আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > জীবনশৈলি

লবণ বা নুনের উপকারিতা ও প্রকারভেদ

লবণ সব রসের রাজা। শাস্ত্রে বলা হয়েছে রস ছয় রকমের- মধুর, অম্ল, লবণ, কটু, তিক্ত ও কষা। কিন্তু সব রসের কেন্দ্র হল লবণ। সেইজন্যে লবণকে ‘সবরস' বলা হয়। লবণ বা নুন ছাড়া সমস্ত মশলা নিরর্থক। লবণ বা নুন হলো সব রসের রাজা। নুন খাওয়া শুরু হয়েছে সভ্যতার আদিযুগ থেকে। আগে

মধুর নানাবিধ উপকারিতা

দীর্ঘ জীবন দেয় মধু। অনেক লোক মনে করেন মধু খেয়ে দীর্ঘ জীবন লাভ করা যায়। একজন স্বাস্থ্যবান দীর্ঘজীবীর কাছে তাঁর সুস্থ ও দীর্ঘজীবনের রহস্য জানতে চাওয়া তিনি বলেছিলেন, আমার অক্ষুন্ন দৈহিক শক্তির একমাত্র কারণ আমি প্রতিটি এক চা চামচ পরিমাণ মধু গরম জলে ফুটাইয়া পান করি।' ভারতে প্রাচীন কাল থেকেই

গুড়ের যত গুণ

গুড় আখ কিংবা খেজুরের রস হতে তৈরি করা এক প্রকারের মিষ্ট দ্রব্য। যদিও কোথাও কোথাও তালের রস হতেও গুড় তৈরি করা হয়। এই তিন গাছের অধিকাংশ জলীয় রস ঘন করে পাক দিয়ে গুড় তৈরি করা হয়। আমরা এই নিবন্ধে মূলত আখের গুড়ের বিষয়ে আলোচনা করছি। গুড়ে আখের রসের সব খনিজ

মাখন ও ঘি স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি

মাখন হলো দুধের তৈরি পণ্য। এটি সাধারণ দুধ প্রক্রিয়াজাতের মধ্য দিয়ে ক্রীম থেকে তৈরি করা হয়ে থাকে। মাখন কোনো খাবারে মেখে খাওয়া হয়। এছাড়া সুস্বাদু রান্না করতে, কোনো ভাঁজা খাবার তৈরি, সস অথবা খাবারে সুন্দর সুঘ্রাণ আনতে মাখন ব্যবহার করা হয়। মাখনে চর্বি, পানি এবং দুগ্ধ প্রটিন থাকে। মাখন সাধারণ গরুর

ক্ষীর, মালাই ও ছানার গুনাগুণ

দুধ থেকে সর, ঘি, মাখন, ছানা, ঘোল ইত্যাদি বিভিন্ন রকমের সুস্বাদু খাদ্যবস্তু তৈরি হয়। সুস্থ থাকার জন্যে এগুলোরও অনেক উপকারিতা আছে। এই সব দিয়ে সুস্বাদু, পুষ্টিকর ও শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় খাদ্যোপাদান সমৃদ্ধ খাবার তৈরি করা হয়। মাছ, মাংসে তুলনায় এই সব দিয়ে তৈরিকৃত খাবার থেকে শরীর আমিষ পায় বেশি। দুধের সর

ঘোল বাংলার একটি পরিচিত উপকারি পানীয়

ঘোল বা মাঠা ছাছ বা ছচ্ছিকা (ইংরেজি: Whey) বাংলার একটি পরিচিত  শব্দ।  মানুষ গরম থেকে তৃষ্ণা মেটানোর জন্য এই পানীয় খেয়ে থাকে। দই এর কথা এলেই ঘোলের কথা মনে আসে। দুধ হতে ছানা অপসারণ করার পরে যে অবশিষ্ট থাকে তাকে ঘোল বলা হয়। এটি শরীরে নানা রোগ প্রতিরোধের জন্য উপকারি।

দই খাওয়ার ১৫টি উপকারিতা

ভূমিকা: দই হলো পঞ্চামৃতের মধ্যে একটি অমৃত। পঞ্চামৃতের পাঁচটি উপকরণ হলো দুধ, দই, ঘি, মধু ও চিনি। দুধ জমিয়ে দই তৈরি হয় ! দই রুচিকর ও অগ্নিদীপন অর্থাৎ রুচি বৃদ্ধি করে আর সেই সঙ্গে খিদেও বাড়িয়ে দেয়। অনেকে মনে করেন দুধের চেয়ে দই-এর উপকারিতা বেশি। বাড়িতে পাতা টাটকা দই যা

দুধ ও দুগ্ধজাত খাবারের উপকারিতা

দুধ শরীরকে নীরোগ রাখে প্রাচীনকাল থেকেই দুধ মানুষের প্রিয় পানীয়। শাস্ত্রে দুধকে বলা হয়েছে পৃথিবীর অমৃত। দুধ রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়িয়ে দিয়ে শরীরকে রোগমুক্ত রাখে। দুধে ভিটামিন সি ছাড়া শরীরের জন্যে প্রয়োজনীয় আর সব রকমের পোষকতত্ত্বই আছে। সেইজন্যে কিছুদিন আগে পর্যন্ত দুধকে সম্পূর্ণ আহার বলে মনে করা হতো। এখন যদিও

ফ্রিজ ব্যবহারের সঠিক ৩০টি নিয়ম

ফ্রিজ একটা ঘরে থাকলে গরমকে আর তোয়াক্কা করে না কেউ। গরমের সময় যে সমস্ত খাদ্যবস্তু এবেলা রান্না করে রাখলে ওবেলা খারাপ হয়ে যায়, ফ্রীজে ঢুকিয়ে তাকে কম করেও ৭ দিন সুরক্ষিত রাখা চলে। ফ্রীজে দুধ, ডিম, অতিরিক্ত খাদ্যবস্তু, ফল, কাঁচা তরি-তারকারি সব ঠিক থাকবে বেশ কয়েক দিন । এছাড়া ঠান্ডা

রান্না ও খাবার সংরক্ষণের প্রয়োজনীয় ৬৫টি ঘরোয়া টিপস

গৃহিণীদের রান্না রান্না ও খাবার সংরক্ষণের প্রয়োজন পড়ে প্রতিনিয়ত। রান্নাকে সুস্বাদু করার জন্য বিভিন্ন ধরনের পদ্ধতি অবলম্বন করতে হয়। সাধারণত সময় বাঁচাতে এবং কাজে ভুল এড়াতে এখানে কিছু টিপস বা নির্দেশাবলী দেয়া গেল যেগুলো অনুসরণ করলে রান্না ও খাবার তৈরি করার কাজটি কিছুটা হলেও সহজ হবে। ১. রান্নাঘরে বা খাবার

Top