আর কতকাল, বলো কতকাল

আর কতকাল, বলো কতকাল

সইব এ মৃত্যু অপমান — এ আর সহে না।

শহর বন্দরে, চাষীর কুটিরে

নরখাদক দলের অভিযান — এ আর সহে না।

কমলাপুর শহীদ ডাকে — আয় রে, আয় আয় রে

ভোঙ্গাজোড়ার শহীদ সুরেন — তোদের পানে চায় রে, চায় রে

চন্দনপিঁড়ির সরোজিনী, অহল্যা মা

তাদের খুনের তর্পণ হ’ল না — এ আর সহে না।

সুন্দরবনের জঙ্গল কেটে ফলালো যে সোনা

তার মা-বোনের রক্তে হ’ল সোনার মাটি লোনা

রক্তের ধার বেঁধে মোদের, প্রতি গ্রাসে গ্রাসে

কবে, বলো কবে শুধব তা — প্রাণ আর মানে না।

শুনি নাকি স্বরাজ এখন, এই কি তার নমুনা।

মা-বোনেরি ইজ্জত ললাটে কোন্ স্বরাজের সেনা

চরকা নয় খদ্দর নয় আর — নয় অহিংসার বুলি

বুকে বেঁধে গরম সীসার গুলি — এ আর সহে না।

অহল্যা মা, তোমার সন্তান জন্ম নিল না

ঘরে ঘরে সেই সন্তানের প্রসব যন্ত্রণা।

শত কংস ধ্বংস করে যে শিশু জন্মিবে

মাঠে মাঠে তারই জল্পনা।।

আরো পড়ুন:  ফিরাইয়া দে, মোদের কায়ুর বন্ধুদেরে

Leave a Comment

error: Content is protected !!