You cannot copy content of this page
আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > আমেরিকা > লাতিন আমেরিকা > লাতিন আমেরিকা প্রসঙ্গে

লাতিন আমেরিকা প্রসঙ্গে

লাতিন আমেরিকা বলতে উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের এমন অঞ্চলগুলোকে বোঝায় যেখানকার জনগণ মূলত স্পেনীয় এবং পর্তুগিজ ভাষায় কথা বলে। রাষ্ট্র বলতে সাধারণত ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, কিউবা, বলিভিয়া, চিলি, কলম্বিয়া, ইকুয়েডর, প্যারাগুয়ে, পেরু, ভেনেজুয়েলা, নিকারাগুয়া, মেক্সিকোসহ আরো কয়েকটি দেশকে বোঝানো হয়।

লাতিন আমেরিকার দেশগুলি প্রাকৃতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক বৈশিষ্ট্যে সুচিহ্নিত। তাসত্ত্বেও তারা বহু অভিন্ন বৈশিষ্ট্যের অংশীদার। তাদের জনগণ বিদেশী সাম্রাজ্যবাদ, স্থানীয় প্রতিক্রিয়াশীল ধনিকতন্ত্রের বিরুদ্ধে, অর্থনৈতিক প্রগতি ও সত্যিকার জাতীয় স্বাধীনতার জন্য সংগ্রামে অবিচল। এই তাৎপর্যবহ ঘটনা উল্লেখ করে ফিদেল কাস্ট্রো জোর দিয়ে বলেছেন যে সামাজিক প্রগতি ও জাতীয় স্বাধীনতার দিকে এই মহাদেশের রাষ্ট্রগুলির অগ্রগতি অপরিবর্তনীয়।

লাতিন আমেরিকার জাতীয় মুক্তি আন্দোলন দঢ়করণের পক্ষে ‘সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে জাতীয় স্বাধীনতা, গণতন্ত্র, জনগণের শ্রীবৃদ্ধি, শান্তি ও সমাজতন্ত্রের জন্য লাতিন আমেরিকা’ ঘােষণাপত্রটি বিশেষ গুরত্বপর্ণ। ১৯৭৫ সালে হাভানায় অনুষ্ঠিত লাতিন আমেরিকা ও ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের দেশগুলির কমিউনিস্ট পার্টির সম্মেলনে এটি সর্বসম্মতিক্রমে গহীত হয়েছিল। এই কর্মসূচিমূলক দলিলে জোর দিয়ে বলা হয়েছে যে সমাজতন্ত্রই লাতিন আমেরিকায় সত্যিকার উন্নয়ন নিশ্চায়ক সমাজব্যবস্থা।

তথ্যসূত্র:

১. কনস্তানতিন স্পিদচেঙ্কো, অনুবাদ: দ্বিজেন শর্মা: বিশ্বের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক ভূগোল, প্রগতি প্রকাশন, মস্কো, বাংলা অনুবাদ ১৯৮২, পৃ: ১২৩।

Anup Sadi
অনুপ সাদির প্রথম কবিতার বই “পৃথিবীর রাষ্ট্রনীতি আর তোমাদের বংশবাতি” প্রকাশিত হয় ২০০৪ সালে। তাঁর মোট প্রকাশিত গ্রন্থ ১০টি। সাম্প্রতিক সময়ে প্রকাশিত তাঁর “সমাজতন্ত্র” ও “মার্কসবাদ” গ্রন্থ দুটি পাঠকমহলে ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়েছে। ২০১০ সালে সম্পাদনা করেন “বাঙালির গণতান্ত্রিক চিন্তাধারা” নামের একটি প্রবন্ধগ্রন্থ। জন্ম ১৬ জুন, ১৯৭৭। তিনি লেখাপড়া করেছেন ঢাকা কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। ২০০০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে এম এ পাস করেন।

Leave a Reply

Top