আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > প্রাণ > উদ্ভিদ > লতা > অর্কিড হচ্ছে অর্কিডিয়াসি পরিবারের শোভাবর্ধনকারী সপুষ্পক উদ্ভিদ

অর্কিড হচ্ছে অর্কিডিয়াসি পরিবারের শোভাবর্ধনকারী সপুষ্পক উদ্ভিদ

Orchids
শোভাবর্ধনকারী

অর্কিড

পরিবারের বৈজ্ঞানিক নাম Orchids. স্থানীয় নাম: অর্কিড।
জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্য: Plantae, বিভাগ: Angiosperms, বর্গ: Asparagales, পরিবার: Orchidaceae

ভূমিকা:

অর্কিড (বৈজ্ঞানিক নাম: Orchids) হচ্ছে Orchidaceae পরিবারের গৃহের শোভাবর্ধনকারী সুগন্ধি সপুষ্পক উদ্ভিদ। এদের ফুল রঙিন বর্নের ও সুগন্ধিযুক্ত আর বহুলবিস্তৃত হয়। বাড়ির শোভাবর্ধনের জন্য বেল্কোনি বা বাগানে লাগানো হয়।

অর্কিডের বিবরণ:

অর্কিডের অনেক গণ ও প্রজাতি আছে। ফুলের বিচারে এদের অপূর্ব রং ও গন্ধের ভিন্নতা আছে। ভিন্ন ধরনের দৈহিক গঠন ও ফুলের রঙের জন্য এর ফুল বেশ জনপ্রিয়। বিশেষ করে এর রং অন্য ফুলের থেকে একে আলাদা করেছে। একে বলা হয় মহামূল্যবান জীবন্ত রত্ন।

অর্কিডের ইতিহাস খুব পুরনো নয়। উদ্ভিদ জগতে এ পর্যন্ত ১৭০০০ টি প্রজাতির সন্ধান পাওয়া গিয়েছে বলে ধারণা করা হয়। ভারতে আছে ১৩০০ ধরনের অর্কিড আছে। তবে বাংলাদেশে এই বন্য ফুলের প্রকৃত সংখ্যা কত আজও নির্ধারণ করা হয়নি। পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই এই ফুল দেখা যায়। তবে কোনো কোনো দেশে এরা প্রচুর জন্মে আবার কোনো কোনো দেশে একেবারেই বিরল। অনেক অর্কিড আছে যা অন্য সকল উদ্ভিদের মতো মাটিতে জন্মে। তবে বেশিরভাগ প্রজাতি অন্য আশ্রয়দাতা গাছের ওপর জন্মে। বলা যায় এরা ভূগর্বাশ্রিত ও পরাশ্রয়ী উভয়ই।

অর্কিডের প্রকারভেদ

আকার, আকৃতি ও রঙ বিবেচনায় এদের নানা বৈচিত্র্য আছে। এ পর্যন্ত সবচেয়ে বড় জাতের অর্কিড পাওয়া গেছে মেক্সিকো, বৈজ্ঞানিক নাম সব্রেলিয়া ম্যকরানথা Sobraiea Macrantha. এরা ১৫ থেকে প্রায় ৩০ সেন্টিমিটার পরিধি । আর সবচেয়ে ক্ষুদ্র আকারের অর্কিড হলো অস্ট্রেলিয়ান বালবোফাইলাম মাইটিসিয়াম Bulbophyllum Minutissimum. এরা দেখতে অনেকটা আলপিনের মতো।

এরা ছায়া পছন্দ করে, তবে একটু-আধটু রোদের প্রয়োজন হয়ে থাকে। প্রচুর বাতাস চলাচল করে এবং জায়গায় ঝুলিয়ে রাখলেই হয়। অর্কিডাসি পরিবারে ৫৯০টি গণ এবং দশ হাজার থেকে পনের হাজার প্রজাতির সমাবেশ। তাছাড়া জাত রয়েছে এর দ্বিগুণ। অর্কিডের ফুল একক অথবা মঞ্জুরীতে উৎপন্ন হয়। ফুলের তিনটি বৃত্তাংশ। পাপড়ি তিনটি।

আরো পড়ুন:  গোলাপি অলকানন্দা বাংলাদেশে দুর্লভ ফুল

তথ্যসূত্র:

১ শেখ সাদী, উদ্ভিদকোষ, দিব্যপ্রকাশ, ঢাকা, প্রথম প্রকাশ ফেব্রুয়ারি ২০০৮, পৃষ্ঠা, ৪৪-৪৫।

বি. দ্র: নিবন্ধে ব্যবহৃত ছবি উইকিপিডিয়া কমন্স থেকে নেওয়া। আলোকচিত্রীর নাম: David J. Stang

Dolon Prova
জন্ম ৮ জানুয়ারি ১৯৮৯। বাংলাদেশের ময়মনসিংহে আনন্দমোহন কলেজ থেকে বিএ সম্মান ও এমএ পাশ করেছেন। তাঁর প্রকাশিত প্রথম কবিতাগ্রন্থ “স্বপ্নের পাখিরা ওড়ে যৌথ খামারে”। বিভিন্ন সাময়িকীতে তাঁর কবিতা প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়া শিক্ষা জীবনের বিভিন্ন সময় রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক কাজের সাথে যুক্ত ছিলেন। বর্তমানে রোদ্দুরে ডট কমের সম্পাদক।

Leave a Reply

Top
You cannot copy content of this page