You are here
Home > শিক্ষা

সমাজতান্ত্রিক সমাজ গড়তে সমাজতান্ত্রিক শিক্ষার গুরুত্ব

বিশ শতকের প্রথমার্ধে জনগণকে সুশিক্ষিত করার কথা বলা হতো; পাকিস্তানকালিন সময়েও জনগণকে সুশিক্ষা দেয়ার কথা বলা হয়েছে; কিন্তু বাংলাদেশ হবার পরে সুশিক্ষা বা শিক্ষার পরিবর্তে স্বাক্ষরতা শব্দটি চালু করা হয়। একবিংশ শতাব্দীর শূন্য দশকের বাংলাদেশে শিক্ষা সংক্রান্ত আলাপ-আলোচনা, লেখালেখি, চিন্তার প্রকাশ নেই বললেই চলে। এই সময়ে দেশবাসির মনে শিক্ষার গুরুত্ব

সমাজতান্ত্রিক সমাজে জনশিক্ষার গুরুত্ব ও প্রকৃতি

সমাজতন্ত্র জনশিক্ষাকে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গীকার হিসেবে বিবেচনা করে। একটি প্রগতিশীল ও সমাজতান্ত্রিক শিক্ষাব্যবস্থা সমাজতান্ত্রিক সমাজের বিনির্মাণে সহায়ক। সমাজতন্ত্রে জনসাধারণ অবাধে শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি চর্চার সুযোগ লাভ করে। এটি ব্যক্তিমানুষের সর্বাঙ্গীণ বিকাশের প্রয়োজনীয় অবস্থা সৃষ্টি করে। ভ্লাদিমির লেনিন বলেছেন, “পুরনো আমলে, মানুষের প্রতিভা, মানুষের মস্তিষ্ক সৃষ্টি করেছিল শুধু কিছু লোককে প্রযুক্তিবিদ্যা ও

কর্মীদের উপর সব নির্ভর করে — জে ভি স্তালিন

‘শিল্পবিজ্ঞানই সবকিছু নির্ণয় করে’_ এই পুরনো স্লোগান যে যুগের অবস্থার প্রতিফলন সে যুগে আমরা শিল্পযন্ত্রের অভাবে ভুগেছি, সে যুগ আজ অতীত। এই পুরনো স্লোগানের বদলে নতুন স্লোগান আজ আমাদের গ্রহণ করতে হবে, সেই নতুন স্লোগান হচ্ছে_ ‘কর্মীদের গুণবত্তাই সবকিছু নির্ণয় করে’। এটিই এখন প্রধান ব্যাপার। আমাদের দেশবাসী এই নতুন স্লোগানের বিরাট

ল্যেভ আব্রামোভিচ লিয়েনতিয়েভ ছিলেন রুশ অর্থনীতিবিদ

ল্যেভ আব্রামোভিচ লিয়েনতিয়েভ (রুশ ভাষা: Лев Абрамович Леонтьев) (১০ মে, ১৯০১ – ১৯৭৪) ছিলেন বিখ্যাত সোভিয়েত অর্থনীতিবিদ, সোভিয়েত ইউনিয়নের বিজ্ঞান একাডেমির সদস্য এবং বিপ্লবী কমিউনিস্ট বলশেভিক পার্টির সদস্য। তিনি পুরনো পঞ্জিকা অনুসারে ২৭ এপ্রিল, (নতুন অনুসারে, ১০ মে) ১৯০১ তারিখে লিথুয়ানিয়ার কভনোতে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯১৭-২১ সাল পর্যন্ত তিনি কমসোমলে ছিলেন। তিনি

Top