Main Menu

ছোট চমকী অর্কিড বাংলাদেশ, ভারত, ভুটান ও তিব্বতের অর্কিড

বৈজ্ঞানিক নাম: Paphiopedilum venustum (Wall.) Pfitz. ex Stein, Orchid-Buch; 489 (1892). সমনাম: Cypripedium venustum Wall. (1820), Cypripedium pardinum Reichb. f. (1869). Stimegas venustum (Wall. ex Sims) Raf.; Cypripedium venustum var. measuresianum auct.; Paphiopedilum pardinum (Rchb.f.) Pfitzer; Paphiopedilum venustum var. pardinum (Rchb.f.) Pfitzer; Cordula venusta (Wall. ex Sims) Rolfe; Paphiopedilum venustum var. bhutanensis Pradhan; Paphiopedilum venustum var. rubrum Pradhan; Paphiopedilum venustum var. teestaensis Pradhan; Paphiopedilum venustum f. measuresianum (auct.) Braem; Paphiopedilum venustum f. pardinum (Rchb.f.) Braem. ইংরেজী নাম: জানা নেই। স্থানীয় নাম: জানা নেই। জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Monocots বর্গ: Asparagales পরিবার: Orchidaceae গণ: Paphiopedilum প্রজাতি: Paphiopedilum venustum.

ভূমিকা: ছোট চমকী অর্কিড  (বৈজ্ঞানিক নাম: Paphiopedilum venustum) অর্কিড পরিবারের পাফিওপেডিলাম  গণের বিরুৎ। বাংলাদেশের ২০১২ সালের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনের তফসিল-৪ অনুযায়ী বাংলাদেশে প্রাপ্ত এই প্রজাতিটি সংরক্ষিত এবং বাংলাদেশে মহাবিপন্ন হিসেবে বিবেচিত।

বর্ণনা: পত্রময় কান্ড বিশিষ্ট স্থলজ বীরুৎ, ৪০ সেমি পর্যন্ত উঁচু। পাতা ৪-৫টি, ২৫ সেমি পর্যন্ত লম্বা, উপবৃত্তাকারআয়তাকার বা বৃক্কাকার, বিভিন্ন বর্ণের চৌখুপি দ্বারা শোভিত, গাঢ় সবুজ, উপরের পৃষ্ঠ ফ্যাকাশে সবুজ এবং নিম্নপৃষ্ঠ ফ্যাকাশে বেগুনি বর্ণে মর্মর প্রস্তরের ন্যায় রঙ করা । ভৌম পুষ্পদন্ড ১৫-২৩ সেমি লম্বা, ১-২টি পুষ্প সম্বলিত, রোমশ, মঞ্জরীপত্র গর্ভাশয়ের অর্ধেক লম্বা। পুষ্প ৫-৬ সেমি ব্যাসবিশিষ্ট। পৃষ্ঠীয় বৃত্যংশ স্থূল ডিম্বাকার বা হৃৎপিণ্ডাকার, গাঢ় রেখাসহ সাদা। পাপড়ি রৈখিকাকার-আয়তাকার, শশ্রুময়, বিক্ষিপ্তভাবে আঁচিলময়, ছড়ানো, প্রায় চমসাকার, সবুজ এবং বেগুনি, আঁচিল কালচে। লিপ প্রায় বেলনাকার, জালিকাময়, বন্ধ্যা পুংকেশর অর্ধচন্দ্রাকৃতির, হলুদাভ সবুজ, গোলাপী আভা এবং জালিকা বিশিষ্ট, বক্র খন্ডক হলুদ, মুখ প্রায় বন্ধ করে রাখে। ফুল ধারণ: মার্চ-মে (Pearch and Cribb, 2002).

ক্রোমোসোম সংখ্যা: 2n = ৩৮ (Mehra, 1983).

আবাসস্থল: পার্বত্য উর্বর মৃত্তিকা। কন্দালাকার মূলাকার কান্ডের সাহায্যে।

বিস্তৃতি: ভারত এবং ভুটান। বাংলাদেশে প্রজাতিটি Wallich এবং Griffith কর্তৃক সিলেট জেলা থেকে রেকর্ড হয়েছে।

অন্যান্য তথ্য: বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষের ১২তম খণ্ডে (আগস্ট ২০১০) ছোট চমকী অর্কিড প্রজাতিটির সম্পর্কে বলা হয়েছে যে, এদের সংকটের কারণ দেখা হয়েছে আবাসস্থল ধ্বংস। বাংলাদেশে এই প্রজাতিটি মহাবিপন্ন। প্রজাতিটি সম্পর্কে প্রস্তাব করা হয়েছে যে সর্ব প্রথম প্রজাতিটি খুঁজে বের করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ এবং ইন-সিটু ও এক্স-সিটু পদ্ধতিতে সংরক্ষণ প্রয়োজন [১]

তথ্যসূত্র:

১. এম. কে হুদা (আগস্ট ২০১০)। “অ্যানজিওস্পার্মস ডাইকটিলিডনস”  আহমেদ, জিয়া উদ্দিন; হাসান, মো আবুল; বেগম, জেড এন তাহমিদা; খন্দকার মনিরুজ্জামান। বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ। ১২ (১ সংস্করণ)। ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি। পৃষ্ঠা ১১২। আইএসবিএন 984-30000-0286-0

আরো পড়ুন






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *