আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > প্রাণ > উদ্ভিদ

রুটেসি হচ্ছে সপুষ্পক উদ্ভিদের সাপিনডালেস বর্গের একটি পরিবার

[otw_shortcode_info_box border_type="bordered" border_color_class="otw-red-border" border_style="bordered" rounded_corners="rounded-10"]পরিবারের নাম: Rutaceae. Juss., 1789 জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Eudicots অবিন্যাসিত: Rosids বর্গ: Sapindales পরিবার: Rutaceae [/otw_shortcode_info_box] ভূমিকা: রুটেসি (Rutaceae) হলো সপুষ্পক উদ্ভিদের মধ্যে সাপিনডালিস (ইংরেজি: Sapindales) বর্গের একটি পরিবার। এই পরিবারে আনুমানিক ১৬০টির মতো গণ রয়েছে এবং প্রজাতি আছে প্রায় ১৬০০টি।  রুটেসি পরিবারের গণগুলোর

সিবা হচ্ছে বোম্বাসি পরিবারের সপুষ্পক উদ্ভিদের গণ

সিবা হচ্ছে বোম্বাসি পরিবারের সপুষ্পক উদ্ভিদের একটি গনের নাম। এই গণের প্রজাতির গাছগুলো বৃহৎ আকারের বৃক্ষ এবং ফুল বিভিন্ন রঙের হতে পারে। বাংলাদেশের এই গণের ১টি প্রজাতি আছে যার নাম শ্বেত শিমুল বা সাদা শিমুল। সিবা গণের উদ্ভিদগুলো মধ্যমাকৃতির বৃক্ষ। এদের পত্র আঙ্গুলাকৃতি, যৌগিক, উপপত্র আশুপাতী। আরো পড়ুন

পাহাড়ী শিমুল দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার বৃহৎ সপুষ্পক বৃক্ষ

বন শিমুল, পাহাড়ী শিমুল, শিমেন গাছ (ইংরেজি: Showy Silk Cotton Tree, Silk Cotton Tree) বোম্বাসি পরিবারের বোম্বাক্স গণের বড় আকারের পাতাঝরা সপুষ্পক উদ্ভিদ। পাহাড়ি শিমুল বৃহৎ বৃক্ষ, প্রায় ৩০ মিটার উঁচু, ছাল সাদাটে, কখনও শক্ত গাত্র কন্টক যুক্ত, কখনও কন্টক অনুপস্থিত। আরো পড়ুন

কামিনী দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া ছোট সুগন্ধি ফুল

কামিনী (বৈজ্ঞানিক নাম: Murraya paniculata, ইংরেজি নাম: Cosmetic Bark, Orange Jasmine) হচ্ছে রুটেসি পরিবারের মুরায়া গণের সপুষ্পক উদ্ভিদ। এই প্রজাতি সাদা রঙের সুগন্ধি ফুল বিশিষ্ট ছোট বৃক্ষ এটি। আরো পড়ুন

বার সুঙ্গা দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ঔষধি উদ্ভিদ

বার সাঙ্গা, গন্ধাল, করিয়াফুলি, ছোটকামিনী, গিরিনিম (বৈজ্ঞানিক নাম: Murraya koenigii, ইংরেজি নাম: Curry Leaf, Curry Tree) হচ্ছে রুটেসি পরিবারের মুরায়া গণের সপুষ্পক উদ্ভিদ। এই প্রজাতি সাদা রঙের সুগন্ধি ফুল বিশিষ্ট ছোট বৃক্ষ এটি। আরো পড়ুন

মুরায়া হচ্ছে রুটেসি পরিবারের সপুষ্পক উদ্ভিদের গণ

মুরায়া হচ্ছে রুটেসি পরিবারের সপুষ্পক উদ্ভিদের গণ। এই গণের প্রজাতি সাদা রঙের সুগন্ধি ফুল বিশিষ্ট ছোট বৃক্ষ এটি। বাংলাদেশের এই গণের ২টি প্রজাতি আছে কারিপাতা বা বারসুঙ্গার, কামিনী। আরো পড়ুন

সিঙ্গাপুরি কাঠগোলাপ দক্ষিণ এশিয়ার সুগন্ধি ফুল

সিঙ্গাপুরি কাঠগোলাপ, গুরু-চম্পা, চম্পা, গুলাচীন (বৈজ্ঞানিক নাম: Plumeria obtusa, ইংরেজি নাম: Pagoda Tree, Singapore Plumeria, Frangipani) হচ্ছে এ্যাসপারাগাসি পরিবারের প্লুমেরিয়া গণের সপুষ্পক উদ্ভিদ। সাদাটে- হলদে রঙের সুগন্ধি ফুল বিশিষ্ট ছোট বৃক্ষ এটি। আরো পড়ুন

পাতি কাঠগোলাপ বাগানের শোভাবর্ধনকারী গাছ

পাতি কাঠগোলাপ, গুরু-চম্পা, চম্পা, গুলাচীন (বৈজ্ঞানিক নাম: Plumeria rubra, ইংরেজি নাম: Temple Tree, Frangipani) হচ্ছে এ্যাসপারাগাসি পরিবারের প্লুমেরিয়া গণের সপুষ্পক উদ্ভিদ। সাদাটে- হলদে রঙের সুগন্ধি ফুল বিশিষ্ট ছোট বৃক্ষ এটি। আরো পড়ুন

ছোট কাঠগোলাপ গ্রীষ্মমণ্ডলীয় অঞ্চলের সুগন্ধি ফুল

[otw_shortcode_info_box border_type="bordered" border_color_class="otw-red-border" border_style="bordered" rounded_corners="rounded-10"]বৈজ্ঞানিক নাম: Plumeria alba L., Sp. Pl.: 210 (1753). সমনাম: yarallat Plumeria hypoleuca Gasp. (1833). ইংরেজি নাম: Pagoda Tree, White Frangipani, Noseay Tree. স্থানীয় নাম: ছোট কাঠগোলাপ, গুরু-চম্পা, চম্পা, গুলাচীন। জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms বর্গ: Gentianales পরিবার: Asparagaceae গণ: Plumeria প্রজাতি: Plumeria alba [/otw_shortcode_info_box] ভূমিকা:

প্লুমেরিয়া হলো এ্যাসপারাগাসি পরিবারের সপুষ্পক উদ্ভিদের গণ

প্লুমেরিয়া হলো এ্যাসপারাগাসি পরিবারের সপুষ্পক উদ্ভিদের গণ। বাংলাদেশে এই গণের ৩টি প্রজাতি পাওয়া যায় ছোট কাঠগোলাপ, সিঙ্গাপুরি কাঠগোলাপ, পাতি কাঠগোলাপ। বিবরণ: তরুক্ষীরবাহী গুল্ম বা ছোট বৃক্ষ। কাণ্ড সাধারণত প্রশস্ত মজ্জা বিশিষ্ট ফাঁপা, কর্কবৎ। পত্র একান্তর বা সর্পিল, অধিকাংশ ক্ষেত্রে শাখার শীর্ষে গুচ্ছিত, কক্ষে গ্রন্থিল, সবৃন্তক বা অর্ধ-বৃন্তক। সাইম কাক্ষিক বা প্রান্তীয়, দ্ব্যাগ্র শাখাবিন্যাস, সমভূমঞ্জরী বা থায়ারসিফর্ম। আরো পড়ুন

Top