Main Menu

মগজের রোগ সেরে গেলে বাঁচতে ইচ্ছে করে আরো যুগ যুগ

রাষ্ট্রের মগজে ছোঁয়াচে এক রোগ ভিড় জমিয়েছে,
আজকাল প্রায় সকলেই ভুগছে এ-রোগে,
রোগের পূর্বাভাস পাওয়া মাত্রই আশাপাশের সবাই ভীত ও আক্রান্ত,
কীভাবে সারবে রোগ, ভেবে ভেবে পেরোলাম কয়েক দশক।

বাতাসটাও কেমন যেনো হিংস্র হয়ে তেড়ে আসে মুমুর্ষের দিকে,
গোপন ক্ষোভের আগুন বেড়ে চলছে চরডাঙ্গার বস্তিতে,
ভণ্ডরা বিদেশ থেকে ত্রাণ এনে খবরও নিচ্ছে ‘কেমন চলছে দিনকাল’,
উন্নয়নের মহাসড়কে লাগছে টক্কর,
রুগ্ন স্বপ্নরা এখন গঞ্জিকার ঘ্রাণে কাটাচ্ছে দিন,
আর লগ্নী পুঁজির কাছে বেচা কেনা চলছে নিষ্ক্রিয় মগজের।

আজকাল মোটাতাজা নেতারা দেশ জুড়ে দাপট চালাচ্ছে;
তাদের চোপার জোরে তৈরি হচ্ছে রাষ্ট্রে উন্নয়নের ইট বালির ইমারত-
আর তার দেয়ালে লাগানো দর্পণে আমারা দেখি শাসনের চিত্র,
শহরের দাঁত উঁচু হওয়া রাস্তাগুলো বার বার ব্যঙ্গ করে চেয়ে থাকে,
লাল মদ এসে যখন নেশায় মাতিয়ে দেয় চারপাশ ঠিক তখনই-
কাদা মাটি মাখা যৌবনগুলো মাঝ পথে নেমে পরে প্রতিবাদি হয়ে
জানালায় উঁকি মারা মধ্যবিত্ত টোকায়, অসভ্য গালি মুক্তার মতো ঝরে-
পথ মাতানো যৌবনের গতরে।

আপনি তোমরা তোরা বলে ফেলতে পারিস অবলীলায় টোকায় বা অসভ্য;
যারা রাত জেগে টক শো দেখে আর দিন হলেই
দেখে খাবার সাজানো টেবিল ও রমণী—
তারা এর চেয়ে কিবা চিন্তা করতে পারে।

এই বস্তির রঙেরা একদিন মেতেছিল আগুন খেলায় এবং
হাজারবার ঠকেছিল জীবনের সাথে;
দেখেছিল সুবিধা নেই মহৎ কিছু করার,
একক চেষ্টায় এগুতে গেলে কেবলই ভুল হয়ে যায়,
তাইতো তারা দেশে জুড়ে পাগলা ঘণ্টি বাজায়,
পথে বন্ধুর থেঁতো হওয়া দেহকে শুইয়ে
আবার চলতে শুরু করে ক্ষুব্ধ জনতার মাঝে বারুদ হয়ে,
কারণ তার কখনও মগজ বেচে না আপনার নগ্ন টেবিলে।
এই রংধনুরা আছে বলেই মনে হয়
একদিন ট্যাংক চালিয়ে দিগ্বিদিক জয় করে
লাল ঝাণ্ডা উড়বে দেশখানায়,
তারা আছে বলেই বাঁচতে ইচ্ছে করে আরো এক যুগ।

৩০ আগস্ট ২০১৮

নেত্রকোণা

আরো পড়ুন

জন্ম ৮ জানুয়ারি ১৯৮৯। বাংলাদেশের ময়মনসিংহে আনন্দমোহন কলেজ থেকে বিএ সম্মান ও এমএ পাশ করেছেন।

তাঁর প্রকাশিত প্রথম কবিতাগ্রন্থ স্বপ্নের পাখিরা ওড়ে যৌথ খামারে । বিভিন্ন সাময়িকীতে তাঁর কবিতা প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়া শিক্ষা জীবনের বিভিন্ন সময় রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক কাজের সাথে যুক্ত ছিলেন। বর্তমানে রোদ্দুরে ডট কমের সম্পাদক।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *