You cannot copy content of this page
আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > অর্থনীতি

অর্থনৈতিক যুদ্ধতত্ত্ব যুদ্ধকে অর্থনৈতিক প্রতিযোগিতার ক্রমবিকাশ হিসাবে দেখে

অর্থনৈতিক যুদ্ধতত্ত্ব (ইংরেজি: Economic war theory) যুদ্ধকে প্রতিযোগিতামূলক আন্তর্জাতিক ব্যবস্থায় অর্থনৈতিক প্রতিযোগিতার ক্রমবিকাশ হিসাবে দেখে থাকে। যুদ্ধের অর্থনৈতিক কারণের উপর অনেকেই জোর দিয়েছেন কিন্তু অর্থনীতি কীভাবে যুদ্ধের অবস্থা সৃষ্টি করে সেই সম্বন্ধে তাঁরা একমত হতে পারেন নি। দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি সাধনের উদ্দেশ্যে অনেক সময় বিভিন্ন রাষ্ট্র যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়। মাঞ্চুরিয়ার

অর্থনীতি হচ্ছে নির্দিষ্ট সামাজিক-অর্থনৈতিক গঠনরূপের উৎপাদন-সম্পর্কের সমষ্টি

ফাগারদের মুদ্রা অর্থনীতি

অর্থনীতি (ইংরেজি: Economy) হচ্ছে নির্দিষ্ট সামাজিক-অর্থনৈতিক গঠনরূপের উৎপাদন-সম্পর্কের সমষ্টি। অর্থনীতি হচ্ছে সমাজের অর্থনৈতিক বুনিয়াদ বা কিছু ক্ষেত্রে জাতীয় অর্থনীতি বা তার অংশ এবং কতিপয় ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক শাস্ত্রকেও যেমন শিল্প-অর্থশাস্ত্র, কৃষি-অর্থশাস্ত্রইত্যাদিকেও অর্থনীতি বলা হয়। অর্থাৎ অর্থনীতি হচ্ছে বিভিন্ন কার্যকর্তার (ইংরেজি: Agents) দ্বারা উৎপাদন, বিতরণ, বা বাণিজ্য, এবং পণ্যদ্রব্য ও সেবার ভোগের

অর্থশাস্ত্র হচ্ছে উৎপাদন, বণ্টন, বিনিময় ও ভোগের প্রক্রিয়ায় মানুষের আচরণ বিশ্লেষণকারী বিজ্ঞান

মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন

অর্থশাস্ত্র বা অর্থনীতি (ইংরেজি: Economics) হচ্ছে জীবনধারণের জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর উৎপাদন, বণ্টন, বিনিময় ও ভোগের প্রক্রিয়ায় মানুষের আচরণ নিয়ে আলোচনা করে। অর্থাৎ অর্থশাস্ত্র কী প্রশ্নের জবাব হচ্ছে, অর্থশাস্ত্র হচ্ছে মানুষের মধ্যে উদ্ভূত সামাজিক সম্পর্ক এবং ঐতিহাসিকভাবে পরস্পরকে প্রতিস্থাপনকারী সামাজিক-অর্থনৈতিক গঠনরূপগুলোর বিকাশের নিয়ন্ত্রক অর্থনৈতিক নিয়মাবলীর বিজ্ঞান। অর্থনীতি শ্রেণিচরিত্রের অধিকারী, কেননা তা

অর্থনৈতিক নির্ধারণবাদ প্রসঙ্গে

মার্কসবাদের সমালোচক বুর্জোয়া কুসংস্কারাচ্ছন্ন মিথ্যাচারীরা ইতিহাসের মার্কসীয় ব্যাখ্যাকে স্থুলভাবে ‘অর্থনৈতিক নির্ধারণবাদ’ (ইংরেজি: Economic Determinism) বলে অভিহিত করে। তাদের মতে মার্কসবাদ ইতিহাসের মূল চালক-শক্তি হিসাবে কেবল আর্থনীতিক শক্তি তথা উৎপাদন ব্যবস্থার উপর জোর দেয়, মানুষের উপর ভাব তথা সাহিত্য, সংস্কৃতি, বিশ্বাস ইত্যাদির প্রভাবকে অস্বীকার করে। মার্কসবাদীগণ এরূপ সমালোচনাকে মার্কসবাদের স্থূল ব্যাখ্যা

অর্থনীতিবাদ কাকে বলে?

শ্রমিক আন্দোলনে রাজনৈতিক সংগ্রাম পরিত্যাগ করে আংশিক আর্থিক দাবি আদায়ের প্রবণতাকে অর্থনীতিবাদ (ইংরেজি: Economism) বলে আখ্যায়িত করা হয়। ১৯১৭ সালে সংঘটিত রুশ সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবের পূর্বে আন্দোলনের মধ্যে অর্থনীতিবাদ একটি বিতর্কিত ধারা ছিল। লেনিনের অনুসারী বলশেভিকগণ নরমপন্থীদের বিরুদ্ধে অর্থনীতিবাদের অভিযোগ আনেন।[১] লেনিনবাদীদের মতে অর্থনীতিবাদের অনুসারীগণকে সমাজতন্ত্রী বলা চলে না। কেননা, সমাজতান্ত্রিক

বিনিময় ভারসাম্য কাকে বলে?

কোনো দেশ যখন তার আমদানি ও রপ্তানির মধ্যে একটা সমতা বজায় রাখে তখন তাকে বিনিময় ভারসাম্য বা লেনদেনের ভারসাম্য (ইংরেজি: Balance of Payments) বলা হয়। লেনদেনের ভারসাম্যে প্রধান ভূমিকা পালন করে দেশ থেকৈ বিদেশে রপ্তানিকৃত দ্রব্যাদি এবং বিদেশ থেকে আমদানিকৃত দ্রব্যাদির মূল্য।[১] বিনিময় ভারসাম্যের হিসাবসমূহ কোন দেশের একটি

স্বয়ংসম্পূর্ণতা কাকে বলে?

স্বয়ংসম্পূর্ণতা বা অটারকি (ইংরেজি: Autarky) এবং অটোনমি উভয়ই গ্রিক শব্দ থেকে উদ্ভূত। গ্রিক ‘অটারকীয়া’র অর্থ স্বয়ংসম্পূর্ণতা। অর্থনীতিকভাবে কোনো রাষ্ট্র যদি এরূপ নীতি গ্রহণ করে যে, জীবনের যা কিছু প্রয়োজন সেসব রাষ্ট্রের অভ্যন্তরেই উৎপাদিত হবে এবং কোনো কিছুর জন্যই সে অপর রাষ্ট্রের উপর বা অপর রাষ্ট্র থেকে আমদানির উপর নির্ভর করবে

ঘাটতি বাজেট কাকে বলে

ঘাটতি বাজেট (ইংরেজি: Deficit financing বা Deficit spending বা deficit, বা budget deficit) হচ্ছে পরিকল্পিতভাবে আয় অপেক্ষা অতিরিক্ত ব্যয়বরাদ্দ। সরকারি ভাষায় অনেক সময়ে এই পদ্ধতিকে ক্ষতিপূরণের অর্থসংস্থান অথবা পাম্প করে টাকা ঢালা বলা হয়। বাজেটের ঘাটতি পূরণ করা হয় নানা ভাবে ঋণ সংগ্রহ করে। আরো পড়ুন

সমাজতন্ত্র ও সাম্যবাদের পার্থক্যরেখাগুলো কোথায় ও কীভাবে?

সাম্যবাদী সমাজের গঠনের ধারনা গড়ে উঠেছে তার দুটি পর্ব বা স্তর বা ধাপ সমাজতন্ত্র (Socialism) ও সাম্যবাদের (Communism) বৈশিষ্ট্যকে নিয়ে। এই দুই পর্বের মধ্যে অনেক মিল আছে যেহেতু সেগুলো হলও একই ব্যবস্থার দুটি পর্ব। এই দুই পর্বের ভেতরে বেশ কিছু পার্থক্যও বিরাজমান, এবং এই পার্থক্যগুলো সাম্যবাদী সমাজের বিকাশের নিম্নতম ও

সমাজতান্ত্রিক অর্থনীতির স্বরূপ বিশ্লেষণ

সমাজতান্ত্রিক অর্থনীতি (ইংরেজিতে: Socialist economics) বলতে সূত্রায়িত করা হয় প্রস্তাবিত এবং অস্তিত্বশীল সমাজতান্ত্রিক অর্থনৈতিক প্রক্রিয়ার অর্থনীতিবিদ্যাগত তত্ত্ব, অনুশীলন এবং নিয়মসমূহকে। এটি শুরু হয় এই প্রত্যয় থেকে যে, “ব্যক্তি একা বিচ্ছিন্নভাবে বাস বা কাজ করতে পারে না কিন্তু একে অপরের সাথে সহযোগিতার মাধ্যমে বাস করে। অধিকন্তু, যা জনগণ উৎপাদন করে তার সবকিছুই,

Top