কাউন-এর নানাবিধি ভেষজ প্রয়োগের বিবরণ

সমগ্র বিশ্বে এই গণের ৩০টি প্রজাতি পাওয়া যায়। এটিকে হিন্দীতে কংগুনী, টংগুনী, কাংগনী, বাংলায় কংগু, কংগুনি, কাকনি দানা, কাংনী, কাউন প্রভৃতি বলে। মেদিনীপুরের কোন কোন জায়গায় এটিকে সুজির গাছও বলে। এর বোটানিক্যাল নাম Setaria italica Beauv.পূর্বে এটির নাম ছিল Panicum italicum Linn, ফ্যামিলী -Gramineae. ঔষধার্থে ব্যবহার্য অংশ: ধান্য (চাল)।

কাউন-এর প্রয়োগ

১. মেদ রোগ: শরীরে মেদ বৃদ্ধি হলে পর পর নানা প্রকারের অস্বস্তিকর অবস্থার সৃষ্টি হতে থাকে। অল্পেতে হাঁপিয়ে ওঠা, হৃদৌর্বল্য, শ্রান্তি ও ক্লান্তি প্রায় লেগেই থাকে। এর বৃদ্ধিতে পেট, পাছা, স্তন প্রভৃতি ভারী হতে শুরু করে এবং ক্রমশঃ বাড়তে থাকে। এ ক্ষেত্রে কাউনের চাল ১ ভাগ, যব ১ ভাগ ও গম ১ ভাগ নিয়ে যাঁতায় বা মেশিনে পিষিয়ে আটা তৈরী করে, সেই আটার রুটি প্রত্যহ রাত্রে খেতে হবে। যদি কোষ্ঠবদ্ধতা দেখা যায়, তাহলে যবটা বাদ দিয়ে কাউন চাল ও গম অর্ধেক অর্ধেক নিয়ে আটা তৈরী করা দরকার। এই চালের আধিক্যে কখনো কখনো পেটে বায়ু জমতেও পারে, তখন ১ ভাগ চালের সঙ্গে ২ ভাগ গম মিশিয়ে নিলে চলবে। এটি লাগাতার ২/৩ মাস ব্যবহার করার পর আরও কিছুদিন ১/২ দিন ছাড়া ছাড়া ব্যবহার করা প্রয়োজন। এইসঙ্গে অল্পস্বল্প ব্যায়াম শরীর ও বয়স অনুপাতে করতে পারলে এবং মিষ্টি জাতীয় দ্রব্যাদি ভক্ষণ বেশ কিছুটা কমাতে পারলে অতিরিক্ত মেদের হাত থেকে রেহাই পাওয়ার পথটি সত্বর সুগম।

২. রক্তপিত্তে নাক: মুখ দিয়ে যখন-তখন রক্ত পড়ে, কখনো ঝলকে ঝলকেও রক্ত ওঠে, পরীক্ষার দ্বারা দেখা গেছে যে, এজন্য সম্ভাব্য যেসব রোগের কথা মনে আসে, সেগুলির কোনটিই নয়, অথচ চিকিৎসায় একেবারে সেরেও যায় না। কখন যে হবে সেটা ঠিক বুঝা যায় না, বাসে-ট্রেনে-ট্রামে, রাস্তা-ঘাটে চলাফেরার সময় হঠাৎ করে রক্ত উঠতে থাকলে বড্ড বেকায়দায় পড়তে হয়। এক্ষেত্রে উপরিউক্ত পদ্ধতিতে তৈরী রুটি কিছুদিন খাওয়া প্রয়োজন। সেইসঙ্গে রক্তরোধক অন্যান্য ২/১টি আয়ুর্বেদীয় ঔষধও কিছুদিন খেতে হবে এবং তা ধীরে ধীরে বন্ধ করতেও হবে। অন্য ঔষধের ব্যবহার সেক্ষেত্রেই করতে হবে, যে ক্ষেত্রে রক্ত ঘন ঘন উঠতে থাকে। বিশ্রাম, শীতল পানীয়, সেইসঙ্গে সহজপাচ্য আহার গ্রহণ বিধেয়।

আরো পড়ুন:  বাগরাজ বাংলাদেশের পার্বত্যঞ্চলে জন্মানো বৃক্ষ

৩. যৌন সম্ভোগের অনিচ্ছায়: নানা কারণে এই অনিচ্ছা নারী ও পুরুষের মধ্যে আসতে পারে। যেসব ক্ষেত্রে দেখা যায় যে, মেদবৃদ্ধির জন্য বা অত্যধিক ক্ষয়ের জন্য। অনিচ্ছা আসে, অথচ উভয়ের মধ্যে কামনা বাসনার ঘাটতি নেই, কোন কোন ক্ষেত্রে এটি উভয়ের মধ্যেও দেখা দিতে পারে। বয়সটাও প্রতিবন্ধক নয়, অর্থাৎ বার্ধক্যও আসেনি, কারো কারো ভরা যৌবন, কারো বা পড়ন্ত, ফলে মানসিক অশান্তি দেখা দেয়। যৌনজীবন যাপনে এই যে ক্ষেত্র, এক্ষেত্রে প্রথমেই দেখতে হবে কি জন্য এটি হচ্ছে ; যদি মেদবৃদ্ধিই এর কারণ হয়, তবে উপরিউক্ত পদ্ধতিতে প্রস্তুত রুটি কিছুদিন খেতে হবে; আবার অত্যধিক ক্ষয়ের জন্য হয়ে থাকলে ৫০ গ্রাম চালের সঙ্গে দুধ ও চিনি পরিমাণমত দিয়ে পায়েস তৈরী করে মাসখানিক খেতে হবে, তারপর মাঝে মাঝে খাওয়া দরকার। কোন কোন ক্ষেত্রে, বিশেষতঃ মেয়েদের বেলায় দেখা যায়— রক্তহীনতা এর সঙ্গে থাকে, সেক্ষেত্রে রক্তবর্ধক ঔষধও সেবন করা বিশেষ প্রয়োজন।

৪. মচকা ব্যথায়: হাত-পা মচকে গিয়ে ব্যথা হলে সেক্ষেত্রে কাউন চাল সিদ্ধ করে চটকে প্রলেপ দিয়ে কাপড় জড়িয়ে বেঁধে রাখতে হবে। দিনের বেলায় প্রলেপ দিয়ে সন্ধ্যার পূর্বে তা ফেলে দেওয়া প্রয়োজন। পুনরায় পরদিন একইভাবে প্রলেপ ব্যবহার করা দরকার। এতে ২/৩ দিনে ব্যথা সেরে যায়।

৫. আমবাত: যেসব ক্ষেত্রে গাঁটে গাঁটে ফোলা ও যন্ত্রণা থাকে, সেক্ষেত্রে উপরিউক্ত পদ্ধতিতে ঐসব ফোলাস্থানে প্রলেপ ব্যবহার করলে কয়েকদিনের মধ্যেই ফোলা কমে যাবে, যন্ত্রণারও উপশম হবে। তবে সেইসঙ্গে প্রয়োজনীয় ঔষধ খাওয়াও দরকার।

CHEMICAL COMPOSITION

Setaria italica Beaur. Dehusked grain contains: moisture 11.2%, fat 4.3%, crude fibre 8%, carbohydrates 60.9%, minerals (calcium, magnesium, phosphorus, iron, sodium, potassium, copper and iodine), vitamins (vitamin-A, thiamine 0.59%, riboflavin 0.08%, nicotinic acid 0.7%, and folic acid), starch, proteins 12.3% (prolamine 48%, albumin, globulin, glutelin 37%), essential amino acids (arginine 3.6%, histidine 2.1%, lysine 2.2%, tryptophan 1%, phenyl-alanine 6.7%, methionine 2.8%, threonine 3.1%, leucine 16.7%, isoleucine 7.6%, Valine 6.9%, glutamic acid, alanine and proline). Dried and powdered seed contains: yellow oil 2.6%, unsaponifible matter 2.8%, fatty acids (palmitic 10.5%, stearic 13.9%, arachidic 6.3%, behanic 1.1%, linolenic 6.1%, linoleic 36.3% and oleic 20.7%) Bran contains: linoleic acid 81%, palmitic and stearic acid 10% and oleic acid 9%. Green plant contains: B-alanine, y-aminobutyric acid, proteins (methionine, threonine and histidine). Hay contains: total protien 11.4%, digestible protien 7.3%, fat 2.4% and digestible nutrients 61%.

আরো পড়ুন:  কার্পাস গাছ ও তুলার সতেরোটি ভেষজ গুণাগুণ

সতর্কীকরণ: ঘরে প্রস্তুতকৃত যে কোনো ভেষজ ওষুধ নিজ দায়িত্বে ব্যবহার করুন।

তথ্যসূত্রঃ

১. আয়ুর্বেদাচার্য শিবকালী ভট্টাচার্য: চিরঞ্জীব বনৌষধি খন্ড ৯, আনন্দ পাবলিশার্স প্রাইভেট লিমিটেড, কলকাতা, তৃতীয় মুদ্রণ ১৪০৫, পৃষ্ঠা, ১৭৬-১৭৭।

বি. দ্র: ব্যবহৃত ছবি উইকিমিডিয়া কমন্স থেকে নেওয়া হয়েছে। আলোকচিত্রীর নাম: Marknesbitt

Leave a Comment

error: Content is protected !!