে পুষ্টি আদিকাল থেকেই যবের ব্যবহার হয়ে আসছে ভারতবর্ষে। প্রাচীন মুনি ঋষিদের প্রধান আহার যব ছিল। এই রকমই প্রচলিত ধারণা বেদে যজ্ঞের আহুতিরূপে যব দেওয়ার কথাই বলা হয়েছে। আয়ুর্বেদে বলা হয়েছে- যবের মণ্ড সহজে হজম হয়, মলরোধ করে, শূল নাশ করে ত্রিদোষ (কফ, বাত, পিত্ত) নাশ করে।Read More


ভুট্টা বিশ্বের উষ্ণ ও নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলের শস্য

ভূমিকা:  ভুট্টা  বা মাকই (বৈজ্ঞানিক নাম: Zea mays, ইংরেজি: corn) পোয়াসি পরিবারের Zea গণের তৃণ। সকল পরিবেশে জন্মাতে পারে। বর্ণনা: ভুট্টা সুদৃঢ়, সহবাসী বর্ষজীবী তৃণ, কাণ্ড একল, ১-২ মিটার লম্বা, পর্বমধ্য মোটা, নিরেট, অশাখ, পর্ব রোমশবিহীন। পত্র অসংখ্য, অভিলিপ্ত, ফলক ভল্লাকার, ২০-৪৫ x ৩-৫ সেমি, গোড়া গোলাকার, প্রান্ত সিলিয়াযুক্ত, উপরের পৃষ্ঠ রোমশ, অনুফলক ঝিল্লিযুক্ত, ৪-৫ মিমি লম্বা, আবরণ ৫-১৫ সেমি লম্বা, গোলাকার, রোমশ। পুং পুষ্পবিন্যাস প্রান্তীয় পেনিকেল, ১০-২৫ সেমি লম্বা, মধ্য মঞ্জরী অক্ষ রোমশ, শাখা ২-২০ বা ৩০ সেমি লম্বা, বৃন্ত। ১.৫-৩.০ মিমি লম্বা, রোমশ। পুং স্পাইকলেট এক জোড়াবদ্ধ, ৬-৮Read More


দুধ ও দুগ্ধজাত খাবারের উপকারিতা

দুধ শরীরকে নীরোগ রাখে প্রাচীনকাল থেকেই দুধ মানুষের প্রিয় পানীয়। শাস্ত্রে দুধকে বলা হয়েছে পৃথিবীর অমৃত। দুধ রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়িয়ে দিয়ে শরীরকে রোগমুক্ত রাখে। দুধে ভিটামিন সি ছাড়া শরীরের জন্যে প্রয়োজনীয় আর সব রকমের পোষকতত্ত্বই আছে। সেইজন্যে কিছুদিন আগে পর্যন্ত দুধকে সম্পূর্ণ আহার বলে মনে করা হতো। এখন যদিও দুধকে সম্পূর্ণ আহার বলে মনে করা হয় না এবং অতিরিক্ত দুধ খাওয়া শরীরের পক্ষে ভাল বলেও মনে করা হয় না, তবু দুধ যে খুবই পুষ্টিকর এ সম্পর্কে কোনো দ্বিমত নেই। অসুস্থ লোকেদের পক্ষে এবং শিশুদের পক্ষে টাটকা গরুর দুধ খাওয়াRead More