হলুদ কেয়াকাঁটা এশিয়ার নদী অঞ্চলের একটি গুল্ম জাতীয় উদ্ভিদ

গুল্মের প্রজাতি

হলুদ কেয়াকাঁটা

বৈজ্ঞানিক নাম: Pandanus foetidus বাংলা নাম: হলুদ কেয়াকাঁটা। সমনাম: Benstonea foetida (Roxb.) Callm. & Buerki, Fisquetia macrocarpa Gaudich., Pandanus aurantiacus, Pandanus cyperaceus, Pandanus glaucus, Pandanus korthalsii, Pandanus wallichianus Martelli; Fisquetia macrocarpa Gaudich. সাধারণ নাম: Screw pine, Pandan বা Screw Palm. অন্যান্য নাম: Tawthagyet (Burmese), Thabaw (Burmese), Thagyet (Burmese), Kewra-kanta (Hindi) ও Kattukaitha (Malayalam). আদিবাসি নাম: পেরারেছি (তঞ্চঙ্গা)।
জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্য: Plantae – Plants উপরাজ্য: Tracheobionta – Vascular plants অধিবিভাগ: Spermatophyta – Seed plants বিভাগ: Magnoliophyta – Flowering plants শ্রেণী: Liliopsida – Monocotyledons উপশ্রেণি: Arecidae. বর্গ: Pandanales. পরিবার: Pandanaceae – Screw-pine family. গণ: Pandanus L. f. – screwpine প্রজাতি: Pandanus foetidus Roxb.

ভূমিকা:

হলুদ কেয়া কাঁটা (বৈজ্ঞানিক নাম: Pandanus foetidus) হচ্ছে প্যান্ডানাসি পরিবারের প্যান্ডানাস গণের একটি সপুষ্পক গুল্ম। এটিকে বাংলাদেশে আলংকারিক উদ্ভিদ হিসেবে বিভিন্ন উদ্যান ও প্রতিষ্ঠানে লাগানো হয়। এর ‘একাধিক প্রজাতি আছে। হলুদ-সবুজ পাতার ভ্যারাইটি টবে লাগিয়ে’[১] বাড়ির বা বাগানের শোভাবর্ধন করা হয়।

হলুদ কেয়াকাঁটা গুল্মের বিবরণ:

হলুদ কেয়াকাঁটা গুল্ম জাতীয় উদ্ভিদ। ১০-১৫ ফুট লম্বা হয়। কাণ্ড থেকে বের হয় শাখা প্রশাখা। পাতা পাঁচ-সাত ফুট লম্বা। ২-৩ ইঞ্চি চওড়া। পাতার কিনারায় করাতের মতো কাঁটা। অনেকটা আনারসের পাতার মতো। কাণ্ড সাদা রঙের ও সুগন্ধযুক্ত। ফল ৭-৮ ইঞ্চি লম্বা। ফল কমলা, পীত বা ধুসর হয়। জৈষ্ঠ-আষাঢ় মাসে ফুল হয়। ফুল হলুদ রঙের। ছোট আনারসের মতো ফল হয় আশ্বিন-কার্তিক মাসে।

হলুদ কেয়াকাঁটা গুল্মের বিস্তৃতি:

বাংলাদেশের নদীর তীরবর্তী অঞ্চলে জন্মায়; অল্প পরিমাণে টিকে আছে। বাংলাদেশের সুন্দরবনের পর্যটনকেন্দ্রের একটি জনপ্রিয় এলাকা হলো হারবাড়িয়া। নৌকো থেকে হারবাড়িয়া ঘাটে নামার সময়ই দেখা যায় আনারসের মতো কাঁটাঅলা লম্বা লম্বা পাতার গাছই হচ্ছে হলুদ কেয়াকাঁটা বা কাইকি কাঁটা। সুন্দরবনের যেসব নদী বা খালের পাড়ে একটু স্থিতিশীল ভূমি পাওয়া যায় সেখানেই এই হলুদ কেয়াকাঁটা এবং সুগন্ধি কেয়াকাঁটা আছে, যদিও হরগজা বা গোলপাতা (Nypa fruticans) দখল করে রাখে প্রায় সবটা জায়গা।

বিবিধ: Pandanus গণে বাংলাদেশে আরেক প্রজাতি আছে যার নাম সুগন্ধি কেয়াকাঁটা যার বৈজ্ঞানিক নাম Pandanus odorifer.

তথ্যসূত্র:

১. দ্বিজেন শর্মা লেখক; বাংলা একাডেমী ; ফুলগুলি যেন কথা; মে ১৯৮৮; পৃষ্ঠা- ২০, আইএসবিএন ৯৮৪-০৭-৪৪১২-৭

আরো পড়ুন:  সুগন্ধি কেয়াকাঁটা এশিয়ার উপকূলীয় অঞ্চলের একটি গুল্মজাতীয় উদ্ভিদ

Leave a Comment

error: Content is protected !!