Main Menu

সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব

 
 

সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব প্রসঙ্গে

সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব (ইংরেজি: Socialist Revolution) হচ্ছে পুঁজিবাদের উচ্ছেদের ভিত্তিতে কারখানা, যন্ত্র, জমি এবং প্রাকৃতিক অপরাপর সম্পদের উপর শ্রমিক শ্রেণির সমষ্টিগত মালিকানা প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সাম্যবাদী সমাজের দিকে অগ্রগতি। মার্কস এবং এঙ্গেলস মানুষের সমাজের বিকাশ বিশ্লেষণ করে সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবকে পুঁজিবাদের পরবর্তী স্তরে অপরিহার্য বলে ঘোষণা করেছিলেন। তারা পুঁজিবাদকে বিশ্লেষণ করে বলেছিলেন যে, পুঁজিবাদের মূল অসঙ্গতি হচ্ছে, একদিকে উৎপাদনের উপায় এবং উৎপাদিত সম্পদের উপর ব্যক্তিগত মালিকানা এবং অপরদিকে উৎপাদন প্রক্রিয়ার যৌথ চরিত্র। যৌথভাবে যে সম্পদ শ্রমিক শ্রেণি উৎপাদন করে মালিক শ্রেণি  ব্যক্তিগতভাবে তা ভোগ করে। পুঁজিবাদ শ্রমিককে পণ্য এবং শ্রমদাস হিসাবে ব্যবহার করে।Read More


এক দেশে সমাজতন্ত্র, স্তালিন ত্রতস্কি বিতর্ক

এক দেশে সমাজতন্ত্রের (Socialism in one country) তত্ত্বটি মূলত ভ্লাদিমির লেনিনের উদ্ভাবিত। ১৯২৪ সালে ইওসিফ স্তালিন এটিকে সামনে নিয়ে আসেন, ১৯২৫ সালে নিকোলাই বুখারিন এটিকে বিস্তৃত করেন এবং অবশেষে সোভিয়েত ইউনিয়ন এটিকে রাষ্ট্রীয় নীতি হিসেবে গ্রহণ করে। ইউরোপে ১৯১৭-১৯২১ সালের ভেতরে জার্মানি এবং হাংগেরিতে প্রলেতারিয় বিপ্লবের পরাজয় বলশেভিকদের আসন্ন বিশ্ব-বিপ্লবের আশাকে শেষ করে দেয় এবং স্তালিনকে “এক দেশে সমাজতন্ত্রের” ধারনাকে বিকশিত করতে বাধ্য করে। মার্কসবাদে, এই ঘটনার পূর্বে, বলা হতো যে সমাজতন্ত্র অবশ্যই গোটা পৃথিবীতে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে; এবং এখান থেকেই লিওঁ ত্রতস্কি’র সাথে “চিরস্থায়ি বিপ্লবের” বিতর্কে স্তালিনসহ অনেক বিশেষজ্ঞRead More