কচ্ছপ বিক্রির দায়ে রাজধানীতে ৩ জনের ৯ মাসের কারাদণ্ড

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার শাখারী বাজারে বিপন্ন প্রজাতির কচ্ছপ বিক্রির অপরাধে ৩ জনকে ৯ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। দণ্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছেন দীপক নন্দী (৫৫), পনির চন্দ্র দাস (৪০) ও ময়না রানী দাস।

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ শুক্রবার সকালে শাঁখারিবাজারে অভিযান চালিয়ে র‌্যাব ১০-এর সদস্যরা ওই তিন বিক্রেতাকে সকাল ৯টার দিকে আটক করেন। পরে তাদের র‌্যাব-১০ এ বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের সহযোগিতায় পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত এই কারাদণ্ড প্রদান করেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারওয়ার আলম।

সারওয়ার আলম আরো জানান, বিপন্ন প্রজাতির কচ্ছপ ধরে শাঁখারীবাজারে বিক্রি করার সময় ওই তিনজনকে আটক করা হয়। এ সময় ৬ মণ বিভিন্ন বিপন্ন প্রজাতির কচ্ছপ উদ্ধার করা হয়। এসব কচ্ছপ জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত করা হবে বলে জানান হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা “জানায়, একটি চক্রের মাধ্যমে নরসিংদী এবং মুন্সীগঞ্জ এলাকা থেকে কচ্ছপ শিকার করে শাঁখারীবাজার এলাকায় বিক্রি করছিল তারা। এর মধ্যে পনির চন্দ্র দাসকে এর আগেও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিলো। সে চার মাস কারাবাস করে জামিনে বের হয়ে আসে। আবার একই অপরাধে জড়ায়।”

র‌্যাব-১০ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন ফারুকী কর্তৃক স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, আসামিরা দীর্ঘদিন ধরে বিলুপ্তপ্রায় ও বিক্রয় নিষিদ্ধ কচ্ছপ শিকার ও বিক্রি করে আসছিল।

আরো পড়ুন:  নাটোরের লালপুরে ঘড়িয়াল উদ্ধার এবং পরে অবমুক্ত

Leave a Comment

error: Content is protected !!