আপনি যা পড়ছেন

গোল মরিচের ভেষজ গুণাগুণ

গোগোল মরিচ কালো গোল মরিচ (বৈজ্ঞানিক নাম: Piper nigrum) একটি লতানো উদ্ভিদ। এটি মসলা হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও প্রাচীনকাল থেকেই এদের আয়ুর্বেদিক ব্যবহার দেখা যায়। মরিচ প্রধানত কাজ করে রসবহস্রোতে এবং অগ্ন্যাশয়ে বা পচ্যমানাশয়ে। প্রতিদিনের রান্নায় গোলমরিচ ব্যবহার করা হয়। কাজে কাজেই এর তীক্ষ্ণ স্বাদের কথা সকলেরই জানা আছে

পিপুলের ভেষজ গুণ

শ্বাসকষ্ট উপশম করে পিপুল (বৈজ্ঞানিক নাম: piper-longum)। পিপুলের ব্যবহার রান্নায় কম হলেও নামটা অনেকেরই জানা। পিপুলকে ঔষধি হিসেবে সেবন করলে অনেক উপকার পাওয়া যাবে। পিপুল দীপন বা উদ্দীপিত করে, তীক্ষ্ণ, উষ্ণ, রুক্ষ, পিত্তকারক ও মলাবেগ করায়। কফ, বায়ু, উদর রোগ, গ্যাস, লিভারের অসুখ, গুল্ম, কৃমি, শ্বাস রোগ উপশম করে। ক্ষয় রোধ করে। মস্তিষ্কের দুর্বলতা, উগ, বাত প্রকোপ, সূতিকা রোগ, ঋতুস্রাব পরিস্কার না হওয়া, নিদ্রাহীনতা কফ, শ্বাস প্রভৃতি শারিরীক অসুবিধেতে প্রাচীন কাল থেকে ঘরোয়া ওষুধ হিসেবে পিপুল ব্যবহার করা হয়ে আসছে। আরো পড়ুন

শিমের ভেষজ গুণাগুণ

শিম খেতে তো ভাল লাগে, এটি স্বাদে মিষ্টি কিন্তু খাওয়ার পর পরিপাকে শিম অম্ল বা টক রস উৎপন্ন করে। অনেকের মতে শিম খেলে শরীরের বল বাড়ে, মল পরিষ্কার হয়। কিন্তু সহজে পরিপাক হয় না বলে বায়ু সৃষ্টি করে। শিম শরীরের ভেতরের বিষ নষ্ট করে। কিন্তু সেই সঙ্গে দৃষ্টি শক্তির তেজ

ধুন্দলের ভেষজ গুণাগুণ

বর্ষার সবজি ঝিঙে ধুধুল বা ধুন্দল। আয়ুর্বেদ মতে, ঝিঙে শীতল, মধুর, কফ ও বায়ু সৃষ্টি করে, পিত্ত নাশ করে এবং খিদে বাড়িয়ে তোলে। শ্বাসের কষ্ট অথাৎ হাঁপানি, জ্বর, কাশি ও কৃমির উপশম করে। মলের অবরোধ দূর করে, পেট পরিষ্কার করে দেয়। সুস্থ থাকতে ঝিঙে বা ধুন্দলের ব্যবহার: পাথরি দূর করতে: ঝিঙে লতার

করলা বা উচ্ছের ভেষজ গুণ

করোলা রোগ সারাতে পটু করোলা স্বাদে কটু বা তিক্ত হলে কি হবে স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই উপকারী। প্রাচীনকাল থেকেই করোলার তরকারি খাওয়ার প্রচলন। সুষম সন্তুলিত আহারে যেমন অম্ল, লবন, তীক্ষ্ণ কষায় আর মিষ্টি রসের প্রয়োজনীয়তা আছে তেমনই তিক্ত ও কটু রসও প্রয়োজন। করোলা আমরা দু ধরনের দেখতে পাই যেমন বড় করোলা এবং

ক্লিটোরিয়া হচ্ছে ফেবাসি পরিবারের উদ্ভিদের গণ

ভূমিকা: ক্লিটোরি  হচ্ছে ফেবাসি পরিবারের সপুষ্পক একটি উদ্ভিদের গণের নাম। এই গণের প্রজাতিগুলো বাগানের সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য লাগানো হয়।   বিবরণ: এরা লতানো বা খাড়া বীরুৎ বা গুল্ম । পত্র পক্ষলাকারে ৩-৯ পত্রক, উপপত্র স্থায়ী, খাঁজ যুক্ত, উপপত্রিকা ছোট, তুরপুনাকার, কখনো অনুপস্থিত। পুস্প কাক্ষিক, একল বা জোড়াবদ্ধ, মঞ্জরীপত্র উপপত্র আকৃতি, স্থায়ী, জোড়াবদ্ধ, খুবই

মাধুরী লতা দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার আরোহী গুল্ম

ভূমিকা: মাধুরী লতা (বৈজ্ঞানিক নাম: Combretum indicum ইংরেজি: Rangoon Creeper, Chinese Honey Suckle) এটি কমব্রেটাসিস পরিবারের কমব্রেটাম গণের লতানো গুল্ম। বর্ণনা: মাধুরী লতা আরোহী গুল্ম, মসৃণ, তরুণ শাখা রোমশ। পাতা কাগজের মতো, উপবৃত্তাকার বা দীর্ঘারত ৫ থেকে ১১ X ২.০ থেকে ৫.৫ সেমি, শীর্ষ দীর্ঘাগ্র, মূলীয় অংশ গোলাকার বা অর্ধমুলাকার, প্রান্ত অখন্ড,

বোগেনভিলিয়া নিকটাগিনাসি পরিবারের একটি গণ

ভূমিকা: বোগেনভিলিয়া হচ্ছে নিকটাগিনাসি পরিবারের সপুষ্পক উদ্ভিদের একটি গণের নাম। এরা সাধারণত গুল্ম অথবা বৃহদাকার আরোহী লতা। এরা সচরাচর বক্র বা সোজা কাঁটাবিশিষ্ট হয়। এদের পাতা সরল, একান্তর, বৃন্তক। পুষ্পমঞ্জরী দূরবর্তী কাক্ষিক, যৌগিক মঞ্জরী সদৃশ, ৩টি পুষ্পবিশিষ্ট নিয়তাকার পুষ্পমঞ্জরী, মঞ্জরী পত্রিকা স্থায়ী, কখনও উজ্জ্বল বর্ণবিশিষ্ট, ডিম্বাকার মঞ্জরীপত্রিকা পুষ্পবৃন্তিকালগ্ন, পুষ্প উভলিঙ্গ। পুষ্পপুটগুলো

বড় বাগান বিলাস শোভাবর্ধক আলংকরিক ফুল

ভূমিকা: বড় বাগান বিলাস (বৈজ্ঞানিক নাম: Bougainvillea spectabilis) (ইংরেজি: Paper Flower বা great bougainvillea) হচ্ছে নিকটাগিনাসি পরিবারের বোগেনভিলিয়া গণের  একটি সপুষ্পক লতানো গুল্ম। এদেরকে বাংলাদেশ ও ভারতে সুদৃশ্য আলংকারিক উদ্ভিদ হিসেবে বাগানে বা গৃহে চাষাবাদ করা হয়। বিবরণ: বড় বাগানবিলাস চিরহরিৎ আরোহী গুল্ম। এদের কান্ড সরু, ঘন রোমাবৃত, সুপুষ্ট কন্টকবিশিষ্ট, কন্টক

তরমুজ উষ্ণ ও নাতিশীতোষ্ণ দেশসমূহের বাণিজ্যিক ফল

ভূমিকা: তরমুজ হচ্ছে কিউকারবিটাসি (শসা লাউ) পরিবারের সিট্রালাস গণের একটি বর্ষজীবী আরোহী বীরুৎ। বিবরণ: এদের কান্ড কোণাকার, অতিরোমশ। আকর্ষ অণুরোমশ ২-খন্ডিত। এদের পাতা ডিম্বাকার, তাম্বুলাকার, ৮-২০ x ৫-১৫ সেমি, ত্রিকোণাকার, অমসৃণ, গভীর ভাবে ৩ খন্ডিত, খন্ড পক্ষবৎ খন্ডিত, ডিম্বাকার, দীর্ঘায়ত, ভল্লাকার বা রৈখিক, শীর্ষ খন্ড সূক্ষ্মাগ্র অন্যগুলি গোলাকার, বৃন্ত ৬-১২

Top