আমাজন লিলি নিমফাসি পরিবারের সর্ববৃহৎ বিরুত উদ্ভিদ

ভূমিকা: আমাজন লিলি (বৈজ্ঞানিক নাম: Victoria amazonica) হচ্ছে নিমফাসি পরিবারের ভিক্টোরিয়া গণের জলজ সপুষ্পক উদ্ভিদের একটি প্রজাতির নাম। এটি গায়ানার জাতীয় ফুল। এদের মূল আকর্ষণ পাতা। এদের পাতা এমন শক্ত আর বড় যে একজন সাত-আট বছর বয়সী শিশুকে এর পাতার উপর অনায়াসেই শুইয়ে রাখা যায়।

বৈজ্ঞানিক নাম: Victoria amazonica (Poeppig) Sowerby, Ann. & Mag., Nat. Hist. Ser. 11(6): 310 (1850). সমনাম: Euryale amazonica Poepp. (1832), Victoria regia Lindl. (1837).

ইংরেজি নাম: Amazon Waterlily, Giant Waterlily, Royal Waterlily.

বাংলা নাম: আমাজন লিলি

জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms বর্গ: Nymphaeales পরিবার: Nymphaeaceae গণ: Victoria. প্রজাতি: Victoria amazonica

বর্ণনা: আমাজন লিলি বহুবর্ষজীবী জলজ বীরুৎ। এদের রাইজোম মােটা। পত্রবৃন্ত ঘন কন্টকিত। পাতা আড়াআড়িভাবে ১২০-১৩০ সেমি, বর্তুলাকার, অখন্ড, উপরের পৃষ্ঠ মসৃণ, নিম্নপৃষ্ঠ বিক্ষিপ্তভাবে কন্টকময় এবং শৈলশিরা বরাবর ঘন কন্টকময়, পাতার কিনারা ৩-৪ সেমি সমকোণে ভাঁজ হয়ে যায়।

এদের পুষ্প আড়াআড়িভাবে ২০ সেমি পর্যন্ত, পুষ্পবৃন্ত কন্টকিত। বৃত্যংশ ফ্যাকাশে গােলাপী সবুজ থেকে বেগুনি বাদামী, কন্টকবর্জিত, অখন্ড, তীক্ষ্ণাগ্র। পাপড়ি কয়েক শ্রেণীতে সজ্জিত, সাদা, ক্রমশ ফ্যাকাশে রক্ত বর্ণ ধারণ করে, অখন্ড, তীক্ষাগ্র। পুংকেশর ৩ সেমি (প্রায়) লম্বা, অনেক শ্রেণীতে সজ্জিত। গর্ভাশয় ৮ সেমি (প্রায়) লম্বা। বীজ অনেক, ডিম্বাকার থেকে উপবৃত্তাকার-উপগােলকাকার, গাঢ় বাদামী । ফুল ও ফল ধারণ ঘটে গ্রীষ্মকালে।

ক্রোমোেসােম সংখ্যা: 2n = ২০ (Fedorov, 1969).

আবাসস্থল ও চাষাবাদ: অগভীর বদ্ধ পানির জলাধারে জন্মে। আমাজন লিলি কঠিন একটা কাজ।

বিস্তৃতি: আমাজন লিলির আদি নিবাস দক্ষিণ আমেরিকার আমাজন নদী। এছাড়াও পেরু, গায়ানা ও ইংল্যান্ডে জন্মে। বাংলাদেশের বলধা গার্ডেন ও জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যানে চাষ করা হয়।

অর্থনৈতিক ব্যবহার ও গুরুত্ব: ইহার পুষ্প জলজ শোভাবর্ধক হিসেবে কাজে লাগে, তাই জলাশয়ে চাষ করা হয়।

আরো পড়ুন:  দুপুরমনি বা বনঢুলি বাগানে চাষযোগ্য আলংকারিক বর্ষজীবী বীরুৎ

অন্যান্য তথ্য:বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষের ৯ম খণ্ডে (আগস্ট ২০১০) আমাজন লিলি প্রজাতিটির সম্পর্কে বলা হয়েছে যে, এদের আপাতত কোন হুমকি নেই, অর্থাৎ এটি আশংকা মুক্ত (lc). এটির বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে তথ্য সংগৃহীত হয়নি। বাংলাদেশে আমাজন লিলি সংরক্ষণের জন্য কোনো পদক্ষেপ গৃহীত হয়নি। প্রজাতিটি সম্পর্কে প্রস্তাব করা হয়েছে যে এই প্রজাতিটির পুকুরে চাষাবাদ বৃদ্ধি করা প্রয়োজন।

আলোকচিত্রের ইতিহাস: আমাজন লিলি ফুলের আলোকচিত্রটি তুলেছেন Steven Lek, সিসি-বাই-এসএ-৪.০।

তথ্যসূত্র:

১. এম এ হাসান (আগস্ট ২০১০)। “অ্যানজিওস্পার্মস ডাইকটিলিডনস”  আহমেদ, জিয়া উদ্দিন; হাসান, মো আবুল; বেগম, জেড এন তাহমিদা; খন্দকার মনিরুজ্জামান। বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ (১ সংস্করণ)। ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি। পৃষ্ঠা ৩২৮-৩২৯। আইএসবিএন 984-30000-0286-0

Leave a Comment

error: Content is protected !!