আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > প্রাণ > উদ্ভিদ > বীরুৎ > ভিক্টোরিয়া হচ্ছে নিমফাসি পরিবারের সপুষ্পক জলজ উদ্ভিদের গণ

ভিক্টোরিয়া হচ্ছে নিমফাসি পরিবারের সপুষ্পক জলজ উদ্ভিদের গণ

ভূমিকা: ভিক্টোরিয়া হচ্ছে নিমফাসি পরিবারের সপুষ্পক জলজ উদ্ভিদের একটি গণের নাম। এই গণের প্রজাতিগুলো বহুবর্ষজীবী জলজ বীরুৎ হয়। এই গণে কেবল দুটি প্রজাতি আছে যার বাংলা নাম আমাজন লিলি এবং আর্জেন্টাইন লিলি।

গণের বৈজ্ঞানিক নাম: Victoria Lindl., Monog.: 3 (1837).

ইংরেজি নাম: Victoria

জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ/রাজ্য: Plantae বিভাগ: Angiosperms বর্গ: Nymphaeales পরিবার: Nymphaeaceae গণ: Victoria.

বিবরন: ভিক্টোরিয়া গণের প্রজাতিগুলোর পাতা অতি বৃহদাকার, প্রায়শই ১.৫ মিটার বা ততােধিক ব্যাসবিশিষ্ট, ভাসমান এবং পত্রকিনারা পানির সমতল থেকে ৩১০ সেমি উচ্চতায় সমকোণে ভাঁজ হয়ে থাকে।

এদের পুষ্প আড়াআড়িভাবে ২০-৪০ সেমি, সুগন্ধিময়। বৃত্যংশ ৪টি। পাপড়ি অনেক, স্থূলা, দীর্ঘায়ত-ডিম্বাকার থেকে প্রায় রৈখিকাকার, ননীবৎ সাদা, ক্রমশ গােলাপী বা লাল বর্ণ ধারণ করে। পুংকেশর অসংখ্য, রৈখিকাকার-ভল্লাকার, বন্ধ্যা পুংকেশর ২০টি (প্রায়)। গর্ভাশয় অধােগৰ্ভ, ঘন কন্টকিত, গর্ভমুণ্ড একটি স্থূলকায় পাটাতন সদৃশ আধার গঠন করে, গর্ভমুণ্ডীয় রশ্মির নিম্নাংশ প্রশস্ত এবং সরস, উপরের দিকটা সরস, তুরপুন আকার এবং নিম্নমুখী বক্র উপাঙ্গময়।

ভিক্টোরিয়া গণের প্রজাতিগুলোর ফল কন্টকময় বেরী। বীজ সবুজাভ বা বাদামী কালাে, আকৃতিতে বাদাম বীজের সমান।

এই গণে পৃথিবীতে পাওয়া যায় দুটি প্রজাতি। প্রজাতি দুটির নাম হচ্ছে আমাজন লিলি (বৈজ্ঞানিক নাম: Victoria amazonica) এবং আর্জেন্টাইন লিলি (বৈজ্ঞানিক নাম: Victoria cruziana). বাংলাদেশে পাওয়া একমাত্র প্রজাতিটি হচ্ছে আমাজন লিলি।

আলোকচিত্রের ইতিহাস: আমাজন লিলি ফুলের আলোকচিত্রটি তুলেছেন Steven Lek, সিসি-বাই-এসএ-৪.০।

তথ্যসূত্র:

১. হাবীব, এম হাসান (আগস্ট ২০১০)। “অ্যানজিওস্পার্মস ডাইকটিলিডনস”  আহমেদ, জিয়া উদ্দিন; হাসান, মো আবুল; বেগম, জেড এন তাহমিদা; খন্দকার মনিরুজ্জামান। বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ (১ সংস্করণ)। ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি। পৃষ্ঠা ৩২৮। আইএসবিএন 984-30000-0286-0

আরো পড়ুন:  তোড়া চন্দ্রমল্লিকা টবে বা বাগানের শোভাবর্ধনকারী বিরুৎ
Anup Sadi
অনুপ সাদির প্রথম কবিতার বই “পৃথিবীর রাষ্ট্রনীতি আর তোমাদের বংশবাতি” প্রকাশিত হয় ২০০৪ সালে। তাঁর মোট প্রকাশিত গ্রন্থ ১১টি। সাম্প্রতিক সময়ে প্রকাশিত তাঁর “সমাজতন্ত্র” ও “মার্কসবাদ” গ্রন্থ দুটি পাঠকমহলে ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়েছে। ২০১০ সালে সম্পাদনা করেন “বাঙালির গণতান্ত্রিক চিন্তাধারা” নামের একটি প্রবন্ধগ্রন্থ। জন্ম ১৬ জুন, ১৯৭৭। তিনি লেখাপড়া করেছেন ঢাকা কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। ২০০০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে এম এ পাস করেন।

Leave a Reply

Top
You cannot copy content of this page