You are here
Home > প্রাণ

কদম গাছের ঔষধি ব্যবহার

কদম বা বুল কদম  এর বৈজ্ঞানিক নাম Anthocephalus indicus. ইংরেজি নাম burflower-tree, laran, Leichhardt pine  ও Rubiaceae পরিবারের  এবং Neolamarckia গণের একটি বৃক্ষ। আয়ুর্বেদিক ব্যবহার: ১. কোষবৃদ্ধিতে(Hydrocele):  অনেকে কদমপাতা বেধে থাকেন। এর কারণ হচ্ছে যদি গাছের ছালকে বা ত্বক চন্দনের মতো বেটে কোষে লাগিয়ে তারপর কদমপাতা দিয়ে বাঁধা হয়, তাহলে ব্যথা ও

কাঁটা বাঁশের ভেষজ গুণাগুণ

বাঁশ বৃহৎ ঘাস বিশিষ্ট উদ্ভিদ। এর বৈজ্ঞানিক নাম Bambusa bambos.এর ইংরেজি নাম giant thorny bamboo, Indian thorny bamboo, spiny bamboo, thorny bamboo. ব্যবহার: ১. গাভীর প্রসব সংক্রান্ত সমস্যা: আপনারা অনেকে দেখে থাকবেন যে গরুর বাচ্চা হবার সময় তাড়াতাড়ি ফুল (অমরা- placenta) বেরিয়ে যাওয়ার জন্যে দুই-এক মুঠো বাঁশপাতা এনে খাওয়ানো হয় এবং সঙ্গে

শিরীষ গাছের বিভিন্ন ঔষধি ব্যবহার

পরিচিতি এই গাছটির বোটানিক্যাল নাম Albizzia lebbeck Benth. ফ্যামিলি (Leguminosae.) একে মহীরুহ বলা চলে, রাস্তার ধারে সাধারণত  এ গাছকে লাগানো হয় ছায়াতরু হিসেবে; এই গণের (genus) আরও কয়েকটি প্রজাতি (species) এ দেশে আছে। আয়ুর্বেদে আরও দুই প্রকার শিরীষের নামোল্লেখ দেখা যায় যেমন -কষ্ণশিরীষ, কাঁটা শিরীষ ইত্যাদি। রোগের প্রতিকারে ব্যবহার করা হয় মূল

মুথার ১১টি ভেষজ গুণ

বৈদিক তথ্যে পাওয়া যাচ্ছে এক শ্রেণীর মশুক বা মুথার কথা; আর সপ্তদশ শতকে এসে সেটির চার প্রকারের উল্লেখ; অবশ্য তাদের প্রত্যেকের গুণ ও উপযোগিতাও পৃথক পৃথক বলা হয়েছে। আলাচ্য বিষয় ভদ্রমুথা সম্পর্কে। এটি এক জাতীয় ঘাস, ঔষধার্থে এর মূল ব্যবহার করা হয়, মূলটি গ্রন্থি আকারের (Tuberous root)। এটি জন্মে বালি

বাসক দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার ঔষধি গুল্ম

বৈজ্ঞানিক নাম: Justicia adhatoda L., Sp. Pl.: 15 ( 1753). সমনাম: Adhatoda zeylanica Medikus (1790), Adhatoda vasica Nees (1832). ইংরেজি নাম: White Dragon's Head, Malabar Nut. স্থানীয় নাম: ভাসক, বাকাস, বাসক, বাসা, আলোক-বিজাব। জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Eudicots অবিন্যাসিত: Asterids বর্গ: Lamiales পরিবার: Acanthaceae  গণ: Justicia প্রজাতি: Justicia adhatoda L., বিবরণ: বাসক একান্থাসি পরিবারের জাস্টিসিয়া গণের একটি সপুষ্পক গুল্ম।

রাম বাসক চিরহরিৎ ঔষধি গুল্ম

বৈজ্ঞানিক নাম:  phlogacanthus thyrsiformis ইংরেজি নাম: সমনাম: বাংলা নাম: রাম বাসক জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Eudicots অবিন্যাসিত: Asterids বর্গ: Lamiales পরিবার: Acanthaceae  গণ: Justicia প্রজাতি: phlogacanthus thyrsiformis এটি হিমালয়স্থ গাড়োয়াল থেকে ভুটান পর্যন্ত অপেক্ষাকৃত উষ্ণভাবাঞ্চল এবং অসাম ও খাসিয়া পর্বতে প্রচুর পাওয়া যায়, তবে এটা অঞ্চলে বিশেষ বিশেষ প্রয়োজনেই এর চাষ বা রোপণ করা হয়। এটির বোটানিক্যাল নাম phlogacanthus

জাস্টিসিয়া হচ্ছে একান্থাসি পরিবারের সপুষ্পক উদ্ভিদের একটি গণ

গণের বৈজ্ঞানিক নাম: Justicia L., Sp. Pl. 1: 15 (1753). জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Eudicots অবিন্যাসিত: Asterids বর্গ: Lamiales পরিবার: Acanthaceae  গণ: Justicia বিবরণ: জাস্টিসিয়া হচ্ছে একান্থাসি পরিবারের সপুষ্পক উদ্ভিদের একটি গণের নাম। এরা খাড়া, বিরলভাবে শয়ান বা আরোহী বীরুৎ বা গুল্ম। পাতা বৃন্তযুক্ত, অখন্ড, বিরল ক্ষেত্রে সভঙ্গ বা সূক্ষ্ম সভঙ্গ, কখনও কখনও সিষ্টোলিথ যুক্ত। এদের

গাদা-বানি বা লাবুনী একটি মসৃণ, ভূশায়ী বহুবর্ষজীবী বিরুত

বৈজ্ঞানিক নাম: Trianthema portulacastrum L. সমনাম: Trianthema monogyna. ইংরেজি নাম: desert horsepurslane, black pigweed, and giant pigweed স্থানীয় নাম: গাদা-বানি বা লাবুনী, পুনর্ণবা জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Edicots বর্গ: Caryophyllales পরিবার: Aizoaceae গণ: Trianthema প্রজাতি: Trianthema portulacastrum L. বর্ণনা: গাদা-বানি বা লাবুনী একটি দৃঢ় মূলবিশিষ্ট, মসৃণ, ভূশায়ী বহুবর্ষজীবী বিরুত। এদের কচি পাতা কখনো কখনো সবজি হিসেবে খাওয়া হয়।[১] এটি

বাসকের ১১টি ঔষধি গুণ

বাসক বা ভাসক বা বাকাস বা বাসা বা আলোক-বিজাব (বৈজ্ঞানিক নাম: Justicia adhatoda) একান্থাসি পরিবারের জাস্টিসিয়া গণের একটি সপুষ্পক গুল্ম।[১]  এর হিন্দি নাম আড়ষা, এটি অটরুষকের বিবর্তিত শব্দনাম। ক্ষুপজাতীয় গাছ হলেও প্রায় ৫ থেকে ৬ ফুট উচু হয়; আষাঢ়-শ্রাবণে সাদা ফুল হয়।[২] বাসক সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন বাসক দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার

কুলেখাড়ার বারোটি ভেষজ চিকিৎসাগুণ

কুলেখাড়া বা কান্তা কালিকা বা কুলিকারহা বা ক্ষরিক বা গোকুলকাঁটা (বৈজ্ঞানিক নাম: Hygrophila auriculata) একান্থাসি পরিবারের হাইগ্রোফিলা গণের একটি একবর্ষজীবী, খাড়া, শাখাবিহীন বীরুৎ। কুলেখাড়ার কাণ্ড কন্টকময়, দেড় দুই ফুট উচু হয়, আবার জায়গা হিসেবে ৩/৪ ফুটও উচু হতে দেখা যায়। কাঁটা ৬টি, ১.৫-৩.৬ সেমি লম্বা, সোজা বা বক্র কাক্ষিক কণ্টকবিশিষ্ট চতুষ্কোণী

Top