আপনি যা পড়ছেন
মূলপাতা > সাহিত্য > কবিতা > রাতের শেষ প্রহরের যোদ্ধা

রাতের শেষ প্রহরের যোদ্ধা

(কমরেড এম. এ. মতিনকে)

ছোট্ট মানুষটি বহুদিন আগে থেকে অতি ধীরে ধীরে

নীলাকাশ ছাড়িয়ে উঠে গেছেন মহাশূন্যে

ঘুরে ঘুরে দেখছেন কালোমেঘ ঝড় আর কৃষকের সুখভোগ,

লাখো লাখো শিশুদের ভিড়ে

বলবান দশ হাতের আঙুলে আঙুল গুণে বুঝে নেন

মমতা মানুষ আর ফসলের ঘ্রাণ।

পোড়ামাটি নীতির কখনো মৃত্যু হয় না জেনে

রোগাটে শরীর নিয়ে যুদ্ধের ময়দানে

নির্ভীক এক অদম্য সমরনায়ক,

ভুল পথে চলে যারা তাদের দেখিয়ে দেন 

ফুলগুলো ফোটে আর ভুলগুলো ঝরে যায়। 

কাঁটাতার পেরিয়ে কৃষকের কাস্তে হাতে

জড়িয়ে যান এক ফুল বালিকার সাথে,

আমরা তখন কজন ছোট ছোট ছেলেমেয়ে

মিছিলের ঘ্রাণ শুঁকে পেয়ে যাই পরশপাথর।

রাতের গভীরতা বাড়ে, স্বপ্ন ওড়ে সামুদ্রিক টর্নেডোয়,

অমর যোদ্ধা যেন, মানবিক বস্তির শেষ কিছু চারাগাছ বাঁচাতে

অস্ত্র হাতে নেমে পড়েন মুক্তির ময়দানে,

তারপর ছেয়ে যায় দশদিক শত্রুর কালো থাবায়;_

কে যায়, কে যায় বলে ধরলো অন্ধকারে কজন চোরা হামলাকারী

এরপর টিকে থাকা বুলেটের মাঝখানে শত নির্যাতনে।

ভোর দেখিনি আজো, লাল দিন দূরে বহু দূরে,

সূর্যের তেজোদীপ্ত তামাটে মানুষটি আজ আমাদের অনেক উপরে।

২ অক্টোবর, ২০১৩, ময়মনসিংহ। 

আরো পড়ুন:  কমরেড এম. এ. মতিন ও জমিলা খাতুন স্মরণে আলোচনা সভা ময়মনসিংহে অনুষ্ঠিত
Anup Sadi
অনুপ সাদির প্রথম কবিতার বই “পৃথিবীর রাষ্ট্রনীতি আর তোমাদের বংশবাতি” প্রকাশিত হয় ২০০৪ সালে। তাঁর মোট প্রকাশিত গ্রন্থ ১০টি। সাম্প্রতিক সময়ে প্রকাশিত তাঁর “সমাজতন্ত্র” ও “মার্কসবাদ” গ্রন্থ দুটি পাঠকমহলে ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়েছে। ২০১০ সালে সম্পাদনা করেন “বাঙালির গণতান্ত্রিক চিন্তাধারা” নামের একটি প্রবন্ধগ্রন্থ। জন্ম ১৬ জুন, ১৯৭৭। তিনি লেখাপড়া করেছেন ঢাকা কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। ২০০০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে এম এ পাস করেন।

Leave a Reply

Top
You cannot copy content of this page