You are here
Home > প্রাণ > প্রাণী > প্রজাপতি

বাংলাদেশের প্রজাপতির একটি পূর্ণাঙ্গ তালিকা

বাংলাদেশে নিমফালিডি, আমাথুসিডি, ডানাইডি, সাটিরিডি, আক্রাইডি, রিওডিনিডি, লিসিনিডি, পিরিডি, পাপিলিওনিডি এবং হেসপারিডি পরিবারের কীটপতঙ্গগুলোকে সাধারণত প্রজাপতি বলা হয়। এই সব পরিবারগুলোর ভেতরে শেষেরটি ছাড়া বাকিগুলো পাপিলাওয়নিডি অধিপরিবারের অন্তর্ভুক্ত। শেষেরটি অন্তর্ভুক্ত হেসপারিওইডি অধিপরিবারে। এসব পরিবার বা গোত্রে প্রায় ১৫০টি প্রজাতি রয়েছে যেগুলোর নাম বাংলাদেশের প্রজাপতির তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। নিম্নে পরিবারের

রয়াল বাংলাদেশ ভারত মায়ানমার এবং চীনের প্রজাপতি

বর্ণনা: বাংলাদেশের প্রজাপতির তালিকায় থাকা রয়াল বা হলুদ পানসি হচ্ছে নিমফালিডি পরিবারের জুনোনিয়া গণের একটি প্রজাপতি। এদের প্রসারিত ডানার মাপ ৫০-৬০ মিমি। পুরুষের সামনের ডানার উপরের দিক কালো, একটি প্রশস্ত, মধ্যম ফিকে হলুদ (হলুদ) patch গোড়া থেকে ডিস্কের পেছন পর্যন্ত অবস্থিত তার পরে সরু এবং নিচের দিকে বেকে যায়, দুটি

চাঁদনরি দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার প্রজাপতি

ভূমিকা: বাংলাদেশের প্রজাপতির তালিকায় থাকা চাঁদনরি বা ধূসর পানসি হচ্ছে নিমফালিডি পরিবারের জুনোনিয়া গণের একটি প্রজাপতি। বিবরণ: চাঁদনরি প্রজাপতির প্রসারিত ডানার মাপ ৫৫-৬৫ মিমি। উভয় লিঙ্গের উপরের দিক ধূসর রঙের, বাদামী রেখা বিশিষ্ট এবং উভয় ডানায় সারিবদ্ধ বাইরের discal ওসেলি রয়েছে। পুরুষের সামনের ডানার উপরের দিকে দুটি সর্পিলাকার কালো রেখা

নয়ান বাংলাদেশ, ভারত, মায়ানমার এবং চীনের প্রজাপতি

বর্ণনা: বাংলাদেশের প্রজাপতির তালিকায় থাকা নয়ান বা ময়ূর পানসি হচ্ছে নিমফালিডি পরিবারের জুনোনিয়া গণের একটি প্রজাপতি। এদের প্রসারিত ডানার মাপ ৬০-৬৫ মিমি। উপরের দিক মেটে রঙের হালকা তামাটে। সামনের ডানার উপরের দিকে ২-এর ভেতর ওসেলাস আছে। পেছনের ডানার উপরের দিকে একটি বেশ বড় ওসেলাস ৫-এর মধ্যে ঢেকে রাখে শিরা ৪

বড় জামুই দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার প্রজাপতি

ভূমিকা: বাংলাদেশের প্রজাপতির তালিকায় থাকা বড় জামুই হচ্ছে নিমফালিডি পরিবারের হাইপোলিমনাস গণের একটি প্রজাপতি। বিবরণ: জামুই প্রজাপতির প্রসারিত ডানার মাপ ৭০-১১০ মিমি। পুরুষের উপরের দিক কালো, প্রতিটি ডানায় সাদা কেন্দ্রযুক্ত নীল ডিম্বাকার patch রয়েছে। পেছনের ডানার নিচের দিকে কোনো সুস্পষ্ট কালো দাগ ৭-এর অংশের কেন্দ্রের উপর থাকে না। স্ত্রীর উপরের দিক

পাতি ভুশন্ডা বাংলাদেশ ভারত মায়ানমারের প্রজাপতি

ভূমিকা: বাংলাদেশের প্রজাপতির তালিকায় থাকা পাতি ভুশন্ডা হচ্ছে নিমফালিডি পরিবারের সাইরেস্টিস গণের একটি প্রজাপতি। বিবরণ: পাতি ভুশন্ডা প্রজাপতির প্রসারিত ডানার মাপ ৫৫-৮০ মিমি। উভয় লিঙ্গের পেছনের ডানার উপরের দিকে প্রান্তীয় সুস্পষ্ট কান্ড, বেশ আলাদা গাঢ় দাগ রয়েছে। পুরুষের উপরের দিক গাঢ় বাদামী রঙের এবং গাঢ় দাগ বিশিষ্ট। সামনের ডানা যথাসম্ভব একটি

লালফুটকি ভুশন্ডা বাংলাদেশ ভারত মায়ানমারের প্রজাপতি

ভূমিকা: বাংলাদেশের প্রজাপতির তালিকায় থাকা লালফুটকি ভুশন্ডা হচ্ছে নিমফালিডি পরিবারের সাইরেস্টিস গণের একটি প্রজাপতি। বিবরণ: লালফুটকি ভুশন্ডার প্রসারিত ডানার মাপ ৮৫-৯৮ মিমি। পুরুষ এবং স্ত্রীর উপরের দিক fuliginous বাদামী। সামনের ডানার কোষ দুটি সর্পিলাকার কালচে রেখা দ্বারা অতিক্রান্ত, যার মধ্যে সুস্পষ্ট carmine দাগ রয়েছে। পেছনের ডানা ফ্যাকাশে তীর্যক কালচে রেখা বহন

পাতি কাগজী বাংলাদেশ ভারত মায়ানমারের প্রজাপতি

ভূমিকা: বাংলাদেশের প্রজাপতির তালিকায় থাকা পাতি কাগজী হচ্ছে নিমফালিডি পরিবারের সাইরেস্টিস গণের একটি প্রজাপতি। বিবরণ: পাতি কাগজীর প্রসারিত ডানার মাপ ৫০-৬০ মিমি। উভয় লিঙ্গে ডানার উপর মানচিত্র সদৃশ দাগ রয়েছে এবং বাইরের দিকে অনিয়মিত। উপরের অংশ ফ্যাকাশে সাদা সরু, ফ্যাকাশে মলিন রেখা বিশিষ্ট এবং একটি প্রশস্ত বাদামী প্রান্ত রয়েছে, সামনের

সিধাড়ু এশিয়ার প্রজাপতি

ভূমিকা: বাংলাদেশের প্রজাপতির তালিকায় থাকা সিধাড়ু হচ্ছে নিমফালিডি পরিবারের সিরোচোরো গণের একটি প্রজাপতি। বিবরণ: সিধাড়ু প্রজাপতির প্রসারিত ডানার মাপ ৫৭-৬৫ মিমি। পুরুষ এবং স্ত্রীর উপরের দিক বাদামী ফিকে হলুদ সেলের মধ্যে দুটি অনিয়মিত গাঢ় দাগ রয়েছে, সেলের শেষে দুটি গাঢ় সর্পিলাকার রেখা রয়েছে, একটি প্রশস্ত, বেশ সর্পিলাকার stramineous ফ্যাসসিয়া সেলের ঠিক

পাতি ঢেউখিলানি দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার প্রজাপতি

ভূমিকা: বাংলাদেশের প্রজাপতির তালিকায় থাকা পাতি ঢেউখিলানি হচ্ছে নিমফালিডি পরিবারের সিরোচোরো গণের একটি প্রজাপতি। বিবরণ: পাতি ঢেউখিলানি প্রজাপতির প্রসারিত ডানার মাপ ৬৫-৭৫ মিমি। পুরুষের উপরের অংশ ফ্যাকাশে ferruginous সামনের ডানা সরু কালচে প্রান্তীয় কান্ড বিশিষ্ট, এর ভেতরের সারিবদ্ধ lunules ফ্যাকাশে ভাবে উপরের অংশ একটি সারিবদ্ধ ৬টি কালো দাগ রয়েছে, সাদা দাগ

Top