You cannot copy content of this page
আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > প্রাণ > উদ্ভিদ > গুল্ম > শিয়ালকাঁটা ভেষজ গুণে ভরা কাঁটাযুক্ত গুল্ম

শিয়ালকাঁটা ভেষজ গুণে ভরা কাঁটাযুক্ত গুল্ম

ভূমিকা: শিয়ালকাঁটা বা শেয়ালকাঁটা ( বৈজ্ঞানিক নাম: Argemone mexicana,ইংরেজি নাম:Mexican poppy, Mexican prickly poppy, flowering thistle, cardo or cardosanto) হচ্ছে Papaveraceae   পরিবারের Argemone  গণের একটি সপুষ্পক বীরুৎ। এটি বাংলাদেশে রাস্তার ধারে, ঝোপে বা জঙ্গলে অযত্নে প্রচুর জন্মে থাকে। এটি আকারে বেশি বড় হয় না এবং কাঁটাযুক্ত।

বৈজ্ঞানিক নাম: Argemone mexicana.

সমনাম: জানা নেই।

ইংরেজি নাম: Mexican poppy, Mexican prickly poppy, flowering thistle, cardo or cardosanto.

স্থানীয় নাম: শেয়ালকাঁটা।

জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Eudicots    বর্গ: Ranunculales পরিবার: Papaveraceae গণ: Argemone   প্রজাতি : Argemone mexicana

বিবরণ:

শেয়ালকাঁটা এক ধরনের ছোট গুল্মজাতীয় গাছ। উচ্চতা ২ ফুট পর্যন্ত হয়ে থাকে। দেখতে অনেকটা আফিং গাছের মতো। পাতা ঢেউ খেলানো ও কিছুটা লম্বা ধরনের। পাতার কিনারা সামান্য কাটা এবং কাঁটায় ভরা থাকে। বাংলাদেশের সর্বত্রই শেয়ালকাটা গাছ জন্মায়। তবে এ গাছের পক্ষে আদর্শ পরিবেশ হল বেলে এবং কাকুর মাটি। শেয়ালকাঁটার ডাঁটা রান্না করে খাওয়া যায়।

বিভিন্ন অসুখে ব্যবহার:

কুষ্ঠরোগে:

শেয়ালকাঁটা গাছের রস ৫ গ্রাম পরিমাণ নিয়ে তার সাথে সমপরিমাণ গরুর কাঁচা দুধ মিশিয়ে ব্যবহার করলে কুষ্ঠ সারে, তবে দীর্ঘদিন চিকিৎসা করা দরকার।

রক্ত আমাশয়ে:

পাকা বীজের তেল রোগীর বয়স অনুপাতে ৩০ থেকে ৬০ ফোঁটা সকালে একবার এবং সন্ধ্যায় একবার করে খাওয়ালে রক্ত আমাশয় অবশ্যই ভালো হয়ে যাবে। আধুনিক এ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসুকরাও এ অভিমত দিয়েছেন।

পাণ্ডু অর্থাৎ জণ্ডিস হলে:

গাছের মূল কাণ্ড চিড়লে যে হলুদ রং-এর রস বের হয়, সেটা সকালে এক চামচ এবং বিকেলে একই পরিমাণ সাতদিন রোগীকে খাওয়ালে উপকার হবে।

আরো পড়ুন:  সর্পগন্ধার ঔষধি ব্যবহার

পাঁচড়া ও চুলকানি হলে:

শেয়ালকাঁটা বীজের তেল ১০ গ্রাম এবং ২০ গ্রাম খাঁটি সরিষার তেল মিশিয়ে সামান্য গরম করে গোসল করার পর মাখতে হবে। তিন থেকে ‘ চার দিন ব্যবহার করলে নিশ্চিত আরোগ্য লাভ হয়।

ক্ষত রোগ হলে:

যে কোনো ক্ষতে শেয়ালকাঁটা গাছের আঠা প্রয়োগ করলে দ্রুত সেরে যায়। এমনকি বিষাক্ত ঘা ৪ থেকে ৫ দিনের মধ্যে ভালো হয়।

গর্মী ঘায়ে:

এটি একটি দুরারোগ্য ব্যাধি। শেয়ালকাঁটার শিকড় অল্প পানি দিয়ে বেটে ঘায়ে প্রলেপ দিলে দ্রুত ঘা শুকিয়ে যায়।

বোলতা বা ভীমরুল কামড়ালে:

শেয়ালকাটার মূল সামান্য পানির সাথে বেটে উক্ত পতঙ্গ কামড়ানো জায়গায় প্রলেপ স্বরূপ ব্যবহার করলে যন্ত্রণা থাকে না এবং ফোলাও কমে যায়।

গণোরিয়া:

শেয়ালকাটা গাছের রস এক চামচ এবং চন্দন গাছের রস সমপরিমাণে মিশিয়ে ঘায়ে লাগাতে হবে। তবে ওষুধ প্রয়োগ নিয়মিত একমাস ধরে করা দরকার।

তথ্যসূত্র:

১. কবিরাজ বৈদ্যনাথ সেন, সম্পাদনায় কবিরাজ আ: খালেক মোল্লা লোকমান হেকিমের কবিরাজী চিকিৎসা, সর্বস্বত্ব, ঢাকা, প্রথম প্রকাশ অক্টোবর ২০০৯, পৃষ্ঠা, ৩৮-৩৯।

Dolon Prova
জন্ম ৮ জানুয়ারি ১৯৮৯। বাংলাদেশের ময়মনসিংহে আনন্দমোহন কলেজ থেকে বিএ সম্মান ও এমএ পাশ করেছেন। তাঁর প্রকাশিত প্রথম কবিতাগ্রন্থ “স্বপ্নের পাখিরা ওড়ে যৌথ খামারে”। বিভিন্ন সাময়িকীতে তাঁর কবিতা প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়া শিক্ষা জীবনের বিভিন্ন সময় রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক কাজের সাথে যুক্ত ছিলেন। বর্তমানে রোদ্দুরে ডট কমের সম্পাদক।

Leave a Reply

Top