অসম বা আসাম বিস্তারবাদী ভারত অধিকৃত এক নিপীড়িত, শোষিত পরাধীন অঞ্চল

আসামের ছবি

আসাম বা অসম (অসমীয়া: অসম অখ়ম্‌) বর্তমান বিস্তারবাদী ভারত অধিকৃত এক নিপীড়িত, শোষিত পরাধীন অঞ্চল। বাংলাদেশের উত্তরপূর্বে অবস্থিত এই রাজ্যটি হিমালয়ের দক্ষিণে অবস্থিত এবং এর অভ্যন্তরে রয়েছে ব্রহ্মপুত্র নদ, বরাক উপত্যকা এবং উত্তর কাছাড় পর্বতমালা। প্রশাসনিক বিভাজনের ফলে আসামে মোট ৩৩টি জেলা গঠন করা হয়েছে। আরো পড়ুন

বঙ্গ দেশের পশ্চিমদিকের ভূখণ্ডটি পশ্চিমবঙ্গ যা বর্তমানে দিল্লির অধীন একটি অঙ্গরাজ্য

পশ্চিমবঙ্গ

বঙ্গ দেশের পশ্চিমদিকের ভূখণ্ডের নাম পশ্চিমবঙ্গ (ইংরেজি: West Bengal)। এটি বর্তমানে দিল্লির অধীন পুঁজিবাদ অনুসারী নিপীড়িত ও শোষিত একটি অঙ্গরাজ্য। প্রশাসনিক কাজের সুবিধার জন্য এই রাজ্যটিকে তেইশটি জেলায় বিভক্ত করা হয়েছে। আরো পড়ুন

১৮৭১ সালে প্যারিস কমিউনের অভিজ্ঞতা, মার্কসের বিশ্লেষণ

১. কমিউনারদের প্রচেষ্টার বীরত্ব কোনখানে? একথা সুবিদিত যে, কমিউনের মাস কয়েক আগে ১৮৭০ সালের হেমন্তে মার্কস প্যারিস শ্রমিকদের হুঁশিয়ার করে বলেছিলেন যে, সরকার উচ্ছেদের চেষ্টা হবে হতাশার মূর্খতা। কিন্তু ১৮৭১ সালের মার্চে যখন শ্রমিকদের ওপর চূড়ান্ত লড়াই চাপিয়ে দেওয়া হল এবং মজুরেরা তা গ্রহণ করলো, যখন অভ্যুত্থান হয়ে দাঁড়ালো ঘটনা, তখন তার অশুভ দুর্লক্ষণাদি সত্ত্বেও বিপুলতম উল্লাসে মার্কস তাকে স্বাগত জানান। আরো পড়ুন

বেলজিয়াম পশ্চিম ইউরোপের একটি পুঁজিবাদী শোষণমূলক গণনিপীড়ক রাষ্ট্র

বেলজিয়াম রাজতন্ত্র (ইংরেজি: Kingdom of Belgium) পশ্চিম ইউরোপের একটি পুঁজিবাদী শোষণমূলক গণনিপীড়ক রাষ্ট্র। এর উত্তরে নেদারল্যান্ডস, পূর্বে জার্মানি, দক্ষিণ-পূর্বে লুক্সেমবার্গ, দক্ষিণ-পশ্চিমে ফ্রান্স এবং উত্তর-পশ্চিমে উত্তর সমুদ্র রয়েছে। আরো পড়ুন

কাশ্মীর হচ্ছে ভারতীয় উপমহাদেশের উত্তরতম ভৌগলিক অঞ্চল

কাশ্মীর

কাশ্মীর (ইংরেজি: Kashmir) হচ্ছে ভারতীয় উপমহাদেশের উত্তরতম ভৌগলিক অঞ্চল। উনিশ শতকের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত “কাশ্মীর” শব্দটি কেবল বৃহত্তর হিমালয় এবং পীর পাঞ্জাল পর্বতমালার মাঝের কাশ্মীর উপত্যকাকে বোঝাত। এখন, কাশ্মীর রাজনৈতিকভাবে একটি বৃহত্তর অঞ্চলকে বোঝায় যেখানে ভারত শাসিত জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ অঞ্চল, পাকিস্তান-শাসিত আজাদ কাশ্মীর এবং গিলগিত-বালতিস্তান অঞ্চল এবং চীনা-শাসিত আকসাই চিন আরো পড়ুন

ভারতীয় জনতা পার্টি ভারতের জনগণ, গণতন্ত্র, স্বাধীনতা ও মানবতার শত্রুদের সংগঠন

বিজেপির পতাকা

ভারতীয় জনতা পার্টি বা বিজেপি (হিন্দি: भारतीय जनता पार्टी) হচ্ছে ভারতের জনগণ, গণতন্ত্র, স্বাধীনতা ও মানবতার শত্রু এক সন্ত্রাসবাদী গণহত্যাকারী নরপিশাচদের সংগঠন। এটি জনসংঘ তথা ভারতীয় জনসংঘের পরিবর্তিত বর্তমান নাম। জনসংঘের প্রতিষ্ঠাতা শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী ১৯৪৯ খ্রিস্টাব্দের মাঝামাঝি সময়ে হিন্দু মহাসভা পরিত্যাগ করেন। আরো পড়ুন

ভারত ছাড় আন্দোলন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালে স্বাধীনতার দাবিতে সৃষ্ট বামপন্থীদের আন্দোলন

ভারত ছাড় আন্দোলন (ইংরেজি: Quit India Movement) হচ্ছে দ্বিতীয় বিশ্ব-মহাযুদ্ধের মধ্যবর্তীকালে ১৯৪২ খ্রিস্টাব্দের আগস্ট মাসে কংগ্রেস সোশ্যালিস্ট পার্টি ও ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস কর্তৃক ইংরেজ সরকারের আশু ভারত পরিত্যাগ ও দেশের পূর্ণ স্বাধীনতার দাবিতে সৃষ্ট আন্দোলন। বিষয়টি বােঝার সুবিধার্থে পূর্ববর্তী প্রাসঙ্গিক ঘটনাবলির সামান্য উল্লেখ প্রয়ােজন। আরো পড়ুন

আসামে এনআরসি হচ্ছে জনগণকে দাসত্ব বন্ধনে আবদ্ধ করার কংজেপি-বামফ্রন্টের ষড়যন্ত্র

আসামে এনআরসি

আসামে এনআরসি হচ্ছে ভারতীয় জনগণকে সস্তায় শ্রমশক্তি বিক্রি এবং চিরস্থায়ী দাসত্ব বন্ধনে আবদ্ধ করার কংগ্রেস, বিজেপি এবং বামফ্রন্টের ষড়যন্ত্র। আসামে ১৯ লাখ ৬ হাজার ৬৫৭ জন নাগরিককে অনাগরিক ঘোষণা করা হয়েছে। এই অনাগরিকদের ভেতরে আছে বিভিন্ন আদিবাসী ও ধর্মীয় মানুষ। আসামে প্রচার আছে যে বাংলাদেশ থেকে অনেক মানুষ আসামে গেছে। আরো পড়ুন

আধুনিক আসামের ইতিহাসের আরম্ভ আসামে ব্রিটিশ উপনিবেশবাদের বিস্তার থেকে

আসামের ইতিহাস বাংলার ইতিহাস

আধুনিক আসামের ইতিহাস শুরু হয়েছে আসামে ব্রিটিশ উপনিবেশবাদের বিস্তারের পর থেকে। আসামে উপনিবেশিক যুগের সূচনা হয়েছিল ১৮২৬ সালে ইয়াণ্ডাবুর চুক্তির পরে ব্রিটিশ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে এবং ১৯৪৭ সালের পরে ব্রিটিশদের পরিবর্তে দিল্লির নয়া-উপনিবেশিক যুগে প্রবেশের মধ্য দিয়ে। ১৯৪৭ সালে পূর্বদেশের একটি অংশের, মূলত কলকাতার পুঁজিপতিরা যোগ দিয়েছে দিল্লি সাম্রাজ্যের সাথে। আরো পড়ুন

এশিয়া পূর্ব এবং উত্তর গোলার্ধে অবস্থিত পৃথিবীর একটি মহাদেশ

এশিয়া

এশিয়া (ইংরেজি: Asia) পৃথিবীর বৃহত্তম এবং সর্বাধিক জনবহুল মহাদেশ, প্রধানত পূর্ব এবং উত্তর গোলার্ধে অবস্থিত। পৃথিবীর স্থলভাগের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ ব্যাপ্ত এশিয়া মহাদেশের জনসংখ্যা ২০১৭ সালে ছিলো প্রায় ৪৪৬ কোটি ২৭লক্ষ, অর্থাৎ পৃথিবীর মােট জনসংখ্যার ষাট শতাংশ। ১৯৮০ সালে এশিয়ার মোট জনসংখ্যা ছিলো ২৬৩ কোটি। আরো পড়ুন

error: Content is protected !!