আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > খবর > স্বৈরশাসন ও ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে কবিতা পড়লেন অবরুদ্ধ সময়ের কবিগণ

স্বৈরশাসন ও ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে কবিতা পড়লেন অবরুদ্ধ সময়ের কবিগণ

বাংলাদেশের ময়মনসিংহের মুসলিম ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে গত ৩১ আগস্ট শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ‘অবরুদ্ধ সময়ের কবিতা’ শীর্ষক প্রতিবাদী কবিতার অনুষ্ঠান। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত কবিরা এখানে কবিতা পাঠ করেন, বক্তব্য রাখেন। বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে স্বৈরশাসনফ্যাসিবাদের উত্থান, নিপীড়ন ইত্যাদির বিপক্ষে কথা ও কবিতায় প্রতিবাদ জানান উপস্থিত কবিগণ।

বিকাল চারটায় অনুষ্ঠিত এই আয়োজনের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন হান্নান কল্লোল। তিনি তার স্বাগত বক্তব্যে এই আয়োজনের উদ্দেশ্যর কথা উল্লেখ করেন। এমন আয়োজনের প্রয়োজনীয়তা এবং তা বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে করার পরিকল্পনা ও আশাবাদ ব্যক্ত করে অন্যান্যদের এগিয়ে আসার আহবান জানান হয়।

স্বাগত ভাষণের পরই বিজন সম্মানিত পাঠ করেন একটি খসড়া ঘোষণাপত্র। দেশীয় রাজনৈতিক পরিস্থিতি, বিশ্ববাস্তবতা এবং সেসবের পরিপ্রেক্ষিতে শিল্পের দায়, শিল্পীর দায়িত্ব ইত্যাদি বিষয় উঠে আসে ঘোষণাপত্রে। এখানে বাংলাদেশে সাম্প্রতিক সড়ক ও অন্যান্য আন্দোলনের প্রেক্ষিতে শহিদুল আলামসহ বিভিন্ন কারাবন্দিদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করা হয়।

এছাড়াও সাম্প্রতিক সময়ে ভারতে ভারাভারা রাওসহ গ্রেফতারকৃত সকল কবি লেখক বুদ্ধিজীবীদের মুক্তির দাবী জানানো হয়। উক্ত ঘোষণাপত্রে প্রশ্ন ছুড়ে দেয়া হয়, “আমরা কবিরা কি অবরুদ্ধ মানুষের পাশে দাঁড়াবো? ক্ষমতাবানদের পাশে স্তুতিগান গাইব, নাকি মানুষের জন্য বাসযোগ্য একটা পৃথিবী বানাবো?” তিনি উল্লেখ করেন অবরুদ্ধ সময়ের বিপক্ষে দাঁড়ানো মানবিক কর্তব্য, ভয়কে চুরমার করে যে সহস সে সাহসের উচ্চারণে সবাইকে একত্রিত হবার আহবান ও মানুষের প্রতিটি দুর্যোগের রাতে, প্রতিটি উজ্জ্বল উৎসবে কবিতা যেন গণমানুষের পাশে থাকে।

কবিদের শিক্ষক কবি সরকার আজিজের কবিতা দিয়ে শুরু হয় কবিতা পাঠের অনুষ্ঠান, শেষ কবি হিসেবে কবিতা পাঠ করেন কবি, গীতিকার ও প্রাবন্ধিক হাসান ফকরী। অনুষ্ঠানে আরও কবিতা পাঠ করেন ফয়জুল হাকিম লালা, চিনু কবির, রঘু অভিজিৎ রায়, আশিক আকবর, হান্নান কল্লোল, বিজন সম্মানিত, সনত ঘোষ, রইস মুকুল, হাসান মাসুদ, অনুপ সাদি, মাদল হাসান, শাহিন লতিফ, কামাল মুহম্মদ, এহসান হাবীব, সাইফ সিরাজ, শামশাম তাজিল, সানোয়ার রাসেল, শাহেরীন আরাফাত, অরুপ কিষাণ, রাশেদ শাহরিয়ার, সুদীপ্ত শাহিন, দোলন প্রভা, হাসান জামিল, নিখিল নওশাদ, সুরঞ্জিৎ বাড়ৈ, অভিজিৎ চক্রবর্ত্তী, সৌরভ মাহমুদ, মাহমুদুল শান্ত, মিলু হাসান, এস আই শফিক, ফয়সাল আহমেদ অনিক, রাকিব হোসেন খান, উদাত্ত সম্মানিত প্রমুখ।

কবিতা পাঠের ফাঁকে ভারতীয় কবি বুদ্ধিজীবীদের মুক্তি চেয়ে একটি বিবৃতি পাঠ ও গণসাক্ষর গ্রহণ করা হয়। অনুষ্ঠানে হল ভর্তি শ্রোতার বাইরেও ময়মনসিংহের বিভিন্ন প্রগতিশীল সংগঠনের প্রতিনিধিসহ শিল্প সাহিত্য অঙ্গনের মানুষেরা উপস্থিত ছিলেন। আনুষ্ঠানিক ধন্যবাদ প্রদানের মাধ্যমে আয়োজনের ইতি টানেন এহসান হাবীব। তিনি এই অনুষ্ঠানকে একটি প্রতিবাদী কবিতা পাঠ আন্দোলনের সূচনা হিসেবে দেখেন। ভবিষ্যতে বিভিন্ন জেলা ও বিভাগীয় শহরে এমন আয়োজন করার ঘোষণার মধ্য দিয়ে রাত নয়টায় ‘অবরুদ্ধ সময়ের কবিতা’ শীর্ষক প্রতিবাদী কবিতা পাঠের অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানা হয়।

আরো পড়ুন

Leave a Reply

Top