আপনি যা পড়ছেন

চার্বাক সুমনের ব্যঙ্গ উপন্যাস ‘সদর ভাইয়ের অমর কাহিনি’ প্রকাশিত হয়েছে

সদর ভাইয়ের অমর কাহিনি ভূমিকা: অনুপ সাদি প্রকাশক: টাঙ্গন প্রথম প্রকাশ: ১ ডিসেম্বর, ২০১৮ পৃষ্ঠা: ১০৪ প্রচ্ছদ শিল্পী: সমর মজুমদার আইএসবিএন: ৯৭৮-৯৮৪-৩৪-৫৪৩৪-৮ চার্বাক সুমনের ব্যঙ্গ উপন্যাস ‘সদর ভাইয়ের অমর কাহিনি’ প্রকাশিত হয়েছে একুশের বই মেলাকে উপলক্ষ্য করে। প্রকাশ করেছে টাঙ্গন প্রকাশন। বইটির আলোচনা পাঠক ইতোমধ্যে বিভিন্ন মাধ্যমে পড়ে থাকবেন। বইটির কিছু কিছু অংশ ‘দল ভাঙা নেতা’ নামে

অবরুদ্ধ সময়ের কবিতা সমাজের অসংগতির প্রতিবাদ করছে

মানবেতিহাসে এমন সময় আসে যাকে অবরুদ্ধ হিসেবে চিহ্নিত করা যায়। তেমন অবরুদ্ধ সময়ে কবিতা হয়ে ওঠে প্রতিবাদের এক ভাষা। অন্যায়-অত্যাচারের বিরুদ্ধে কবিরা সব সময়ই প্রতিবাদ করেন। এখনো দেশে একটি দুঃসময় চলছে বলে মনে করেন কবিরা। কবিতার মাধ্যমে তার প্রতিবাদ জানালেন তাঁরা। মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে গত শুক্রবার ১৬ নভেম্বর ২০১৮ এই কবিতার আসর

বাংলা উইকিপিডিয়ায় অনুপ সাদির কার্যক্রম

বাংলা উইকিপিডিয়াসহ সবগুলো উইকিপিডিয়া পরিচালিত হয় স্বেচ্ছাসেবকদের শ্রমের মাধ্যমে। বাংলা উইকিপিডিয়ায় যেসব সম্পাদক অনবরত শ্রম দিচ্ছেন তাঁর মধ্যে অনুপ সাদি অন্যতম। তিনি গত ছয় বছরে ১৬৫০টি নিবন্ধ তৈরি এবং প্রায় ৩০০০০ সম্পাদনা সমাপ্ত করেছেন বিভিন্ন উইকিপিডিয়ায় যার সিংহভাগই করেছেন বাংলায়। এছাড়াও তিনি প্রায় ২০০০ আলোকচিত্র বা ফটো উইকিমিডিয়া কমন্সে সংযোজন করেছেন,

রাজনৈতিক সংকট উত্তরণে জাতীয় সনদের প্রস্তাব গণসংহতি আন্দোলনের

বিদ্যমান পরিস্থিতি ও জাতীয় সংকট থেকে উত্তরণে দিকনির্দেশনা সম্বলিত 'রাজনৈতিক সংকট-সংঘাত উত্তরণে নতুন জাতীয় সনদ' ঘোষণা করেছে গণসংহতি আন্দোলন। ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বৃহস্পতিবার দুপুরে গণসংহতি আন্দোলনের আয়োজনে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে এই সনদ ঘোষণা করা হয় এবং আশা প্রকাশ করা হয় রাজনৈতিক দলগুলোর পারস্পরিক অঙ্গীকারের ভিত্তিতে জাতীয় ঐক্য তৈরি সম্ভব

সংখ্যানুপাতিক নির্বাচন পদ্ধতি চালু করতে হবে: গণসংহতি আন্দোলন

গণসংহতি আন্দোলন সংখ্যানুপাতিক নির্বাচন পদ্ধতি চালু করার দাবি জানিয়েছে। ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বৃহস্পতিবার দুপুরে গণসংহতি আন্দোলনের আয়োজনে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে রাজনৈতিক সংকট সংঘাত উত্তরণে জাতীয় সনদ প্রস্তাব নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করা হয়। বিদ্যমান পরিস্থিতি ও জাতীয় সংকট থেকে উত্তরণে দিকনির্দেশনা সম্বলিত ‘সংঘাত-সংকট সমাধানে নতুন জাতীয় সনদ’

স্বৈরশাসন ও ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে কবিতা পড়লেন অবরুদ্ধ সময়ের কবিগণ

বাংলাদেশের ময়মনসিংহের মুসলিম ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে গত ৩১ আগস্ট শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ‘অবরুদ্ধ সময়ের কবিতা’ শীর্ষক প্রতিবাদী কবিতার অনুষ্ঠান। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত কবিরা এখানে কবিতা পাঠ করেন, বক্তব্য রাখেন। বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে স্বৈরশাসন ও ফ্যাসিবাদের উত্থান, নিপীড়ন ইত্যাদির বিপক্ষে কথা ও কবিতায় প্রতিবাদ জানান উপস্থিত কবিগণ। বিকাল চারটায় অনুষ্ঠিত

ময়মনসিংহে অবরুদ্ধ সময়ের কবিতা পাঠের আসর শুক্রবার

ময়মনসিংহের ব্রহ্মপুত্র পাড়ের একদল কবি সময়ের পোস্টমর্টেম করতে আয়োজন করেছেন প্রতিবাদী কবিতা পাঠের আসরের। আগামী ৩১ আগস্ট শুক্রবার ময়মনসিংহের মুসলিম ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে একটি কবিতা পাঠের অনুষ্ঠান। ‘অবরুদ্ধ সময়ের কবিতা’ নামে অনুষ্ঠানটি শুরু হবে বেলা তিনটায়। রাত আটটা পর্যন্ত চলবে অনুষ্ঠানটি। পৃথিবীতে যখনই নেমে এসেছে অবরুদ্ধ সময়, তার মুখোমুখি

ব্রহ্মপুত্র সুরক্ষা আন্দোলনের সাত দফা গণদাবি উত্থাপন

বাংলাদেশের ময়মনসিংহ জেলা শহরের জয়নুল আবেদিন পার্কের বৈশাখী মঞ্চে গত ২৭ জুলাই ২০১৮ তারিখ অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো ‘ব্রহ্মপুত্র সুরক্ষা আন্দোলন’ উপলক্ষে দিনব্যাপি বিভিন্ন কর্মসূচি। ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে সারা দিনব্যাপি উক্ত অনুষ্ঠানে  আলোচনা,  আর্টক্যাম্প, চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা, সংগীত, কবিতা,  নৃত্য ও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনের মধ্য দিয়ে রাত ১০টায় সমাপ্ত হয়েছে। অনুষ্ঠানে আলোচনা

সুন্দরবনে ক্যামেরার ফাঁদ পদ্ধতিতে বাঘ জরিপের কাজ শেষ, বিশ্লেষণ বাকি

সুন্দরবনে ক্যামেরার ফাঁদ (ক্যামেরা ট্রাপিং) পদ্ধতিতে বাঘ গণনা শুরু হয়েছিল গত ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮। সুন্দরবনের খুলনা ও শরণখোলা রেঞ্জের দুটি বন্যপ্রাণি অভয়ারণ্যের ৪৭৮ বর্গকিলোমিটার এলাকায় করা হয়েছিল এই পর্যবেক্ষণ। বন বিভাগ তখন জানিয়েছিল, ২৩৯টি পয়েন্টের গাছ বা খুঁটির সঙ্গে ৬৭০টি ক্যামেরা বসিয়ে বাঘ মনিটরিং করা হবে। জানা গেছে, পুরো কার্যক্রম

সিংড়া জাতীয় উদ্যানে ১২টি শকুন অবমুক্ত

দিনাজপুরের সিংড়া জাতীয় উদ্যানে বিভিন্ন স্থান থেকে উদ্ধার করা ১২টি হিমালয়ী গৃধিনী শকুনকে (Himalayan Griffon) সেবা পরিচর্যা দিয়ে দিনাজপুরে অবমুক্ত করা হয়েছে। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে পরিবেশের পরম বন্ধু শকুন আমাদের দেশ থেকে প্রায় বিলুপ্ত হতে চলেছে। শকুন বিলুপ্তির কারণ হিসেবে সাম্রাজ্যবাদী পুঁজিবাদী প্রকৃতি ও পরিবেশ বিরোধী ইউরোপীয়-মার্কিন বিশ্বব্যবস্থা দায়ী

Top