Main Menu

মাও সেতুঙের শেষ জীবনের উদ্ধৃতি

সূচিপত্র

 ০১. সর্বহারা শ্রেণির একনায়কত্ব;

 ০২. উপরিকাঠামো

 ০৩. যুদ্ধ ও বিপ্লব  

 ০৪. দর্শন;

  

পরিশিষ্ট

০১. সদর দফতরে কামান দাগো ___ মাও সেতুং

 

ই-বই সংস্করণের ভূমিকা

মাও সেতুঙের শেষ জীবনের উদ্ধৃতি’র ই-বই সংস্করণের প্রচ্ছদ

মাও সেতুঙের শেষ জীবনের উদ্ধৃতি ই-বই আকারে প্রকাশ করা হচ্ছে এই মহান নেতার শেষ জীবনের জ্ঞানগর্ভ কিছু কথার সাথে মাও অনুসারি ছাত্র-শিক্ষক-রাজনীতিক-শ্রমিক-কৃষকদের পরিচয় করিয়ে দেবার জন্য। তিনি অনেক জটিল কথাকে জনগণের সামনে অত্যন্ত সহজভাবে উপস্থাপন করতেন। জনগণের সেবায় মানবেতিহাসের সমস্ত জ্ঞানকে তিনি কাজে লাগিয়েছিলেন। আমরাও মাও সেতুঙের জ্ঞান ও অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে বাংলা ভাষাভাষী অঞ্চলে জনগণের জীবনে পরিবর্তন আনতে পারলেই আমাদের শ্রম স্বার্থক হবে।

এ পুস্তিকাটি বর্তমানে বিলুপ্ত ‘মাও সেতুঙ চিন্তাধারা প্রচার আন্দোলন’ ১৯৮৩ সালে প্রথম প্রকাশ করে। পরে ‘আন্দোলন প্রকাশনা’ এটি ২০০৫ সালে ফটোকপি করে প্রচার করে। সেখান থেকেই এই উদ্ধৃতিগুলো নেয়া হয়েছে। তবে দর্শন অংশের শেষ ৫টি বাঁকা হরফের উদ্ধৃতি আমি যুক্ত করেছি। এছাড়াও পরিশিষ্টে মাও সেতুং-এর সদর দফতরে কামান দাগো দলিলটি এবং আমার একটি প্রবন্ধ মাও সেতুং কেন প্রাসঙ্গিক যুক্ত করা হলো। বানানের ক্ষেত্রে আমি আমার পচ্ছন্দকে প্রাধান্য দিয়েছি এবং বানান যথাসম্ভব সহজ করা হয়েছে।

অনুপ সাদি, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৩।

প্রথম সংস্করণে প্রকাশকের ভূমিকা

কমরেড মাও সেতুং-এর জীবিতাবস্থায় চিন থেকে প্রকাশিত ‘সভাপতি মাও সেতুঙের উদ্ধৃতি’-তে মাও-এর শেষ জীবনের, অর্থাৎ মহান সর্বহারা সাংস্কৃতিক বিপ্লবের সময়কালের ও তার প্রস্তুতিকালের উদ্ধৃতিসমূহ অন্তর্ভুক্ত ছিল না। এছাড়া ঐ উদ্ধৃতি প্রকাশের পরও মাও অনেক অতি মূল্যবান বক্তব্য ও নির্দেশাদি রাখেন যা স্বভাবতই ওখানে থাকার কথা নয়। মাও সেতুং-এর মৃত্যুর পর আশা করা গিয়েছিল চিন থেকে এগুলো এবং মাও-এর রচনাসমূহ পূর্ণাঙ্গভাবে প্রকাশিত হবে। কিন্তু মাওয়ের মৃত্যুর পরপরই চিনে পুঁজিবাদের পথগামী হুয়া-তেং চক্র কর্তৃক পার্টি ও রাষ্ট্রযন্ত্রের ক্ষমতা কুক্ষিগত করার ফলশ্রুতিতে চিনা পার্টি একটি প্রতিক্রিয়াশীল সংশোধনবাদি পার্টিতে পরিণত হয়ে গেছে। তারা খুব স্বাভাবিকভাবেই মহান সর্বহারা সাংস্কৃতিক বিপ্লবের মহান অবদান ও শিক্ষাসমূহকে ধুয়ে মুছে বিলুপ্ত করে দেয়ার এক জঘন্য প্রতিক্রিয়াশীল কাজে নিজেদেরকে নিয়োজিত করেছে। ফলে মাও-এর রচনা সংকলনসমূহের বাকী খণ্ডগুলোর প্রকাশের কাজও (৫ম খণ্ড প্রকাশের পরই) বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এমনকি মাও-এর উদ্ধৃতি সংকলনটিও আজ চিনে কার্যত নিষিদ্ধ।

আমেরিকার বিপ্লবী কমিউনিস্ট পার্টি তার মুখপত্র “রেভোলুশ্যনারি ওয়ার্কার”-এর একটি বিশেষ সংখ্যায় (এই বিশেষ সংখ্যাটি উৎসর্গিত হয়েছে হুয়া-তেং চক্র কর্তৃক উৎখাতকৃত মাও-এর বিপ্লবী শিষ্য কমরেড চিয়াং চিং ও কমরেড চ্যাং চুন চিয়াও-এর উদ্দেশে) মাও-এর এই গুরুত্বপূর্ণ উদ্ধৃতিসমূহের একটি নির্বাচন প্রকাশ করেছে। অল্প কয়েকটি উদ্ধৃতি বাদে এই বাংলা সংকলনটি মূলত তারই অনুবাদ। যদিও মাও-এর পূর্ব জীবনের রচনা থেকেও কয়েকটি উদ্ধৃতি এখানে এসেছে, তবুও এগুলো মূলত শেষ জীবনের উদ্ধৃতিগুলোতে ব্যক্ত মতবাদ-তত্ত্ব-লাইনের জন্যই এসেছে। তাই “মাও সেতুং-এর শেষ জীবনের উদ্ধৃতি”_এ নামেই আমরা এ সংকলনটির নামকরণ করেছি।

অনুবাদ কাজ পরিপূর্ণ যথাযথভাবে সম্পন্ন করা এ জাতীয় ক্ষেত্রে খুবই জটিল তা ভালভাবে আমরা হয়তো পারিনি। সেজন্য অনুবাদের যথার্থতার প্রশ্নে যে কেউ কোনো দ্বিমত পোষণ করলে তা যদি অনুগ্রহ করে আমাদেরকে জানান তাহলে আমরা তাকে স্বাগত জানাবো এবং ভুল থাকলে তা শুধরে নিতে সচেষ্ট হবো।

বিশ্ব কমিউনিস্ট আন্দোলনে মাও-মৃত্যু পরবর্তী বর্তমান মহাবিতর্কে এদেশের আন্তরিক সর্বহারা বিপ্লবীদেরকে সঠিক দিশা দিতে এ অনূদিত উদ্ধৃতি সংকলন সহায়তা করবে এ-আশা করেই মাও সেতুং-এর সপ্তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এটি প্রকাশ করা হলও। সত্যিকারের মার্কসবাদী-লেনিনবাদী-মাও সেতুং চিন্তাধারার অনুসারীদের বিজয় অবশ্যম্ভাবী।

৯ সেপ্টেম্বর, ১৯৮৩।    

বি. দ্র.: মাও সেতুঙের শেষ জীবনের উদ্ধৃতি‘র অনলাইন সংস্করণ প্রথম প্রকাশিত হয় প্রাণকাকলিতে ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৩ তারিখে। অর্থাৎ ই-বই প্রকাশের দুইদিন পরে। রোদ্দুরেতে প্রকাশিত হচ্ছে ২৪ অক্টোবর, ২০১৬ তারিখে। নিজের আগ্রহে আমি ২০১৩ সালে এটি নিজ হাতে কম্পোজ করেছহিলাম। পাঠকের আগ্রহই আমাদের প্রেরণা।

আরো পড়ুন

অনুপ সাদির প্রথম কবিতার বই পৃথিবীর রাষ্ট্রনীতি আর তোমাদের বংশবাতি প্রকাশিত হয় ২০০৪ সালে। তাঁর মোট প্রকাশিত গ্রন্থ ১০টি। সাম্প্রতিক সময়ে প্রকাশিত তাঁর সমাজতন্ত্র মার্কসবাদ গ্রন্থ দুটি পাঠকমহলে ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়েছে। ২০১০ সালে সম্পাদনা করেন বাঙালির গণতান্ত্রিক চিন্তাধারা নামের একটি প্রবন্ধগ্রন্থ।

জন্ম ১৬ জুন, ১৯৭৭। তিনি লেখাপড়া করেছেন ঢাকা কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। ২০০০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে এম এ পাস করেন।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *