যুগল প্রতিজ্ঞা

তীরের শীতল হাওয়ারা ভিড় জমিয়েছিলো সেরাতে—
ছোট ঘরটির ভাঁজে ভাঁজে আনন্দের ঢেউ লুটিয়ে পড়ছিলো,
আমাদের আলোর প্লাবনে ভাসিয়েছিলো একটি মোমবাতি,
ওটি ছিলো অন্ধকার গহ্বর পেরিয়ে আসা এক লড়াকু মশাল।

জগতের নিষ্ঠুর নিয়মে যে প্রাণ পালকের মতো ঝরে পড়ে—
আমরা ছিলাম তারই ভেতর থেকে উঠে আসা একজোড়া প্রাণ;
তখন আমাদের চার চোখ ছিলো রাঙা স্বপ্নে আঁকা,
নিরব পলক আন্দোলিত হয়েছিলো অনুভূতির কোলাহলে,
সভ্যতার মিথ্যা মরীচিকাকে পিষে যে ঢেউ আসে
শৃঙ্খল ছেড়ে স্রোতের বিপরীতে চলার জন্য,
আমরা ভেসে চলেছিলাম মুক্তির অসীম প্রত্যয়ে;—
যেখান থেকে বয়ে আসছিলো আরো অনেক শ্রমিকের গান।

সেরাত ছিলো মতামতের, ঐক্যের,
সেরাত ছিলো শক্তি নেবার—শক্তি দেবার,
শ্রমিকের স্বপ্নের সাথে নিজের স্বপ্নকে মেলাবার।

২৩ জানুয়ারি, ২০১৪
আকুয়া,জুবিলী কোয়ার্টার,ময়মনসিংহ

চিত্রের ইতিহাস: কবিতায় ব্যবহৃত অংকিত চিত্রটি ভিনসেন্ট ভ্যান গগ (৩০ মার্চ ১৮৫৩ – ২৯ জুলাই ১৮৯০) আঁকা চিত্র দুপুরের বিশ্রাম (Noon – Rest from Work (after Millet))। শিল্পী চিত্রটি আঁকেন  ১৮৯০ সালে।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: কবিতাটি আমার [দোলন প্রভা] রচিত মনন পাবলিকেশন ঢাকা থেকে ২০১৭ সালে প্রকাশিত স্বপ্নের পাখিরা ওড়ে যৌথ খামারে  কবিতাগ্রন্থের ৩৪ পৃষ্ঠা থেকে নেয়া হয়েছে এবং রোদ্দুরেতে প্রকাশ করা হলো।

আরো পড়ুন:  পরখ করে দেখো আমিও ইতিহাসের অংশ

Leave a Comment

error: Content is protected !!