You are here
Home > Posts tagged "ঔষধি শাক"

পুদিনার সাতটি ঔষধি ব্যবহার

পুদিনা (বৈজ্ঞানিক নাম: Mentha spicata) একটি বর্ষজীবী গাছ। এদের খুব তীব্র গন্ধ থাকে। পাতাগুলো খুব ছোট ছোট। পাতার উভয় কিনারায় করাতের মত খাঁজ কাটা থাকে। পুষ্পদণ্ড খুবই নরম। বহির্বাস লোমযুক্ত এবং পুস্পস্তবকের মধ্যে থাকে। এ গাছের চাষ করা হয়। পুদিনার তেল তার সুগন্ধির জন্য ব্যবহৃত হয় এবং এটাকে পুদিনার তেল

থানকুনি বাংলার পরিচিত উদ্ভিদ

বৈজ্ঞানিক নাম: Centella asiatica.   সমনাম: Hydrocotyle asiatica L, Trisanthus cochinchinensis Lour. সাধারণ নাম: Centella বা Indian pennywort. বাংলা নাম: থানকুনি জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Edicots অবিন্যাসিত: Asterids   বর্গ: Apiales পরিবার: Mackinlayaceae   গণ: Centella      প্রজাতি: Centella asiatica. প্রকারভেদ: বড় পাতা ও ছোট পাতা ভেদে দুই প্রকারের থানকুনী এদেশে পাওয়া যায়; ছোট পাতার থানকুনী বা থ্যালকুড়ি কোচবিহার অঞ্চলে

জয়ন্তী একটি ঔষধি গাছ

বৈজ্ঞানিক নাম: Sesbania Sesban.   সাধারণ নাম: Aeschynomene aegyptiaca (Pers.) Steud, Aeschynomene sesban L, Emerus sesban (L.) Kuntze ইংরেজি নাম: common sesban, Egyption Rattle Pod. বাংলা নাম: জয়ন্তী জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Edicots অবিন্যাসিত: Rosids বর্গ: Fabales   পরিবার: Fabaceae    গণ: Sesbania    প্রজাতি: S. sesban. পরিচিতি: জয়ন্তী গাছটি বেশি উচু হয় না। ছোট আকারের গাছ হলেও এটি দ্রুতবর্ধনশীল।

সরিষা তেল জাতীয় শস্য

ইংরেজি নাম: Mustard plants. বাংলা নাম: সরিষা জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Edicots অবিন্যাসিত: Rosids বর্গ: Brassicales পরিবার: Brassicaceae   পরিচিতি: সারা দেশে কমবেশি চাষ করা হয়। সরষে বর্ষবীজী বীরুৎ প্রজাতির। হলুদ রঙের ফুল হয়। গাছ প্রায় এক মিটারের কাছাকাছি বড় হয়। পাতা বড় হয়। ফুল বড় হয়। অগ্রভাগ কিছুটা গুচ্ছবদ্ধ হয়। হলুদ কিংবা পীত বর্ণের। শুঁটি

আমরুল টক স্বাদযুক্ত শাক

বৈজ্ঞানিক নাম:  Oxalis corniculata. সাধারণ নাম: creeping woodsorrel, procumbent yellow sorrel, sleeping beauty. বাংলা নাম: আমরুল জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Edicots অবিন্যাসিত: Rosids বর্গ: Oxalidales পরিবার: Oxalidaceae গণ: Oxalis   প্রজাতি: Oxalis corniculata. পরিচয়: আমরুল দেখতে সরু ও লতানো শাক বিশেষ। এটা  দেখতে ছোট ও মাটিতেই প্রসারিত হয়। মাটিতে চাপা হয়ে লেগে থাকে। এর প্রচলিত নাম আমরুল শাক। এটিতে ৩

সরিষার ভেষজ উপকারিতা

সরিষা আমাদের পরিচিত একটি তেল উৎপাদনকারী ফসলি উদ্ভিদ। এদের রোগ প্রতিকারে অনেক রকমের ব্যবহার রয়েছে যা নিম্নে আলোচনা করা হলো। সরিষা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন সরিষা একটি তেল জাতীয় শস্য এই ভেষজটির রক্তবহ ও মজ্জাবহ স্রোতের উপর প্রভাব বেশি। ১. কুষ্ঠ: এই নামটি শুনলেই তো মুখে মাছি ঢুকে যায়, কিন্তু শব্দটির বিন্যাস

দ্রোণের ঔষধি গুণাগুণ

দ্রোণ ও শ্বেতদ্রোণ হচ্ছে এক ধরনের ছোট আকারের ঘাস জাতীয় আগাছা। এটিকে শাক হিসেবে কচি অবস্থায় ব্যবহার করা যায় এবং ফুল থেকে মৌমাছি মধু সংগ্রহ করে। এছাড়াও এদের ঔষধি কাজে ব্যবহার করা হয়। এখানে কিছু ব্যবহার উল্লেখ করা হলো। আরো পড়ুন শ্বেতদ্রোণ একটি ঔষধি গুণাগুণসম্পন্ন শাক ১. কামলা বা জন্ডিস রোগ: যাকে

আমরুল শাকের ভেষজ গুণ

বাংলাদেশ ও ভারতের অনেক প্রদেশে এই আমরুল শাক বা হলুদ আমরুল জন্মে। মূলত ফুলের রঙ হলুদ হয়, তবে গাছটির একটি বাদামী জাত বা ভ্যারাইটি আছে। এটি দেখতে সরু ও লতানো।  নিম্নে আমরুল শাকের লৌকিক ব্যবহার ও ভেষজ গুণাগুণ বর্ণনা করা হলো। আরো পড়ুন আমরুল একটি টক স্বাদযুক্ত শাক লক্ষ্যভেদের মতো প্রথমেই বিচার্য

শ্বেতদ্রোণ এশিয়ার ঔষধি শাক

বৈজ্ঞানিক নাম: Leucas aspera সমনাম: Leucas indica বাংলা নাম: শ্বেতদ্রোণ, শ্বেতাদ্রোণ, দলকলস, দণ্ডকলস, ছোট হালকুশা, দুলফি, ডোরপি, দ্রাণা, ঘলঘসিয়া। ইংরেজি নাম: আদিবাসি নাম: দেম-গোলা (চাকমা), আরুয়াক (গারো), ডুরপি (মুণ্ডা), ডংক্লাই বা দমকলস (হাজং) জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae - Plants উপরাজ্য: Tracheobionta - Vascular plants অধিবিভাগ: Spermatophyta - Seed plants বিভাগ: Magnoliophyta - Flowering plants শ্রেণী: Magnoliopsida - Dicotyledons উপশ্রেণি: Asteridae বর্গ: Lamiales পরিবার:

থানকুনির গুণাগুণ ও উপকারিতা

বড় থানকুনির বৈজ্ঞানিক নাম Centella asiatica (Linn.) urban. আর ছোট থানকুনির বৈজ্ঞানিক নাম Centella japonica. দুটিরই পরিবার Apiaceae. দেখতে অনেকটা থানকুনির মতো। বড় পাতা ও ছোট পাতা ভেদে দুই প্রকারের থানকুনী এদেশে পাওয়া যায়; ছোট পাতার থানকুনী বা থ্যালকুড়ি কোচবিহার অঞ্চলে জন্মে; সেটিকে ঐ অঞ্চলে ক্ষুদে মানী বলে। ক্ষুদে মানী

Top