Main Menu

ঔষধি লতা

 
 

জালযামানির ১০টি ঔষধি ব্যবহার

এর বৈজ্ঞানিক নাম: Cocculus hirsutus . পরিবার Menispermaceae. এই পরিবারের ২০টি প্রজাতি ভারতবর্ষে পাওয়া যায়। রোগ প্রতিকার: ১. এর প্রধান কাজ urinary system-এর উপর- প্রস্রাবের সময়, যেকোনো কারণেই হোক, যদি জ্বালা ও জ্বালাবোধ হয়, সেক্ষেত্রে ৩ থেকে ৪ গ্রাম কাঁচা পাতাকে থেতো করে আধ পোয়া আন্দাজ জলে সেটাকে চটকে ছেকে অল্প চিনি দিয়ে সকালে বা বিকালে খেলে জ্বালা-যন্ত্রণা থাকে না; এটা গণোরিয়াকেও উপশমিত করে। নারী-পুরুষ উভয়ের ক্ষেত্রেই ব্যবহার করা চলে। ২.প্রস্রাবের পূর্বে বা পরে কিছু ক্ষরতি হতে থাকলে (লালামেহ বা শুক্রমেহ রোগে spermatorrhoea) এর পাতা উপরিউক্ত নিয়মে সরবত করে ব্যবহারRead More


স্বর্ণলতা এক ঔষধি ও আগ্রাসি লতা

পরিচিতি: স্বর্ণলতা বা আলোকলতা একটি পরজীবী উদ্ভিদ। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কুল (বরই), বাবলা, ইত্যাদি কাঁটাবহুল গাছে জন্মাতে দেখা যায়। রসালো কাণ্ড পত্রবিহীন, সোনার মত রং, আকর্ষণীয় চেহারা। কোন পাতা নেই, লতাই এর দেহ কান্ড মূল সব। লতা হতেই বংশ বিস্তার করে। সোনালী রং এর চিকন লতার মত বলে এইরূপ নামকরণ। ঔষধি গুণ আছে। অনেক ক্ষেত্রে আশ্রয় দাতা গাছের মৃত্যু ঘটিয়ে থাকে।   ঔষধি গুণ: আলোকলতা বা স্বর্ণলতার অনেক গুণ। স্বর্ণলতা শুধু অপকারীই নয়– এর আছে ভেষজ গুণ। এই উদ্ভিদের রস ক্ষত উপশমে কার্যকরী। এছাড়া এটি বলকারক, কফ নাশক, পিত্ত নাশক ওRead More


দেতরা বা বান্দল দক্ষিণ এশিয়া ও উত্তর আফ্রিকার ঔষধি লতা

বৈজ্ঞানিক নাম: Luffa echinata Roxb., Fl. Ind. 3: 716 (1832). সমনাম: জানা নেই। ইংরেজি নাম: Bitter Sponge Gourd, bitter luffa, bristly luffa, rag gourd স্থানীয় নাম: দেতরা, বান্দল, বিন্দাল, গোষ্ঠলতা। জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae – Plants শ্রেণী: Eudicots উপশ্রেণি: Rosids বর্গ:  Cucurbitales পরিবার: Cucurbitaceae উপপরিবার: Cucurbitoideae গণ: Luffa   প্রজাতি: Luffa echinata বর্ণনা: দেতরা বা বান্দল বা বিন্দাল বা গোষ্ঠলতা হচ্ছে কিউকারবিটাসি (শসা লাউ) পরিবারের লাফা গণের বর্ষজীবী বিশাল আরোহী বীরুৎ। এদের কান্ড প্রসারিত, খাঁজযুক্ত, রোমশ বিহীন, মসৃণ। আকর্ষ রোমশ বা রোমশ বিহীন, দ্বিখন্ডিত। পত্র বৃক্কাকার-অর্ধগোলাকার, ৪-১০ x ৫-১২ সেমি, অস্পষ্ট ৫-কোণাকৃতিRead More


কলমি বিশ্বের উষ্ণমন্ডলীয় অঞ্চলের প্রচলিত শাক

বৈজ্ঞানিক নাম: Ipomoea aquatic Forssk. সমনাম: Ipomoea reptans Poir. (1814). ইংরেজি নাম : Swamp Cabbage, Water Spinach, Swamp Morning-glory. স্থানীয় নাম: কলমি শাক। জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms অবিন্যাসিত: Edicots অবিন্যাসিত: Asterids   বর্গ: Solanales    পরিবার: Convolvulaceae     গণ: Ipomoea প্রজাতি: Ipomoea aquatica.    বর্ণনা: কলমি কাদা মাটিতে লতানো বা পানিতে ভাসমান রোমশ বিহীন বীরৎ জাতীয় উদ্ভিদ। এর শাখা দেখে ছোট রসালো, এটা সাধারণত ভাসমান । কান্ড ফাঁপা, পর্বে মূলোদগম। পত্র ৫-৯ x ২-৫ সেমি, ডিম্বাকার, ডিম্বাকৃতি-দীর্ঘায়ত, ব-দ্বীপাকার, ভল্লাকার বা রৈখিক, মূলীয় অংশ তাম্বুলাকার, তীরাকার, বল্লমাকার। পুষ্প ১Read More


চালকুমড়া এশিয়া ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার জনপ্রিয় সবজি

ভূমিকা: চালকুমরা বা চালকুমড়া বা জালিকুমড়া বা জালি (বৈজ্ঞানিক নাম: Benincasa hispida) কিউকারবিটাসি পরিবারের বেনিনকাসা গণের একটি লতানো প্রজাতি। এদের কাঁচা ও পাকা জনপ্রিয় সবজিরূপে খাওয়া হয়। মোরব্বা তৈরির জন্যও এটি জনপ্রিয়, তবে মোরব্বায় একটু বেশি পরিপক্ক ফলের ব্যবহার হয়। বিবরণ: এরা দৃঢ়, আরোহী, শক্ত রোমশ যুক্ত বীরুৎ। কান্ড শাখান্বিত, বিস্তৃত। আকর্ষ সরু। পত্র বৃক্কাকৃতি গোলাকার, ১০-২৫ x ১০-২৫ সেমি, গভীর ভাবে তাম্বুলাকার, উপরের পৃষ্ঠ অসৃমণ, নীচের পৃষ্ঠ শক্ত রোমযুক্ত। ৫-৭ খন্ডিত, প্রান্ত তরঙ্গিত, দন্তুর, শিরা খররোমাবৃত, বৃন্ত শক্ত, ৫-২০ সেমি হলদে বাদামী, রোমশ বা অতিরোমশ। উদ্ভিদ সহবাসী। পুংপুষ্প একল, বৃন্তRead More


পটোল লতার ভেষজ গুণ

ভূমিকা: পটল বা পটোল লতা গাছটির বোটানিক্যাল নাম Trichosanthes dioica Roxb, এটি কিউকারবিটাসি পরিবারের একটি লতানো গাছ। পটোলকে বলা হয় তিনটি ত্রিদোষের প্রতিকারক। এটি দেহের তিন ধরণের সমস্যার সমাধানে আয়ুর্বেদে ব্যবহার করা হয়। বায়ু, পিত্ত ও কফ এই অসুখে ব্যবহৃত হয়[১]  আমরা যে পটোল খাই তা সাধারণত দু ধরনের— তেতো পটোল ও বাজারের যে পটোল পাওয়া যায় সেই পটোল বা মিষ্টি পটোল। পিত্ত থেকে যে জ্বর হয়, সাধারণ জ্বর পিলের অসুখ, উদরোগ, বাত, হাত পা ফুলে ওঠা ইত্যাদি অসুখে পটোল খেলে উপকার পাওয়া যায়। এই সব অসুখে পটোল খেলে পেটRead More


চালকুমড়া বা জালিকুমড়ার ১৫টি ঔষধি গুণ

চালকুমরা বা চালকুমড়া বা জালিকুমড়া বা জালি (বৈজ্ঞানিক নাম: Benincasa hispida) কিউকারবিটাসি পরিবারের বেনিনকাসা গণের একটি লতানো প্রজাতি।[১] চালকুমড়া বা জালিকুমড়া বাংলাদেশের জনপ্রিয় ফল জাতীয় সবজি। সংস্কৃত ভাষায় একে ‘কুষ্মাণ্ড’ বলা হয়। বাজারে আমরা দুরকমের কুমড়া দেখতে পাই— লাল বা হলুদ কুমড়া ((বৈজ্ঞানিক নাম Cucurbita moschata) আর সাদা চাল কুমড়া। দামে অপেক্ষাকৃত কম হলেও দু ধরনের কুমড়াই গুণের আধার।[২]  অন্যান্য তরকারি বা শাক-সবজির তুলনায় সস্তা বলে সকলেই অনায়াসে কুমড়া খেতে পারেন। চালকুমড়া সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন:  মূল নিবন্ধ: চালকুমরা এশিয়া ও দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার জনপ্রিয় সবজি যদিও বলা হয় ‘কুষ্মান্ডম কোমলম্Read More


পুঁই শাকের ঔষধি গুণ

পুঁইশাক (বৈজ্ঞানিক নাম: Basella alba) বাসেলাসি পরিবারের বাসেলা গণের বহু শাখা প্রশাখা যুক্ত, সরস লতা জাতীয় শাক। এটি দ্রুত বর্ধনশীল একটি গাছ। বাঙালির খাদ্য তালিকায় একটি জনপ্রিয় শাক পুঁই। প্রবাদে আছে-শাকের মধ্যে পুঁই, মাছের মধ্যে রুই। পুঁইশাক সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন পুঁই পৃথিবীর বাণিজ্যিক সুস্বাদু শাক এখানে পুঁইয়ের ঔষধি ব্যবহার উল্লেখ করা হলো: ১. পুইশাক দিয়ে বার্লি রান্না করে একটু, দই মিশিয়ে খেলে, বেশি মদ খাওয়াতে যে সব দোষ জন্মে, সে সব দোষ সারাতে এই পুঁই আহার এবং ওষুধ হিসেবে ব্যবহার করতে বলা হয়েছে। ২.  অর্শ রোগীর অতিরিক্ত রক্তস্রাব দেখাRead More


পান পাতার ভেষজ গুনাগুণ ও উপকারিতা

পান হচ্ছে পিপারাসি পরিবারের পিপার গণের একটি লতানো উদ্ভিদ। এরা গ্রীষ্মমন্ডলীয় অঞ্চলের একপ্রকার লতাজাতীয় গাছের পাতা। এদের বৈজ্ঞানিক নাম Piper betle. পানের নানান জাত আছে। সাধারণত দু ধরনের পান বাজারে পাওয়া যায় কপুরি ও মলবারি। কপুরি পান আকারে ছোট আর স্বাদে মৃদু। বাংলা পানের আকার বড় হয় ও স্বাদে তীক্ষ্ণ। বাংলা পানের রস তীক্ষ্ণ, মলনিঃসারক, পিত্ত উৎপাদন করে, গরম এবং কফ হরণ করে। পাকা সাদা পাতলা ও ছোট আকারের পানই সবচেয়ে ভাল গুণের দিক থেকেও শ্রেষ্ঠ। কাঁচা সবুজ পানের চেয়ে পাকা সাদা পানেরই স্বাদ ও গুণ বেশি।[২] পান স্বচ্ছ, রুচিRead More


নোয়ালতা বাংলাদেশের সংরক্ষণ নির্ভর ঔষধি লতা

নোয়ালতা হচ্ছে বাংলাদেশের মহাবিপন্ন প্রজাতির একটি ভেষজ লতা। এটি পেশি এবং হাড়ের ব্যথার চিকিত্সার জন্য থাইল্যান্ডে ঐতিহ্যগত ঔষধ হিসাবে ব্যবহার করা হয়। এই গাছের মৌখিক ব্যবহারের সবচেয়ে গুরুতর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হচ্ছে পেট এবং অন্ত্রের লক্ষণ।  বিবরণ: নোয়ালতা ফেবাসি পরিবারের ডেরিস গণের একটি বৃহৎ, কাষ্ঠল লতা। এদের কাণ্ড মসৃণ, বাকল রক্তবেগুনি, কচি অংশ লােমশ। পত্র ৭.৫-১৫.০ সেমি লম্বা, পত্রাক্ষ গভীর খাঁজযুক্ত, মসৃণ, পত্রক বিপরীত, ৫-১৯, উপবৃত্তাকার দীর্ঘায়িত, বিডিম্বাকার অথবা বিডিম্বাকার-দীর্ঘায়িত, প্রায় সূক্ষ্মাগ্র অথবা খুব সামান্য দীর্ঘাগ্র, প্রায়শই সামান্য খাতা, উপরের পৃষ্ঠ মসৃণ এবং চকচকে, নিচের পৃষ্ঠ প্রায় লােমশ, জালিকাকার শিরাযুক্ত, গােড়া গােলাকারRead More