দেশি গোবুরা এশিয়ার ভেষজ গুণসম্পন্ন বর্ষজীবী বীরুৎ

খাড়া, সুগন্ধি বর্ষজীবী বীরুৎ, ২ মিটার পর্যন্ত উঁচু, প্রচুর শাখান্বিত, নিম্নে কাষ্ঠল। কাণ্ড সূক্ষ্মাগ্রভাবে চতুষ্কোণাকৃতি, খাঁজযুক্ত, ঘন ক্ষুদ্র কোমল রোমাবৃত, পর্বমধ্য প্রায় ৫ সেমি লম্বা।আরো পড়ুন

কান্‌কানটী বা ডেংগা উষ্ণমন্ডলীয় অঞ্চলের উদ্ভিদ

একবর্ষজীবী, উর্ধ্বগ বা ঋজু বীরৎ, চাষকালে ১.২ মিটার বা এর বেশি উচ্চতা হতে পারে, কাণ্ড দৃঢ়, সাধারণত অধিক শাখান্বিত, শাখা কৌণিক, উপরিভাগ বিরলাভাবে মসৃণ বা সজ্জিত (বা পুষ্পবিন্যাসে অধিক ঘন), কম বা বেশি কুঞ্চিত রোমযুক্ত।আরো পড়ুন

পান নাতা বাংলাদেশে জন্মানো বর্ষজীবী ভেষজ বিরুৎ

পান নাতা ব্যাপিত ও বর্ষজীবী বীরুৎ। এদের কান্ড বলিষ্ঠ, ঊর্ধ্বারোহী, প্রায় ১ মিটার লম্বা, রোমহীন বা সামান্য চাপা রোমশ। পত্রক রোমহীন, ১.৫-২.৫ সেমি লম্বা, প্রস্থের দ্বিগুণ লম্বা, সাধারণত আয়তাকার, কদাচিৎ বল্লমাকার, শীর্ষ স্থূলাগ্র, গোড়া হৃৎপিন্ডাকার।আরো পড়ুন

আকন্দফল বাংলাদেশে জন্মানো আরোহী ভেষজ উদ্ভিদ

বৃহদাকার মসৃণ আরোহী, পাদদেশ কাষ্ঠল। পাতা করতলাকারে ৩-৫ খন্ডিত, পাদদেশ হৃৎপিণ্ডাকার, ৬-১৫ × ৬-১৪ সেমি, ৫-৭ শিরাল, উপরের পৃষ্ঠে পাদদেশে ২টি গ্রন্থি বর্তমান, পত্রবৃন্ত ৫-৮ সেমি লম্বা।আরো পড়ুন

ক্ষেতরাঙ্গা দক্ষিণ এশিয়ার বহুবর্ষজীবী ভেষজ বিরুৎ

ভূমিকা: ক্ষেতরাঙ্গা (বৈজ্ঞানিক নাম: Alpinia conchigera) হচ্ছে দক্ষিণ এশিয়ার ভেষজ বিরুৎ। এটি বাগান বা টবে লাগানো যায়। তবে বনাঞ্চলের পরিবেশ এদের জন্য উপযুক্ত। ক্ষেতরাঙ্গা-এর বর্ণনা: সরু রাইজোমসমৃদ্ধ বহুবর্ষজীবী বীরুৎ, ১.০-১.৫ মি মি. লম্বা। পাতা সবৃন্তক, বৃন্ত ০.৫-২.০ সেমি লম্বা, পত্রফলক আয়ত-ডিম্বাকার, ১৫-৩৪ X ৩.৫-৯.৫ সেমি, স্থুল-সূমাগ্র; এদের নিব প্রান্ত মোটামুটি গোলাকার, নিব তলের মধ্যশিরার উভয় … Read more

দেশী ছোট এলাচ বা মধুনিক্কন দক্ষিণ এশিয়ার ভেষজ বিরুৎ

ভূমিকা: দেশী ছোট এলাচ (বৈজ্ঞানিক নাম: Alpinia calcarata) দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে জন্মে। এটি বাগান বা টবে লাগানো যায়। বিভিন্ন সুস্বাদু রান্নাতে যেমন ব্যবহৃত হয় তেমনি এতে নানা ভেষজ গুণও আছে। দেশী ছোট এলাচ-এর বর্ণনা: সরু, রাইজোমসমৃদ্ধ বহুবর্ষজীবী বীরুৎ, ১.০-১.৫ . মি মি. লম্বা। পাতা প্রায় অবৃন্তক, বৃন্ত ৬ মিমি পর্যন্ত লম্বা, পত্রফলক, রেখ-ল্যান্সাকার, ৩৭-৪৭ … Read more

উচুন্টি উষ্ণমণ্ডলীয় দেশে জন্মানো ভেষজ বিরুৎ

বাংলাদেশের ত্রিপুরা আদিবাসীরা কাটা এবং ঘায়ের ক্ষতে উদ্ভিদটির পাতার রস ব্যবহার করে। লিভার বেদনা উপশমে খাসিয়া আদিবাসীরা সম্পূর্ণ উদ্ভিদটির ক্বাথ ব্যবহার করে, উপজাতীয় সংগঠন সমূহ, যেমন মৌলভীবাজার জেলার মনধা জনগোষ্ঠী উদ্ভিদটির শিকড় ক্ষতিকারক শয়তানী শক্তির হাত থেকে শিশুদের রক্ষাকারক হিসেবে, আরো পড়ুন

বিদ্যাপাতা বা কালীঝাঁট অপুষ্পক ভেষজ ফার্ন

এই ফার্ন বাহারি পাতা হিসাবে অনেকে টবে লাগিয়ে থাকে। বারান্দায় ঝুলন্ত টবে শোভাবর্ধন করে। স্থলজ আবাস, অধিকাংশই স্যাঁতসেঁতে দেয়াল এবং ভেজা, ছায়াযুক্ত স্থান। বংশবিস্তার হয় গ্রন্থিক এবং রেণু দ্বারা।আরো পড়ুন

কালমেঘ এশিয়ায় জন্মানো ভেষজ গুণসম্পন বর্ষজীবী উদ্ভিদ

কালমেঘ

কালমেঘ (বৈজ্ঞানিক নাম: Andrographis paniculata) একটি বর্ষজীবী উদ্ভিদ। এর সাধারণ গুণ হলো- এটি তিক্তরস, অগ্নিপীপক, রুচিকর, রেচক, বলকারক, কৃমিনাশক, জ্বরাতিসবার নাশক।আরো পড়ুন

বড় নল বা গাবা নল ভেষজ গুণ সম্পন্ন এশিয়ার তৃণ

বড়-নল-বা-মহানল

কচি পাতা গবাদি পশুর খাদ্য হিসাবে ব্যবহার হয়। ইহার সাহায্যে মাদুর, ট্রে, ঝুড়ি, ডালা, সাজি ইত্যাদি তৈরি করা হয়। রোমানরা এর দ্বারা কলম তৈরী করে। এর দ্বারা কাগজও তৈরী হয়। বাহারি উদ্ভিদরূপেও এটি লাগানো হয়।আরো পড়ুন

error: Content is protected !!