জাতেরি লম্বামালা দক্ষিণ এশিয়ায় জন্মানো বিরুৎ

ভূমিকা: জাতেরি লম্বামালা (বৈজ্ঞানিক নাম: Gomphostemma strobilinum) হচ্ছে  এক প্রকারের বর্ষজীবী বীরুৎ। এই প্রজাতিটি দক্ষিণ এশিয়ার দেশে জন্মায়। জাতেরি লম্বামালা-এর বর্ণনা : জাতেরি লম্বামালা শক্ত বর্ষজীবী বীরুৎ। এটি উচ্চতায় ৪০-১৩০ সেমি পর্যন্ত হয়। এদের কাণ্ড গভীর খাঁজযুক্ত, ৪ কোণাকার-স্থূলাগ্র, খসখসে। পাতা প্রায় বৃন্তহীন, পত্রবৃন্ত ০.২-০.৫ সেমি লম্বা, ফলক ১৫-২৫ × ১০-১৬ সেমি, উপবৃত্তাকার-ডিম্বাকার, সূক্ষ্মাগ্র, দপ্তর, … Read more

জাতেরি বড়মালা ভেষজ বিরুৎ

ভূমিকা: জাতেরি বড়মালা (বৈজ্ঞানিক নাম: Gomphostemma parviflorum) হচ্ছে  এক প্রকারের ভেষজ বিরুৎ। এই প্রজাতিটি পূর্ব এশিয়ার দেশে জন্মায়। জাতেরি বড়মালা-এর বর্ণনা: জাতেরি বড়মালা বৃহৎ ও দৃঢ় বীরুৎ। এই প্রজাতিটি ২৫-৩০ মিটার পর্যন্ত উঁচু। এদের কাণ্ড কাষ্ঠল, ঘন অতিরোমশ। পত্র সবৃন্তক, পত্রবৃন্ত ২-৪ সেমি লম্বা, অতিরোমশ, ফলক ১৫-২৫ × ৮-১৮ সেমি, উপবৃত্তাকার- ডিম্বাকার, দপ্তর, তীক্ষ্ণাগ্র থেকে … Read more

দেশি কচুয়া পূর্ব এশিয়ায় জন্মানো চিরহরিৎ বৃক্ষ

ভূমিকা: দেশি কচুয়া (বৈজ্ঞানিক নাম: Glochidion acuminatum) হচ্ছে  এক প্রকারের ভেষজ গুল্ম। এই প্রজাতিটি পূর্ব এশিয়ার দেশে জন্মায়। দেশি কচুয়া-এর বিবরণ: দেশি কচুয়া একটি চিরহরিৎ গুল্ম। এই প্রজাতিটি প্রায় ৬ মিটার পর্যন্ত লম্বা হতে পারে। গাছের গুঁড়ির ব্যাস ১৫ সেন্টিমিটার পর্যন্ত হতে পারে। এই গণে অন্যান্য প্রজাতির মধ্যে এই গাছের পাতা আকারে ছোট। খাদ্য এবং … Read more

লাল বিছুটি ভেষজ গুণসম্পন্ন বর্ষজীবী বিরুৎ

ভূমিকা: লাল বিছুটি (বৈজ্ঞানিক নাম: Laportea interrupta) এক প্রকারের ভেষজ বীরুৎ। সারা দুনিয়াতে জন্মায়। তবে ছায়াযুক্ত স্থানে এই প্রজাতি বেশী দেখা যায়। বর্তমানে বন জঙ্গল কমে যাওয়ার কারণে প্রজাতিটি হুমকির সম্মুখীন তবে এখনো পাওয়া যায়। লাল বিছুটি-এর বর্ণনা : লাল বিছুটি মিশ্রবাসী, বর্ষজীবী বীরুৎ। এটি ১.৫ মিটার পর্যন্ত উঁচু হয়।  গোড়া কাষ্ঠল, শাখাপ্রশাখা খাঁজযুক্ত, শীর্ষের … Read more

রুটি পাতা নিটাম চিরহরিৎগুল্ম

ভূমিকা: রুটি পাতা নিটাম (Gnetum latifolium) হচ্ছে নিতেসিয়া (Gnetaceae) পরিবারের নিটম গণের সপুষ্পক উদ্ভিদ। এটা পাহাড়ি অঞ্চলে জন্মে। রুটি পাতা নিটাম-এর বর্ণনা: একটি চিরহরিৎ ও মসৃণ রোমশূন্য গুল্ম। তবে বৃহৎ আকারের গুল্ম। এদের কান্ড আড়াআড়ি ৮ সেমি পর্যন্ত লম্বা ও শাখা স্ফীত পর্বযুক্ত। পাতা সবৃন্তক, বৃন্ত ১ সেমি পর্যন্ত লম্বা, ফলকের দৈর্ঘ্য ২৫ সেমি ও … Read more

যষ্টিমধু এশিয়ার ভেষজ গুণসম্পন্ন বহুবর্ষজীবী উদ্ভিদ

ভূমিকা: যষ্টিমধু (বৈজ্ঞানিক নাম: Glycyrrhiza glabra) হচ্ছে ফেবিসিয়া পরিবারের গ্লাইসাইররিজা  গণের একটি সপুষ্পক বিরুত। এটিকে মধ্যপ্রাচ্য, দক্ষিণ ইউরোপ এবং এশিয়ার বিভিন্ন দেশে জন্মে। মূলত এর শেকড় ব্যবহার করা হয়। যষ্টিমধু-এর বিবরণ: যষ্টিমধু একটি বহুবর্ষজীবী ভেষজ উদ্ভিদ। যা ১ মিটার পর্যন্ত লম্বা হয়, প্রায় ৭-১৫ সেন্টিমিটার লম্বা চূড়ায় পাতা থাকে এবং ৯-১৭ টি কচিপাতা সহ গুচ্ছ হয়। … Read more

কিরামার বা ধূম্রপত্র-এ ভেষজ লতা

কিরামার বা ধূম্রপত্র-এর পরিচয়: সরু, লোমহীন, বহুবর্ষজীবী, ভূতলশায়ী উদ্ভিদ। এই গাছের পাতা ঈশের মূলের পাতার চেয়ে আকারে কিঞ্চিৎ বড়, তবে বিভিন্ন আকারের হয়ে থাকে। কোনটি বৃক্কাকার, কোনটি ডিম্বাকৃতি, অনেকটা পেঁপের আকৃতি বিশিষ্ট। পাতার কিনারা ঢেউ খেলানো, অগ্রভাগ সরু, বোঁটা প্রায় ইঞ্চিখানিক লম্বা। ফুল পাতার কোলে একত্রে অনেক জন্মে, তবে একটি একটি করে ফোটে, ১–২ ইঞ্চি … Read more

ক্ষুদি ওকড়া গুল্ম গ্রীষ্মপ্রধান অঞ্চলে জন্মে

ক্ষুদি ওকড়া বর্ষজীবী উদ্ভিদ। বীজ থেকে গাছ জন্মে। ভারতের গ্রীষ্মপ্রধান অঞ্চলের রাস্তার ধারে, পতিত জমিতে, শস্যক্ষেত্রে যত্রতত্র এটিকে দেখতে পাওয়া যায়। মাত্র দেড়েক হাত উঁচু হয়। সামান্য শাখা-প্রশাখাযুক্ত ও রোমশ উদ্ভিদ। পাতা ২–৪ ইঞ্চি লম্বা, বেশ বড়, গোলাকার কিংবা ডিম্বাকৃতি, ফিকে সবুজ বর্ণের ও ত্ব্বক খসখসে। পাতায় তিনটি ভাগ বা খাঁজ আছে, বলা যেতে পারে … Read more

বাঘনখী নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চল জন্মানো গুল্ম

বাঘনখী প্রায় সর্বত্র জন্মে। তবে অঞ্চলভেদে কোথাও পতিত জমিতে, কোথাও রাস্তার ধারে কিংবা আবর্জনাপূর্ণ স্থানে অথবা সুড়কির স্তূপে জন্মে। উদ্ভিদটি অযত্নসম্ভূত এবং বর্ষজীবী। সারা বিশ্বের প্রায় নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলে এটি হয়ে থাকে। গাছটি সাধারণতঃ ৩ থেকে ৪ ফুট উঁচু হয়ে থাকে। পাতা বড় বড়, কোনটি ডিম্বাকৃতি, কোনটি-বা হৃৎপিণ্ডাকৃতি, কিনারা ঢেউ খেলানো। ফুল দেখতে অনেকটা তিলফুলের মতো, … Read more

বন ভেণ্ডী বা স্বর্ণ ভিণ্ডী ভেষজ গুল্ম

ছোট গুল্ম জাতীয় উদ্ভিদ, জঙ্গলে কিংবা রাস্তার ধারে, পরিত্যক্ত স্থান সমূহে আপনা-আপনি জন্মে। বীজ থেকে গাছ হয়। গাছ নানা আকৃতির হয়ে থাকে । তবে সাধারণতঃ ৬ বা ৭ ফুটের অধিক উঁচু হয় না। শাখাপ্রশাখা অধিক, সামান্য রোমশ। পাতা হৃৎপিণ্ডাকৃতি, ১-২ ইঞ্চি চওড়া ও ২-৩ ইঞ্চি লম্বা, সাধারণতঃ ৫-৭টি ভাগে বিভক্ত, প্রতিটি ভাগ প্রায় সূচাগ্র বিশিষ্ট … Read more

error: Content is protected !!