নাগমতির সুর

অন্ধকার গ্রহে ধীরে ধীরে আশার বিন্দু হয়ে জেগে ওঠে
তৃণ জড়ানো আধো বালুময় নতুন দ্বীপ নাগমতি নদীর বুকে,
সোনালী আলোর ছটায় চারদিকে জ্বল জ্বল করে হলুদ নাক ফুল;
রূপালী নদীর উপর বাতাস আঁধার সরিয়ে সুরের আলো আনে;
সেই আলোতে যুগের মরীচিকা মুছে আলপনা হয়ে পাখির ছায়া ভাসে।

আলিঙ্গনে খণ্ড খণ্ড ছায়া জড়িয়ে ধরে রূপালী নদীর জল,
নাগমতির সুরের পাখিরা মৃত নগরীর ঝড় ঝঞ্ঝায়
করুণ কাহিনী নিয়ে বেঁচে থাকে,
আকাশের গর্জন এসে থমকে যায় তাদের আলাভোলা দেহে,
তাদের হাসির মিছিল মিলে যায় আকাশের ভাঁজে ভাঁজে,
ডানার উল্লাস বিদ্যুৎ বেগ হয়ে উড়ে তাদের জীবনের চৌকাঠে,
কণ্ঠের ধ্বনি সুর-আলোর কলরবেএইবেলা পাহাড় কাঁপায়।

২১ এপ্রিল, ২০১১
নওমহল, ময়মনসিংহ

চিত্রের ইতিহাস: কবিতায় ব্যবহৃত অংকিত চিত্রটি ভিনসেন্ট ভ্যান গগ (৩০ মার্চ ১৮৫৩ – ২৯ জুলাই ১৮৯০) আঁকা চিত্র ‘The Bridge of Langlois at Arles with laundresses’। শিল্পী চিত্রটি আঁকেন মার্চ ১৮৮৮ সালে।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: কবিতাটি আমার [দোলন প্রভা] রচিত মনন পাবলিকেশন ঢাকা থেকে ২০১৭ সালে প্রকাশিত স্বপ্নের পাখিরা ওড়ে যৌথ খামারে  কবিতাগ্রন্থের ৯ পৃষ্ঠা থেকে নেয়া হয়েছে এবং রোদ্দুরেতে প্রকাশ করা হলো।

আরো পড়ুন:  ডাঙ্গিপাড়া

Leave a Comment

error: Content is protected !!