You cannot copy content of this page
আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > জ্ঞানকোষ > সাহিত্যকোষ

মহাকাব্য প্রসঙ্গে

প্রাচীন ভারতের সুবিখ্যাত দুটি মহাকাব্য-রামায়ণ এবং মহাভারত। শ্লোক হিসেবে এ কাহিনী লিখিত হয়েছিল। এ দুটি মহাকাব্যের শ্লোকসংখ্যা দুই লক্ষের উপর ছিল। যেমন গ্রীসের হোমারের ইলিয়াড, তেমনি রামায়ন, মহাভারত উভয় কাহিনী প্রেম বিষয়ক। রামায়ণের প্রধান চরিত্র ছিল রাজা রাম এবং তার স্ত্রী সীতা। ভারতের দক্ষিণে শ্রীলঙ্কা নামে যে দ্বীপ ছিল সে দ্বীপের রাজা নাকি সীতার রূপে মুগ্ধ

ভবিষ্যবাদ প্রসঙ্গে

ভবিষ্যবাদ (ইতালীয়: Futurismo) একটি শিল্পসংক্রান্ত ও সামাজিক আন্দোলন যা বিশ শতকের প্রথম দিকে ইতালিতে উত্থিত হয়েছিল। এটি গতি, প্রযুক্তি, তারুণ্য, সহিংসতা, এবং গাড়ী, বিমান, এবং শিল্প শহরের উপর জোর দিয়েছিল। ১৯০৯-১১ সালে ইতালির কবি ফিলিপ্পো টমাস মারিনেতী (১৮৭৬-১৯৪৪) শিল্প এবং সাহিত্যে ‘যন্ত্রই সব’ এরূপ একটি নতুন ধারা প্রবর্তনের চেষ্টা করেন। আরো পড়ুন

সংলাপ কাকে বলে?

সাহিত্যিক রচনায় দুটি চরিত্রের মধ্যকর কথোপকথনকে সংলাপ (ইংরেজি: Dialogue) বলে। সাধারণ কথোপকথন থেকে সংলাপের বৈশিষ্ট্য এই যে, সংলাপ পূর্বপরিকল্পিত এবং এর মাধ্যমে রচনাকারী কোনো একটা প্রতিপাদ্যকে ধারাবাহিকভাবে প্রমাণের স্তরে নিয়ে যান। কোনো সমস্যা বা প্রশ্নের উভয় দিক উপস্থাপনের জন্য সাহিত্যিকগণ সংলাপকে সব যুগেই একটি উত্তম কৌশল বলে বিবেচনা করেছেন। লেখক প্রশ্নের

দাদাবাদ কাকে বলে

দাদাবাদ বা খেয়ালবাদ (ইংরেজি: Dadaism) হচ্ছে প্রথম মহাযুদ্ধকালে ইউরোপ এবং পরবর্তী সময়ে আমেরিকার মধ্যবিত্ত শ্রেণীর কিছুসংখ্যক শিল্পী ও সাহিত্যিকের মধ্যে উদ্ভুত এক প্রকার শিল্প ও সাহিত্য আন্দোলন। মহাযুদ্ধের বিভীষিকায় আকঙ্কগ্রস্ত এবং জীবনের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়ে কিছু সংখ্যক ফরাসী বুদ্ধিজীবী সুইজারল্যাণ্ডের জুরিক শহরে আশ্রয় গ্রহণ করেন। তাঁদের নিজেদের মতের হতাশা এবং আতঙ্ককে শিল্প ও সাহিত্যে প্রকাশ করার

বিমোক্ষণ কাকে বলে?

পুঞ্জিভূত আবেগ বা শক্তির মাধ্যমে শক্তির আধারে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া বা উপায়কে ক্যাথারসিস (ইংরেজি: Catharsis) বা বিমোক্ষণ বলা হয়। ইংরেজি ক্যাথারসিস শব্দের মূল গ্রিক শব্দের অর্থে বিশুদ্ধকরণের ভাব যুক্ত ছিল।[১] গ্রিক গণ তাদের সৌন্দর্যতত্ত্বে এবং সাহিত্যে এই অর্থে শব্দটির ব্যাখ্যা করেছেন। বিমোক্ষণের মাধ্যমে ভারাক্রান্ত মন হালকা হয়,

নারীবাদ — যশোধরা বাগচী

নারীবাদের (ইংরেজি: Feminism) কোনো একক সংজ্ঞা আজকের দুনিয়ায় দেওয়া সম্ভব নয়। কিন্তু তার গোড়ার কথার মধ্যে যদি প্রবেশ করবার চেষ্টা করি, তাহলে হয়ত নারীবাদ সম্পর্কে আমাদের ধারণা একটু স্বচ্ছ হতে পারে। পশ্চিম ইউরোপে বুর্জোয়া শ্রেণির অভ্যুত্থানের মধ্যেই আজকের নারীবাদের বীজ নিহিত আছে। আরো পড়ুন

পোস্ট মডার্নিজম বা উত্তরাধুনিকবাদ প্রসঙ্গে — অভীক মজুমদার

পোস্ট-মডার্নিজম বলতে বোঝানো হয় আধুনিক-বাদ পরবর্তী দর্শন। এই দর্শন বিশেষ দৃষ্টিকোণ থেকে ব্যাখ্যা করতে চায় জীবন-জগৎ-ইতিহাস-সংস্কৃতি। এর পরিধিতে রয়েছে স্থাপত্য, সাহিত্য, ভাষা, চিত্রকলা, চলচ্চিত্র, ভিডিও, নৃত্য, সংগীত, ক্ষমতা, রাষ্ট্রশক্তি, মার্ক্সবাদ, যাবতীয় পূর্ববর্তী দর্শনচিন্তাও। তবে, প্রসঙ্গত একথা মনে রাখতে হবে যে, উত্তর-আধুনিক দর্শন আধুনিকবাদের নিছক সম্প্রসারণমাত্র নয় বরং আধুনিকবাদের সমালোচনা এবং

সমাজতান্ত্রিক বাস্তববাদ তুলে ধরে সাম্যবাদ অভিমুখী পার্টির প্রতি শিল্পীর কর্তব্য

ব্যাপক অর্থে এই সমাজতান্ত্রিক বাস্তববাদ (ইংরেজি: Socialist Realism) বলতে এক বিশেষ ধরনের সাহিত্যিক বাস্তববাদ বোঝায়। সোভিয়েত সাহিত্য ও সংস্কৃতির ক্ষেত্রে ব্যবহৃত শব্দ হচ্ছে সমাজতান্ত্রিক বাস্তববাদ। এটি এমনই এক শৈল্পিক পদ্ধতি বা শৈলী যার পেছনে সুদীর্ঘ ইতিহাস আছে এবং এই ইতিহাসের পরিপ্রেক্ষিতে বলা যায় যে সমাজতান্ত্রিক বাস্তববাদ হলো এক বিশেষ শৈল্পিক আন্দোলন।[১] আরও পড়ুন

কমেডি প্রসঙ্গে– তমাল বন্দ্যোপাধ্যায়

‘কমেডি’ জীবনের অপেক্ষাকৃত লঘুতর, স্বল্পভার, হাস্যোদ্দীপক ও আনন্দময় পরিবেশন। যদিও অ্যারিস্টটল তার দি পোয়েটিকস-এ কমেডি নিয়ে খুব কম কথাই খরচ করেছেন, তবুও সেখানে তিনি বলেছেন কমেডির মূলে রয়েছে ‘some defect or ugliness that is not painful or destructive'। প্লেটো ও হবসের চিন্তায় কমিক নাট্যকার নিজের অপেক্ষাকৃত উচ্চতর অবস্থান ও কমিক

ম্যাজিক রিয়ালিজম বা যাদু বাস্তববাদ প্রসঙ্গে — সৌগত মুখোপাধ্যায়

ম্যাজিক রিয়ালিজম আধুনিক পাশ্চাত্য সাহিত্যের কোনো নির্দিষ্ট আন্দোলন বা সময়কাল সম্পর্কিত ধারণা নয়। স্প্যানিশ আমেরিকার কিছু কথাসাহিত্যিকের রচনার গায়ে সমালোচকেরা এই বিশেষ তকমাটি লাগানোর বহু আগেই লাতিন আমেরিকায় এমন কিছু রকমারি সাংস্কৃতিক ধারণা আর দৃষ্টিভঙ্গির সংমিশ্রণ ঘটে যা এই সাহিত্য সংজ্ঞাটির উদ্ভব ও ব্যবহারকে প্রভাবিত করেছিল। বাস্তবতার যে আধুনিক ধারণা

Top