চীনা জাম আলু অরণ্যে জন্মানো বিরুৎ

বিরুৎ

চীনা জাম আলু

বৈজ্ঞানিক নাম: Dioscorea oppositifolia L., Sp. Pl.: 1033 (1753). সমনাম: Dioscorea oppositifolia L. var. thwaite.sii Prain & Burkill (1914), Dioscorea oppositifolia L. var. linnaei Prain & Burkill (1914), Dioscorea oppositifolia L. var. meeboldtii Prain & Burkill (1939). ইংরেজি নাম : চাইনিজ জাম। স্থানীয় নাম: চীনা জাম আলু।
জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্য: Plantae. বিভাগ: Angiosperms. অবিন্যাসিত: Monocots. বর্গ: Dioscoreales. পরিবার: Dioscoreaceae. গণ: Dioscorea প্রজাতির নাম: Dioscorea oppositifolia

ভূমিকা: চীনা জাম আলু (বৈজ্ঞানিক নাম: Dioscorea oppositifolia) এক প্রকারের ভেষজ উদ্ভিদ। দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে পাওয়া গেলেও বাংলাদেশে পাহাড়ি অঞ্চলে জন্মে।

চীনা জাম আলু-এর বর্ণনা:

প্যাচানো বীরুৎ, গ্রন্থিক সাধারণত একল, বেলনাকার, প্রায় ৭৪ সেমি লম্বা। কান্ড ডান পার্শ্বে পাকানো, রোমশ ও কন্টক বিহীন। পত্রকন্দ অনুপস্থিত। পত্র প্রতিমুখ, ফলক ১১-১৯ x ৩.৫-৯.৫ সেমি, উপবৃত্তাকার থেকে ডিম্বাকার, দীর্ঘাগ্র বা তীক্ষ্মাগ্র, রোমশ বিহীন বা কদাচিৎ রোমশ, প্রাথমিক শিরা ৩, মূলীয়, সুস্পষ্ট, উপরে সন্নিবিষ্ট, উভয় তলে জালকাকার শিরা বিন্যাস অস্পষ্ট, প্রান্ত পুরু, কঠিন, হলুদাভ, বৃন্ত ০.৫-৩.০ (-৬) সেমি, রোমশ বিহীন, উপপত্র অনুপস্থিত।

পুংপুষ্পবিন্যাস অক্ষীয়, প্যানিকুলেট, প্রতি অক্ষে প্যানিকল ১ বা ২, মঞ্জরী অক্ষ ২-১৮ সেমি, সাধারণত উর্ধ্বগ, রোমশ বা রোমশ বিহীন, শাখা ১-২ (-৩) প্রতি অক্ষে। পুংপুষ্প ১০-২৫ টি, শিথিল বা ঘন সন্নিবিষ্ট, মূলীয় অংশ চ্যাপটা, ২.০-২.২ x ১.৮-২.০ মিমি, মঞ্জরীপত্র ডিম্বাকার, দীর্ঘাগ্র, ১.০-১.২ x ১.২-১.৫ মিমি, রোমশ বিহীন, মঞ্জরীপত্রিকা মঞ্জরীপত্র সদৃশ, ০.৫-০.৮ x ০.৫-০.৮ মিমি, পুষ্পপুটাংশ মূলীয় অংশে যুক্ত, সূক্ষ্মাগ্র বা গোলাকার, ১.৬-১.৮ x ১.৩-১.৭ মিমি, প্রান্ত কখনও পাতলা, অন্তস্থ পুষ্পপুটাংশ উপবৃত্তাকার বা ডিম্বাকার, বহিস্থ পুষ্প পুটাংশ থেকে সুস্পষ্ট ক্ষুদ্রতর, পুংদন্ড ০.২-০.৩ মিমি, মূলীয় অংশ প্রশস্ত, পরাগধানী ০.৩০.৭ মিমি, যোজক সম্প্রসারিত নয়।

স্ত্রী পুষ্পবিন্যাস অক্ষীয়, এক, ইকেট, ৬-২৬ সেমি লম্বা, সাধারণত উর্ধ্বগ্র রোমশবিহীন বা রোমশ। স্ত্রীবৃন্দ ৩-২০ টি, শিথিল, মঞ্জরীপত্রিকা সূক্ষ্মথ, ০.৯-১.৩ ০.৬-০.৮ মিমি, রোমশ বিহীন, পুষ্পপুটাংশ পুংপুষ্পের পুষ্পপুটাংশের সমতুল্য, বহিস্থ পুষ্পপুটাংশ ০.৮-১.২ x ০.৬-০.৯ মিমি, অন্তস্থ পুষ্পপুটাংশ ০.৫-০.৮ x ০.৪০.৬ মিমি, গর্ভাশয় ২-৫ x ১.০-২.৮ মিমি, গর্ভদন্ড রোমশবিহীন বা রোমশ, মূলীয় অংশ মুক্ত, গর্ভমুণ্ড ২০খন্ডিত। ফল ক্যাপসুল, প্রতিটি স্পাইকে ২৫ টি, ১-২ X ১.৭-৩.৮ সেমি, লম্বার চেয়ে দ্বিগুণ প্রশস্ত, নিম্নাংশ কর্তিতা, রোমশবিহীন, পক্ষ গোলাকার, ৩-৫ x ২-৩ মিমি । বীজ ৬.৫-২০.০ মিমি ব্যাস বিশিষ্ট, পক্ষ ২-৯, মিমি প্রশস্ত।

আরো পড়ুন:  সফেদা খাওয়ার ছয়টি উপকারিতা

ক্রোমোসোম সংখ্যা: 2n = ৪০, ১৪০ (Kumar and Subramaniam, 1986)

আবাসস্থল ও বংশ বিস্তার: গৌণ অরণ্য এবং পাহাড়ী ঢাল।  ফুল ও ফল ধারণ ও আগস্ট-নভেম্বর। গ্রন্থিক দ্বারা বংশ বিস্তার হয়।

বিস্তৃতি: ভারত ও শ্রীলংকা। বাংলাদেশের সিলেট, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলায় জন্মে।

অন্যান্য তথ্য:

বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষের ১১ খণ্ডে (আগস্ট ২০১০) চীনা জাম আলু প্রজাতিটির সম্পর্কে বলা হয়েছে যে, উদ্ভিদের আবাসস্থান ধবংসের কারণ বাংলাদেশে এটি সংকটাপন্ন হিসেবে বিবেচিত। বাংলাদেশে চীনা জাম আলু সংরক্ষণের জন্য কোনো পদক্ষেপ গৃহীত হয়নি। প্রজাতিটি সম্পর্কে প্রস্তাব করা হয়েছে যে এই প্রজাতিটি অরণ্যাঞ্চলে সংরক্ষণ করা প্রয়োজন।

তথ্যসূত্র:

১. এম আতিকুর রহমান ও এস সি দাস (আগস্ট ২০১০)। “অ্যানজিওস্পার্মস ডাইকটিলিডনস” আহমেদ, জিয়া উদ্দিন; হাসান, মো আবুল; বেগম, জেড এন তাহমিদা; খন্দকার মনিরুজ্জামান। বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ। ১১ (১ সংস্করণ)। ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি। পৃষ্ঠা ৩১৫-৩১৬। আইএসবিএন 984-30000-0286-0

বি. দ্র: ব্যবহৃত ছবি উইকিমিডিয়া কমন্স থেকে নেওয়া হয়েছে। আলোকচিত্রীর নাম: Yercaud-elango

Leave a Comment

error: Content is protected !!