You cannot copy content of this page
আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > জীবনী

মাহমুদুল আমীন খাঁন ছিলেন মার্কসবাদ লেনিনবাদ মাওবাদের লড়াকু সৈনিক

মাহমুদুল আমীন খাঁন (৯ জানুয়ারি ১৯৪৭-২২ জুন ২০১৯) ছিলেন শিক্ষক, বুদ্ধিজীবি, মাওবাদী বিপ্লবী, মার্কসবাদ-লেনিনবাদ-মাওবাদের আদর্শে বিশ্বাসী এবং মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত এই আদর্শের প্রতি আস্থাশীল। রাজনৈতিক জীবনে তিনি ছিলেন নয়াগণতা‌ন্ত্রিক গণ‌মোর্চার জাতীয় ক‌মিটির সদস্য ও‌ ময়মন‌সিংহ জেলা শাখার সহ-আহ্বায়ক। আরো পড়ুন

জার্মানীর ভাববাদী দার্শনিক ফ্রিডরিক নিৎসে ফ্যাসিবাদী মতাদর্শের পূর্বসূরি

ঊনবিংশ শতকের জার্মানীর ভাববাদী দার্শনিক ফ্রিডরিক নিৎসে বা ফ্রিডরিখ নিটশে (ইংরেজি: Friedrich Nietzsche; ১৮৪৪-১৯০০ খ্রি.) ফ্যাসিবাদী মতাদর্শের অন্যতম পূর্বসূরি ছিলেন। ইউরোপে পুঁজিবাদ তখন সাম্রাজ্যবাদী চরিত্র গ্রহণ করতে শুরু করেছে। ধনতান্ত্রিক অর্থনীতির অসঙ্গতি ও সংকট সমাজের অভ্যন্তরে শোষক ও শোষিতের দ্বন্দ্বকে তীব্র করে সামাজিক বিপ্লবকে অত্যাসন্ন করে তুলছে। এই বাস্তব পরিবেশে পুঁজিবাদের আত্মরক্ষার এবং প্রতিক্রিয়াশীল মনোভাবের

ইংরেজ বৈজ্ঞানিক আইজ্যাক নিউটন বলবিদ্যার প্রতিষ্ঠাতা

সপ্তদশ-অষ্টাদশ শতকের বিশ্ববরেণ্য ইংরেজ বৈজ্ঞানিক আইজ্যাক নিউটনকে (ইংরেজি: Issac Newton; ১৬৪২-১৭২৭ খ্রি.) বলবিদ্যার প্রতিষ্ঠাতা বলে গণ্য করা হয়। নিউটন বস্তুজগতের সর্বক্ষেত্রে ক্রিয়াশীল মাধ্যাকর্ষণ তত্ত্ব আবিষ্কার করেন। দার্শনিক চিন্তার বিকাশকেও তিনি বিরাটভাবে প্রভাবিত করেছেন। তাঁর মূল গ্রন্থের নাম হচ্ছে ‘ফিলসফি ন্যাচারালিস প্রিন্সিপিয়া ম্যাথেম্যাটিকা।’ ‘প্রিন্সিপিয়া ম্যাথেম্যাটিকা’ হিসাবে এ গ্রন্থ সর্বজনীনভাবে পরিচিত। তাঁর সর্ব-ব্যাপক মাধ্যাকর্ষণ তত্ত্ব সূর্য কেন্দ্রিক সৌরমন্ডলের চিন্তাকে যেমন

লুইস হেনরী মর্গান ছিলেন একজন বিখ্যাত মার্কিন সমাজবিজ্ঞানী ও নৃতাত্ত্বিক

লুইস হেনরী মর্গান (ইংরেজি: Lewis Henry Morgan; ২১ নভেম্বর, ১৮১৮ - ১৭ ডিসেম্বর, ১৮৮১ খ্রি.) আমেরিকার একজন বিখ্যাত সমাজবিজ্ঞানী ও নৃতাত্ত্বিক ছিলেন। তাঁর ‘এ্যানসিয়েন্ট সোসাইটি’ বা ‘প্রাচীন সমাজ’ সমাজ বিকাশের গবেষণায় এক মৌলিক গ্রন্থ। এই গ্রন্থে মর্গান আমেরিকার আদিম অদিবাসীদের জীবন যাত্রার উপর বিপুল পরিমাণ তথ্যাদি সংগ্রহ করে

জন স্টুয়ার্ট মিল উনিশ শতকের ইংল্যান্ডের দার্শনিক, যুক্তিবিদ এবং অর্থনীতিবিদ

জন স্টুয়ার্ট মিল (ইংরেজি: John Stuart Mill) ছিলেন ঊনবিংশ শতকের ইংল্যান্ডের প্রখ্যাত দার্শনিক, যুক্তিবিদ, অর্থনীতিবিদ এবং নীতিশাস্ত্রবেত্তা। তাঁর গ্রন্থসমূহের মধ্যে ‘সিসটেম অব লজিক’, ‘প্রিন্সিপ্যালস অব পলিটিক্যাল ইকোনমি’ ‘অন লিবার্টি’ ‘রিপ্রেজেন্টিটিভ গভর্নমেন্ট’ এবং ‘ইউটেলিটারিয়ানিজম’ বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। দর্শনের ক্ষেত্রে স্টুয়ার্ট মিলের মধ্যে হিউম, বার্কলে এবং কোঁতের প্রভাবের পরিচয় পাওয়া যায়। ভাববাদ এবং বস্তুবাদকে দর্শনের ক্ষেত্রে দুই বিপরীত প্রান্ত হিসেবে মনে

মেনসিয়াস ছিলেন কনফুসিয়াসের অন্যতম অনুসারী যাকে দ্বিতীয় ঋষি বলা হয়

মেনসিয়াস বা মেং জি বা মেং জু (ইংরেজি: Mencius) ছিলেন কনফুসিয়াসের অন্যতম অনুসারী যাকে দ্বিতীয় ঋষি বলা হয়। মেনসিয়াস ভাববাদী ছিলেন। তাঁর অভিমতে জ্ঞানের শুরু যুক্তি বা প্রজ্ঞায়, ইন্দ্রিয়লব্ধ অভিজ্ঞতায় নয়। মানুষের চরিত্র মূলত উত্তম। মানুষ জন্মগতভাবে মহৎ। কারণ মানুষের মহত্বের মূল হচ্ছে ঈশ্বরের মহত্ত্ব। ভাববাদী হলেও তৎকালীন সামাজিক রাজনীতিক

আরজ আলী মাতুব্বর ছিলেন বাংলার এক অসামান্য লোক দার্শনিক এবং জ্ঞানী ব্যক্তি

আরজ আলী মাতুব্বর (ইংরেজি: Aroj Ali Matubbar; ১৭ ডিসেম্বর, ১৯০০ – ১৫ মার্চ ১৯৮৫) ছিলেন বাংলার এক অসামান্য লোক দার্শনিক এবং জ্ঞানী ব্যক্তি। শ্রমজীবি কৃষকের জমিতে জাত, আত্মপ্রচার বিমুখ, ঋষিপ্রতিম চিন্তাবিদ ও দার্শনিক। তিনি বাংলাদেশের বরিশাল শহরের ৭-৮ কি.মি. দূরের একটি দরিদ্র কৃষক পরিবারে আরজ আলী মাতুব্বরের জন্ম। তাঁর

মার্কাস অরেলিয়াস ছিলেন স্টয়িক বা নিস্পৃহবাদী দার্শনিক

মার্কাস অরেলিয়াস (ইংরেজি: Marcus Aurelius; ২৬ এপ্রিল ১২১ – ১৭ মার্চ ১৮০ খ্রি.) ছিলেন স্টয়িক বা নিস্পৃহবাদী দার্শনিক এবং রোমের সম্রাট। তাঁর একমাত্র রচনা ‘মেডিটেশনস’ বা অনুধ্যান উপদেশ বাক্যাকারে লিখিত। মার্কাস অরেলিয়াসের দর্শনে রোম সাম্রাজ্যের সংকটের আভাস পাওয়া যায়। স্টয়িক দর্শনের যে নতুন ব্যাখ্যা অরেলিয়াস পেশ করেন তাতে স্টয়িক দর্শনের বস্তবাদী বৈশিষ্ট্য বিলুপ্ত

মাও সেতুং চীনের কমিউনিস্ট পার্টির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং বিশ্ববিপ্লবের মহানায়ক

মাও সেতুং বা মাও জেদং (ইংরেজি: Mao Tse-Tung; ২৬ ডিসেম্বর ১৮৯৩ – ৯ সেপ্টেম্বর ১৯৭৬ খ্রি.) চীনের কমিউনিষ্ট পার্টির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং চীন ভূখন্ডের প্রায় শতাব্দীকালের সামাজিক রাজনীতিক মুক্তি ও বিপ্লবের নায়ক। জাপানি দখলদার শক্তি এবং বিদেশী সাম্রাজ্যবাদের তাঁবেদার কুওমিনটাং নেতা চিয়াং কাইশেকের সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে জাতীয় স্বাধীনতা এবং সামাজিক বিপ্লবের জন্য চীনের অগণিত

টমাস ম্যালথাস বস্তুনিষ্ঠ ব্রিটিশ অর্থনীতিবিদ

ইংল্যান্ডের ধর্মজাযক টমাস রবার্ট ম্যালথাস বা মালথুস (ইংরেজি: Thomas Robert Malthus; ১৩ ফেব্রুয়ারি ১৭৬৬ - ২৩ ডিসেম্বর ১৮৩৪ খ্রি.) জনসংখ্যা ও খাদ্য উৎপাদন সমস্যার উপর একটি তত্ত্বের প্রবর্তন করেন। এই তত্ত্ব ম্যালথাসবাদ নামে পরিচিত। ম্যালথাসের মতে, কোনো দেশের খাদ্যোৎপাদন বৃদ্ধির হারের সঙ্গে জনসংখ্যার বৃদ্ধির হারের তুলনা করলে দেখা যাবে যে,

Top