আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > সংকলন > কাসান্ড্রা — বিষ্ণু দে

কাসান্ড্রা — বিষ্ণু দে

বলো কাসান্ড্রা, এত দুর্যোগ ছিলো কোথায়

সকলে ভাবছি_ প্রায় সারা দেশ, কয়েকজনাকে

বাদ দিই। মুখ খোলো কাসান্ড্রা, সূর্যালোকে

ঝলসিয়ে চোখ বলো কি পাপের শাসন এ হায়;

সূর্য তোমার হানে আমাদের_ কয়েকজনায়

বাদ দিই, তারা হিরণ্ময়েরই পাত্রে ঢোকে।

আমরা কখনো হেরিনি হেলেন, সে মায়াননে

আমরা খুঁজি নি মর্ত্যরূপের ঐশী সীমা,

ইথাকায় কভু কলাকৌশলে কিনি নি নাম

তবু কেন মরি ঘরে ব’সে লোভী ট্রয়ের রণে

রাজরাজড়ার বাজারে বৃথাই মাথার ঘাম

পায়ে ফেলি, দেশে ছার জীবনের নেইকো বীমা।

উন্নত দেশ নই কোনোদিন, দিন আনি খাই,

আমরা কখনো ঘামাইনি মাথা দেশশাসনে,

বিশ্বের কথা দূরে পরিহার করি এ যাবত,

বিশ্বের ভার এ ঘাড়েই পড়ে প্রাণের বালাই

ঘর থেকে টেনে আনে সংক্রাম দুঃশাসনে,

সূর্যালোকের নগ্নতা পায় তার যত ক্ষত।

বলো কাসান্ড্রা, সূর্যপূজাই করা স্বভাব,

বংশে বংশে শেষটা ধ্বংস সূর্যালোকেই?

মন্ত্রতন্ত্র সবাই পড়েছি ঘরের কোণায়,

ভালো মানুষের সারাটা জাত_ সে কয়েকজনায়

বাদ দিই, তাই মরবে না খেয়ে আর মড়কে?

সূর্যের দেশে মনুষ্যত্বে কিছু অভাব!

বিবরণঃ মার্কসবাদী কবি বিষ্ণু দে’র (১৮ জুলাই ১৯০৯ – ৩ ডিসেম্বর ১৯৮২) এই কবিতাটি কবির সন্দ্বীপের চর কাব্যগ্রন্থ থেকে নেয়া। তিনি একজন বিখ্যাত বাঙালি কবি লেখক এবং চলচ্চিত্র সমালোচক। তিনি কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম অবিনাশচন্দ্র দে এবং মায়ের নাম মনোহারিণী দেবী। বাবা ছিলেন উকিল। বিষ্ণু দে কলকাতারই ছেলে এবং কলকাতায় তিনি পুরো জীবন কাটিয়েছেন। ১৯২৭ সালে কলকাতার সংস্কৃত কলেজিয়েট স্কুল থেকে বিষ্ণু দে প্রথম বিভাগে ম্যাট্রিক পাস করেন। ১৯৩০ সালের বঙ্গবাসী কলেজ থেকে আইএ এবং ১৯৩২ সালে সেন্ট পলস কলেজ থেকে বিএ পাস করেন। প্রথম থেকেই তিনি ইংরেজিতে খুব ভালো ছিলেন এবং বিএ পরীক্ষায় ইংরেজিতে ভালো করার জন্য পুরস্কারও পান। ১৯৩৪ সালে তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজিতে এমএ পাস করেন। পরের বছর, অর্থাৎ ১৯৩৫ সালে কলকাতা রিপন কলেজে ইংরেজির শিক্ষক হিসেবে যোগ দেন। এখানে তিনি সহকর্মী হিসেবে পেয়েছিলেন কবি বুদ্ধদেব বসুকে। তিনি ইংরেজি সাহিত্যের অধ্যাপক হিসেবেই বিভিন্ন সরকারি কলেজে চাকরি করেছেন। ১৯৬৯ সালে চাকরি থেকে অবসর নেন। তিনি ১৯৭১ সালে তাঁর স্মৃতি সত্তা ভবিষ্যৎ বইটির জন্য ভারতের সর্বোচ্চ সাহিত্য পুরস্কার জ্ঞানপীঠ লাভ করেন। ততোদিনে তিনি বাংলা সাহিত্যের এক অতি সম্মানিত কবি। ১৯৮২ সালের ৩ ডিসেম্বর তিনি পরলোকগমন করেন।

আরো পড়ুন:  তৃপ্ত আশার খোঁজে
Anup Sadi
অনুপ সাদির প্রথম কবিতার বই “পৃথিবীর রাষ্ট্রনীতি আর তোমাদের বংশবাতি” প্রকাশিত হয় ২০০৪ সালে। তাঁর মোট প্রকাশিত গ্রন্থ ১০টি। সাম্প্রতিক সময়ে প্রকাশিত তাঁর “সমাজতন্ত্র” ও “মার্কসবাদ” গ্রন্থ দুটি পাঠকমহলে ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়েছে। ২০১০ সালে সম্পাদনা করেন “বাঙালির গণতান্ত্রিক চিন্তাধারা” নামের একটি প্রবন্ধগ্রন্থ। জন্ম ১৬ জুন, ১৯৭৭। তিনি লেখাপড়া করেছেন ঢাকা কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। ২০০০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে এম এ পাস করেন।

Leave a Reply

Top
You cannot copy content of this page