You cannot copy content of this page
আপনি যা পড়ছেন

কামাল আতাতুর্ক ছিলেন আধুনিক তুরস্কের প্রতিষ্ঠাতা

মোস্তফা কামাল আতাতুর্ক (Mustafa Kemal Ataturk ১৯ মে ১৮৮১- ১০ নভেম্বর ১৯৩৮) ছিলেন আধুনিক তুরস্কের প্রতিষ্ঠাতা। তরুণ তুর্কি বিপ্লবের (১৯০৮) সময় তিনি একজন সেনানায়ক ছিলেন। প্রথম বিশ্ব-মহাযুদ্ধে তুরস্কের পরাজয় ঘটলে তিনি ন্যাশনালিস্ট পার্টি গঠন এবং সেনাবাহিনীর সাহায্যে গ্রিক ও অন্যান্য বিদেশি শক্তিকে পরাভূত করে তুরস্কের শাসনক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হন (১৯২১-২২)। আরো পড়ুন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সাম্রাজ্যবাদী সন্ত্রাসবাদী যুদ্ধবাজ দেশ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৫০টি রাজ্য এবং রাজধানী ওয়াশিংটন সহ কলাম্বিয়া ফেডারেল এলাকা নিয়ে গঠিত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একটি ফেডারেল প্রজাতন্ত্র। এর আয়তন ৯৪ লক্ষ বর্গকিলোমিটার এবং জনসংখ্যা ২১ কোটি ৭০ লক্ষাধিক। কেরোলিন, মারিয়ানা ও মার্শাল দ্বীপগুলি অস্থায়ীভাবে মার্কিন অছিভুক্ত অঞ্চল। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একটি ঔপনিবেশিক শক্তিও। পোর্টো রিকো, ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ, সামোয়া, গয়াম এবং ওশেনিয়ার আর কয়েকটি ক্ষুদ্র কিন্তু স্ট্রাটেজিক দিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ দ্বীপপুঞ্জ এই ভিন্ন দেশগুলি তার দখলভুক্ত। আরো পড়ুন

কেজিবি ছিলো সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের গোয়েন্দা সংস্থা

সােভিয়েত ইউনিয়নের রাষ্ট্রীয় গােয়েন্দা সংস্থার সংক্ষিপ্ত নাম ছিলো কেজিবি (ইংরেজি: কমিটি ফর স্টেট সিকিউরিটি) বা রুশ ভাষায় তার পুরাে নাম হলো কমিতে গসুদার্সভেনয় বেজপাসনস্তি (রুশ: Комите́т Госуда́рственной Безопа́сности (КГБ)। ১৯৫৪ খ্রিস্টাব্দে গঠিত এই সংস্থার কর্মপরিধি একই সঙ্গে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক। রাজনৈতিক নিরাপত্তা বিধান ও পুলিশের কাজ সম্পন্ন করা এবং তৎসংক্রান্ত যাবতীয়

কূটনীতি হচ্ছে বিভিন্ন রাষ্ট্রের পারস্পরিক স্বার্থে সাহায্য ও সহযােগিতার নীতি

বিভিন্ন রাষ্ট্রের মধ্যে পারস্পরিক স্বার্থে সাহায্য ও সহযােগিতার সম্পর্ককে কূটনীতি (ইংরেজি: Diplomacy) বলে। কূটনীতির সঙ্গে পররাষ্ট্রনীতির সম্পর্ক নিবিড়। নিজ নিরাপত্তা, অর্থনৈতিক উন্নতি ও অন্যান্য প্রয়ােজনে প্রতিটি রাষ্ট্র আন্তর্জাতিক পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে বৈদেশিক নীতি প্রণয়ন করে। কুটনীতির মাধ্যমে সেই নীতি রূপায়িত হয়। আরো পড়ুন

কুয়োমিনতাং চীনের সাম্রাজ্যবাদ চালিত প্রতিক্রিয়াশীল রাজনৈতিক দল

কুয়োমিনতাং বা চীনের কুয়োমিনতাং বা কেএমটি (ইংরেজি: Kuomintang) ছিলো চীনের প্রতিক্রিয়াশীল প্রধান রাজনৈতিক দল। এটি ছিলো সাম্রাজ্যবাদ দ্বারা চালিত স্বৈরতন্ত্রী গণহত্যাকারী জনগণের শত্রুদের রাজনৈতিক দল।  গণতন্ত্র ও উদারনৈতিক সমাজতন্ত্রী আন্দোলন গড়ে তােলার উদ্দেশ্যে ১৮৯১ খ্রিস্টাব্দে দলটির প্রতিষ্ঠা করেছিলেন সান ইয়াত সেন (১৮৬৭-১৯২৫)। চীন তখন সামরিক অধিকর্তাদের শাসনাধীন। ১৯১১ ও ১৯১২

ভিদকুন কুইসলিং নরওয়ের ফ্যাসিবাদী নেতা

ভিদকুন কুইসলিং (ইংরেজি: Vidkun Abraham Lauritz Jonssøn Quisling; ১৮ জুলাই ১৮৮৭- ২৪ অক্টোবর ১৯৪৫) নরওয়ের ফ্যাসিবাদী নেতা ও ন্যাজোনাল সামলিং (জাতীয় ঐক্য) দলের প্রতিষ্ঠাতা (১৯৩৩)। নাৎসি জার্মানির নরওয়ে আক্রমণে তিনি সহায়তা করেন (১৯৪০)। তিনি এমন কথাও বলেছেন, “ইউরোপ মানব ইতিহাসের সর্ববৃহৎ ট্রাজেডির প্রান্তে দাঁড়িয়ে আছে: একটি নতুন বিশ্বযুদ্ধ, যা আমাদের সমগ্র সভ্যতার ধ্বংসযজ্ঞকে অন্তর্ভুক্ত করতে পারে”। আরো পড়ুন

কামন্দকীয় নীতিসার গ্রন্থ প্রসঙ্গে আলোচনা

কামন্দকীয় নীতিসার (ইংরেজি: Kamandakiya Nitisar) একটি হিন্দু রাজনীতি বিষয়ক গ্রন্থ। গ্রন্থটির রচনাকাল সম্বন্ধে মতভেদ আছে। আনুমানিক পঞ্চম খ্রিস্টাব্দের শেষদিকে অর্থাৎ ভারতে গুপ্তযুগের শেষ পর্যায়ে কামক পণ্ডিত কর্তৃক এই গ্রন্থ রচিত হয় বলে অনেকের অভিমত। জয়সওয়াল মনে করতেন যে গুপ্ত আমলের দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্তের মন্ত্রী শিখরস্বামী গ্রন্থটির রচয়িতা ছিলেন। আরো পড়ুন

Top