Main Menu

বৈজ্ঞানিক ও টেকনিক্যাল কাজের খসড়া পরিকল্পনা — ভি আই লেনিন

(Draft Plan of Scientific and Technical Work)

বিজ্ঞান একাডেমি, যে প্রতিষ্ঠান রাশিয়ার স্বাভাবিক উৎপাদনী শক্তি[১] নিয়ে নিয়মিত সমীক্ষা ও গবেষণা শুরু করেছে, সুপ্রিম অর্থনৈতিক কাউন্সিল থেকে রাশিয়ার শিল্পগত পুনর্গঠন ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের পরিকল্পনা আরও দ্রুত রচনার জন্য বিশেষজ্ঞদের নিয়ে কয়েকটা কমিশন গঠন করার জন্য এই প্রতিষ্ঠানের ওপর অবিলম্বে নির্দেশ দেওয়া উচিত।

এই পরিকল্পনায় নিম্নবর্ণিত বিষয়গুলি অন্তর্ভুক্ত হওয়া উচিত :

কাছাকাছি কাঁচামাল পাবার এবং কাঁচামালের প্রসেসিং থেকে শুরু করে পূর্ণপ্রস্তুত উৎপন্ন পাওয়া পর্যন্ত তার পূর্ববর্তী সমস্ত পর্যায়ে অর্ধপ্রস্তুত দ্রব্যাদি প্রসেসিং-এ সর্বনিম্ন শ্রম ব্যয়ের দিক থেকে রাশিয়ায় শিল্প স্থাপনের যুক্তিযুক্ত স্থাননির্ধারণ করা;

সর্বাধুনিক ও সর্ববৃহৎ শিল্প, বিশেষ করে ট্রাস্টের দিক থেকে অল্পসংখ্যক বৃহত্তম উদ্যোগে উৎপাদনের যুক্তিসিদ্ধ সম্মিলন ও কেন্দ্রীভূতিকরণ;

বর্তমান রুশ সোভিয়েত প্রজাতন্ত্রকে (ইউক্রেন এবং জার্মান অধিকৃত অঞ্চলগুলি ছাড়া) প্রধান প্রধান সমস্ত কাঁচামাল ও শিল্পের প্রধান প্রধান শাখাসমূহের স্বনির্ভর সরবরাহের ব্যবস্থা যথাসম্ভব বাস্তবায়ন করা;

শিল্প ও পরিবহণের বৈদ্যুতীকরণে এবং কৃষিতে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানের দিকে বিশেষ মনোযোগ দেওয়া। জ্বালানির আহরণে ও পরিবহণে সর্বনিম্ন ব্যয়ে বিদ্যুৎ শক্তি পাবার জন্য প্রথম শ্রেণির নয় এমন জ্বালানির (পীট, নিকৃষ্ট ধরনের কয়লা) সদ্ব্যবহার; সাধারণভাবে এবং কৃষিতে প্রয়োগের জন্য জলশক্তি ও বায়ুচালিত ইঞ্জিন।[২]

টিকা:

১. এখানে “রাশিয়ার প্রকৃতিক উৎপাদনশীল শক্তির গবেষণা কমিশন কর্তৃক সরবরাহকৃত তথ্যাদির কথা বলা হচ্ছে। লেনিনের নির্দেশে কমিশনের প্রকাশনা কার্যক্রম ব্যাপক পরিসরে বিস্তৃত হয়। কমিশন থেকে “রাশিয়ার সম্পদ” গ্রন্থমালা এবং বহুখন্ডের “রাশিয়ার প্রাকৃতিক উৎপাদনশীল শক্তি” বিষয়ক সংকলন প্রকাশিত হতে থাকে। সোভিয়েত আমলের তিন বছরে (১৯১৮-১৯২০) কমিশন বিপ্লব-পূর্ব প্রকাশনার তুলনায় চারগুণেরও বেশি প্রকাশনা প্রকাশিত হয়েছিল।

২. ভি. ই. লেনিন, কালেক্টেড ওয়ার্কস, ২৭তম খণ্ড, প্রগ্রেস পাবলিশার্স, মস্কো ১৯৭২, দ্বিতীয় সংস্করণ, পৃঃ ৩২০-৩২১। লেখাটি লেখা হয় ১৯১৮-এর এপ্রিলে। এখানে বঙ্গানুবাদটি শেখর রহিম কর্তৃক অনূদিত, লেনিনের নির্বাচিত রচনাসংগ্রহ ৪, শ্রাবণ ঢাকা থেকে গৃহীত।  

আরো পড়ুন






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *