এসো হে

আমাকে চিনবে না।

অনেকটা রাস্তা উজিয়ে

আজ এই পড়ন্ত বেলায়

আমি আসছি।

মাথাভর্তি মাঠ ভাঙা ধুলো,

দুটো পা-য়

কাটায় কাটাছেঁড়ার দাগ।

ৰলি, চেনা লোকেরা সব

গেল কোথায় গা?

 

গোধূলির শূন্য দাওয়ায়

এমন কেউ নেই

যে তার মুখ ঘোমটায় ঢেকে

পিঁড়ি পেতে দেয়,

কনুই ছুঁয়ে এগিয়ে দেয়

এক ঘটি তৃষ্ণার জল।

 

উঠোনে খেলে বেড়ায়

একা একা

হাতের লাঠির ঠক ঠক

আর গাছের পাতার

টুপটাপ শব্দ।

কই, এসো হে—

 

ঘরে-ফেরা পাখির কলরবে,

দূরাগত শাখের আওয়াজে

দিনাবসানের আজানে

 

আমার সেই ডাক

আর কাউকে না পেয়ে

মাথা নিচু ক’রে

আবার আমার কাছেই ফিরে আসে ৷

আরো পড়ুন:  ঘরের বাইরে, বাইরের ঘরে

Leave a Comment

error: Content is protected !!