You cannot copy content of this page
আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > সংকলন > মাও সেতুং > সদর দফতরে কামান দাগো — মাও সেতুং

সদর দফতরে কামান দাগো — মাও সেতুং

আমার প্রথম বড় হরফের পোস্টার

চিনের প্রথম মার্কসবাদী-লেনিনবাদি বড় হরফের পোস্টার এবং ‘পিপলস ডেইলি’-তে এর উপর ভাষ্যকারের নিবন্ধ_এগুলো বাস্তবিকই চমৎকারভাবে লিখিত। কমরেডগণ, এগুলো পুনরায় পড়ুন। কিন্তু বিগত পঞ্চাশ দিন বা অনুরূপ সময়ে কেন্দ্র থেকে শুরু করে নিচে স্থানীয় স্তর পর্যন্ত কিছু নেতৃস্থানীয় কমরেড পুরোপুরি উল্টোভাবে কাজ করেছে। বুর্জোয়াদের প্রতিক্রিয়াশীল অবস্থান গ্রহণ করে তারা এক বুর্জোয়া একনায়কত্ব চাপিয়ে দিয়েছে এবং সর্বহারার মহান সাংস্কৃতিক বিপ্লবের উত্তাল তরঙ্গময় আন্দোলনকে আঘাত করেছে।

তারা তথ্যগুলোকে উল্টে দিয়েছে এবং কালো ও সাদাকে গুলিয়ে ফেলেছে, বিপ্লবীদেরকে ঘেরাও করেছে ও দমন করেছে, তাদের নিজেদের থেকে ভিন্ন এমন মতামতগুলোকে রুদ্ধ করেছে, শ্বেত সন্ত্রাস চাপিয়ে দিয়েছে, এবং নিজেদের নিয়ে খুব সন্তুষ্টিতে ভুগেছে। তারা বুর্জোয়াদের ঔদ্ধত্যকে চাঙ্গা করেছে এবং সর্বহারা শ্রেণির মনোবলকে চুপসে দিয়েছে। কী ভীষণ বিষাক্ত জিনিস!

১৯৬২ সালের ডান বিচ্যুতি এবং ১৯৬৪ সালের ভুল প্রবণতা, যা ছিল আকৃতিতে ‘বাম’ কিন্তু সারবস্তুতে ডান, সেসবের সাথে যুক্তভাবে দেখলে, মানুষকে বিরাটভাবে জাগ্রত করা এর কি উচিত নয়?

৫ আগস্ট, ১৯৬৬

বি. দ্রঃ এটি হলো মাও সেতুঙের লেখা ছোট একটি দলিল, যা লেখা হয়েছিল চিনা কমিউনিস্ট পার্টির ৮ম কেন্দ্রীয় কমিটির ১১তম পুর্ণাঙ্গ অধিবেশন চলাকালে_ ৫ আগস্ট, ১৯৬৬ সালে। এটি ঐ দিনই কমিউনিস্ট পার্টির সরকারি পত্রিকা ‘পিপলস ডেইলি’_তে প্রকাশিত হয়েছিল। 

আরো পড়ুন:  কমিউনিজমের নীতিমালা
Anup Sadi
অনুপ সাদির প্রথম কবিতার বই “পৃথিবীর রাষ্ট্রনীতি আর তোমাদের বংশবাতি” প্রকাশিত হয় ২০০৪ সালে। তাঁর মোট প্রকাশিত গ্রন্থ ১০টি। সাম্প্রতিক সময়ে প্রকাশিত তাঁর “সমাজতন্ত্র” ও “মার্কসবাদ” গ্রন্থ দুটি পাঠকমহলে ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়েছে। ২০১০ সালে সম্পাদনা করেন “বাঙালির গণতান্ত্রিক চিন্তাধারা” নামের একটি প্রবন্ধগ্রন্থ। জন্ম ১৬ জুন, ১৯৭৭। তিনি লেখাপড়া করেছেন ঢাকা কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। ২০০০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে এম এ পাস করেন।

Leave a Reply

Top