ভুলে যাব না

চায়ের দোকান।
               তুমুল তর্কে
                চিড় খাচ্ছে টেবিল।
হঠাত আওয়াজ।
               মাটিতে পা;
               হাত আকাশে। মিছিল।

দৃষ্টি বদল।

    হাতে বেঁধেছ

        হাত। করেছ ঋণী!

ভুলে যাই নি।

    ভুলে যাব না

         জীবনে কোনোদিনই।।

 

পাড় ভাঙছে।

     ছইয়ের ভেতর

          আলো দুলছে। হাওয়া।  

সকাল বেলা

     ডাঙায় পৌঁছে

          বন্দরে চা খাওয়া।

গলা মিলিয়ে

     গেয়েছি গান_

          ‘মা আমার বন্দিনী’।

ভুলে যাই নি।

    ভুলে যাব না

         জীবনে কোনোদিনই।।

 

এপারে ঘর।

     ওপারে ঘর।

          মধ্যে কঠিন দেয়াল।

ভোজের পাত

     পেতে রেখেছে

          ধুরন্ধর শেয়াল।

শুকনো মুখে

     বলেন মা, ‘কী

          পেলাম বল দিনি?

ভুলে যাই নি।

    ভুলে যাব না

         জীবনে কোনোদিনই।।  

আরো পড়ুন:  নীরবতা

Leave a Comment

error: Content is protected !!