একটি মোমের আলো ও হেমাঙ্গের গান

আজ শহর জুড়ে লোডশেডিং কিন্তু কোথাও কোনো কোলাহল নেই
প্রতি জানালার কাচ ঠেলে প্রজ্জ্বলিত মোমের আলো হাসতে থাকে,
আমাদের ঘরেও ফুলকি হয়ে ছুটোছুটি করে সেই হাসির ছটা,
একটি মোমবাতি ও হেমাঙ্গের গানে বাঁজতে থাকে আমাদের ক্যানভাসে।

শহুরে ব্যস্ততার মাঝেও আমাদের মন আজ পঞ্চনদীর মতো উজ্জ্বল
তাই রাতের আঁধার কাঁধে করে মজদুরের গান নিয়ে আছে দেয়ালে,
আপন পাঁজরে কোমল গালের স্পর্শ অনুভব করি দুজনে,
সুরের মুর্ছনা আর বুকের স্পন্দনে ছিলাম অনেকক্ষণ,
মান্দারিন হাঁসের মতো সহস্র রং খেলা করে নিজের অস্তিত্বে,
গণ্ডকি নদীর হিমে সাথে নিজেদের উষ্ণতার মিলন হয়,
তখন যেনো আমরা গভীর থেকে গভীরে বিচরণ করছি,
নিশিতের নিরবতাকে আরো ভারী করে তোলে কয়লা পোড়া ঘ্রাণ।

এমনি করে যেনো নগরে মাঝে মাঝে নামে লোডশেডিং
প্রেমিক-প্রেমিকারা খুঁজে পাক পরিপক্ক স্পন্দন,
আর গুপ্ত শক্তিরা যেনো তেজী হয়ে লেপ্টে যায়
অন্ধকার দেয়ালে; ঠিক যেমনটি লেগে থাকে হেমাঙ্গের গানে ।

১.০৩.২০১৭
বুদ্ধনগর, নেপাল

আরো পড়ুন:  আশা

Leave a Comment

error: Content is protected !!