You cannot copy content of this page

শিক্ষা হচ্ছে শেখার সুবিধার্থে জ্ঞান, দক্ষতা, মূল্যবোধ, বিশ্বাস এবং অভ্যাস অর্জনের প্রক্রিয়া

শিক্ষা ও শিক্ষার্থী

শিক্ষা (ইংরেজি: Education) হচ্ছে শেখার সুবিধার্থে জ্ঞান, দক্ষতা, মূল্যবোধ, বিশ্বাস এবং অভ্যাস অর্জনের প্রক্রিয়া। শিক্ষাগত পদ্ধতিগুলির মধ্যে গল্প বলা, আলোচনা, শেখানো, প্রশিক্ষণ এবং নির্দেশিত গবেষণা অন্তর্ভুক্ত। শিক্ষা প্রায়শই প্রশিক্ষকদের সহায়তায় পরিচালিত হয়, তবে শিক্ষার্থীরাও নিজেরাই শিক্ষিত হতে পারে। ব্যক্তির স্বকীয়তার সর্বতােমুখী বিকাশ হচ্ছে শিক্ষা। আরো পড়ুন

পৃথিবী সূর্য থেকে তৃতীয় গ্রহ এবং একমাত্র জ্যোতির্বিজ্ঞানীয় বস্তু যেখানে জীবন বিরাজমান

পৃথিবী এবং এর সাতটি মহাদেশ

পৃথিবী (ইংরেজি: Earth) সূর্য থেকে তৃতীয় গ্রহ এবং একমাত্র জ্যোতির্বিজ্ঞানীয় বস্তু যেখানে জ্ঞানত জীবনের অস্তিত্ব বিরাজমান। রেডিওমেট্রিক তারিখায়ন এবং প্রমাণের অন্যান্য উৎস অনুসারে, পৃথিবীটি ৪৫০ কোটি বছর আগে গঠিত হয়েছিল। সূর্য থেকে এর দূরত্ব প্রায় ১৫ কোটি কিলােমিটার। পৃথিবীর অন্য আরেকটি নাম "বিশ্ব" বা "নীলগ্রহ"। পৃথিবীর ন্যায় সূর্যের আরও

প্রকৃতি হচ্ছে, বিস্তৃত অর্থে বলতে গেলে, প্রাকৃতিক, ভৌত বা বস্তুগত জগত বা মহাবিশ্ব

প্রকৃতি (ইংরেজি: Nature), বিস্তৃত অর্থে বললে, প্রাকৃতিক, ভৌত বা বস্তুগত জগত বা মহাবিশ্ব। "প্রকৃতি" ভৌত জগতের ঘটনাগুলি এবং সাধারণভাবে জীবনকেও নির্দেশ করতে পারে। প্রকৃতির অধ্যয়ন বিজ্ঞানের একমাত্র অংশ নয়, তবে বিশাল অংশ। যদিও মানুষ প্রকৃতির অঙ্গ, মানব ক্রিয়াকলাপ প্রায়শই অন্যান্য প্রাকৃতিক ঘটনাসমূহ থেকে পৃথক বিষয়শ্রেণি হিসাবে দেখা হয়। প্রকৃতি শব্দটি লাতিন

বিশ্ব হচ্ছে গ্রহ পৃথিবী এবং এটিতে অবস্থানরত মানব সভ্যতাসহ সমস্ত জীবন

বিশ্ব মানচিত্র

বিশ্ব বা জগত বা সংসার (ইংরেজি: World) হলো গ্রহ পৃথিবী এবং এটিতে অবস্থানরত মানব সভ্যতাসহ সমস্ত জীবনদার্শনিক কথাপ্রসঙ্গে, “বিশ্ব” হচ্ছে পুরো ভৌত মহাবিশ্ব, বা একটি সত্ত্বাতাত্ত্বিক বিশ্ব (একজন ব্যক্তির “বিশ্ব”)। অর্থাৎ বিশ্ব হলো পৃথিবীতে বিরাজমান সকল কিছুর পদার্থবিদ্যাগত আলোচ্য বিষয়। আরো পড়ুন

ভূগোল শাস্ত্রে স্থানিক ও কালিক পর্যায়ে মানুষ ও পরিবেশের আন্তঃসম্পর্ক পঠন ও বিশ্লেষণ করা হয়

ভূগোল

সাধারণভাবে ভূগোল বা ভূগোল শাস্ত্র বা ভূগোলবিদ্যা বা ভূগোলকবিদ্যা (ইংরেজি: Geography) বলতে এমন শাস্ত্রকে বুঝায় যাতে স্থানিক ও কালিক পর্যায়ে মানুষ ও পরিবেশের মধ্যে ̈আন্তঃসম্পর্ক পঠন পাঠন ও বিশ্লেষণ করা হয়। ভূগোল হলো মহাবিশ্ব এবং এর বৈশিষ্ট্যগুলির একটি পদ্ধতিগত গবেষণা। ভূগোল শাস্ত্রকে চারটি প্রধান শ্রেণিতে ভাগ করা যায়: ক)গাণিতিক ভূগোল খ) প্রাকৃতিক ভূগোল গ) মানবিক ভূগোল ও আরো পড়ুন

প্রয়োগবাদ বিচার্য বিষয়ের নির্দিষ্ট উদ্দেশ্য সাধনের উপযোগিতার ভিত্তিতে সত্য নিরূপণ করে

প্রয়োগবাদ বা দরকারবাদ বা প্রাগমেটিজম (ইংরেজি: Pragmatism) সত্য নিরূপণ করে বিচার্য বিষয়ের কোনো নির্দিষ্ট উদ্দেশ্য সাধনের উপযোগিতার ভিত্তিতে। প্রয়োগবাদ আধুনিক দর্শনের একটি অন্তর্মুখী ভাববাদী তত্ত্ব। ইংরেজি প্রাগমেটিজম কথাটির উৎপত্তি ঘটেছে গ্রিক শব্দ ‘প্রাগমা’ থেকে। ‘প্রাগমা’র অর্থ হচ্ছে কার্য সম্পাদিত বা কার্যকৃত। প্রয়োগবাদ শব্দ এবং চিন্তাধারাকে ভবিষ্যদ্বাণী, সমস্যা সমাধান এবং কর্মের

একেশ্বরবাদের হচ্ছে সর্বশক্তিমান, সর্ব-বিষয়ে হস্তক্ষেপকারী স্রষ্টা একমাত্র ঈশ্বরের অস্তিত্বের প্রতি বিশ্বাস

এপোলোর মন্দিরে একেশ্বরবাদ ও বহুঈশ্বরবাদের অবস্থান

একেশ্বরবাদ (ইংরেজি: Monotheism) হচ্ছে এক দেবতা বা শুধু একজন ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাস। একেশ্বরবাদের সংক্ষিপ্ত সংজ্ঞা হলো একমাত্র ঈশ্বরের অস্তিত্বের প্রতি বিশ্বাস যেই ঈশ্বর এই বিশ্ব সৃষ্টি করেছিল, এবং সেই ঈশ্বর সর্বশক্তিমান ও পৃথিবীর সর্ব-বিষয়ে হস্তক্ষেপকারী। ইংরেজী শব্দটি হেনরি মোর (১৬১৪-১৬৮৭) প্রথম ব্যবহার করেছিলেন। একেশ্বরবাদ এবং বহুঈশ্বরবাদ প্রায়শই বরং সহজ শর্তে

বহুঈশ্বরবাদ হচ্ছে গোত্রপন্থীদের নিজস্ব ধর্ম ও আচারানুসারে পালিত দেবদেবীদের উপাসনা

এপোলোর মন্দিরে একেশ্বরবাদ ও বহুঈশ্বরবাদের অবস্থান

বহুঈশ্বরবাদ (ইংরেজি: Polytheism) হলো একাধিক দেবদেবীর উপাসনা বা বিশ্বাস, যা সাধারণত তাদের নিজস্ব ধর্ম এবং আচারের সাথে বহু দেবদেবীদের এক মণ্ডপে একত্রিত করে। এক কথায় বহু ঈশ্বরে বিশ্বাসকে বহু ঈশ্বরবাদ বলা হয়। আদি গোত্রভিত্তিক সমাজে অলৌকিক শক্তির আধার হিসেবে মানুষ প্রাকৃতিক জগতের বিভিন্ন সজীব বা আজীব বস্তু কিংবা বস্তুর প্রতীককে

রাজনৈতিক চিন্তার ইতিহাস দাস যুগ থেকে বিশ্বের ইতিহাসের সংগে পুঁজিবাদ পর্যন্ত বিরাজমান

এথেন্সের স্কুল

রাজনৈতিক চিন্তার ইতিহাস (ইংরেজি: History of political thought) প্রাচীন দাস যুগ থেকেই বিশ্বের রাজনৈতিক ইতিহাসের সংগে বিরাজমান এবং এভাবেই মানুষের রাজনৈতিক চিন্তার ইতিহাস সামন্তবাদী যুগ পেরিয়ে নবজাগরণের মাধ্যমে পুঁজিবাদ পর্যন্ত প্রসারিত। আলোকায়নের যুগে রাজনৈতিক সত্তা স্ব-শাসন ও রাজতন্ত্রের মৌলিক ব্যবস্থা থেকে শিল্পায়িত ও আধুনিক পুঁজিবাদী যুগের বিদ্যমান জটিল গণতান্ত্রিক ও

প্লটিনাস গ্রিসের একজন ভাববাদী দার্শনিক

প্লটিনাস বা প্লোতিনোস (গ্রিক: Πλωτῖνος, লাতিন: Plotinus; ২০৪/৫ - ২৭০) ছিলেন গ্রিসের একজন ভাববাদী দার্শনিক। কিন্তু প্লটিনাসের জন্ম হয়েছে মিসরে এবং তিনি জীবন অতিবাহিত করেছেন রোম নগরে। প্লটিনাসকে নব প্লেটোবাদের প্রতিষ্ঠাতা মনে করা হয়। প্লটিনাসের ব্যাখ্যায় দর্শন অধিকতর রহস্যময় রূপ ধারণ করে। প্লটিনাসের মতে সৃষ্টি পরিক্রমার উৎস

Top