শানির দিয়াড়ের যুদ্ধ প্রসঙ্গে স্মৃতিচারণ ও আমার রাজনৈতিক জীবন

আমি ছিলাম এডওয়ার্ড কলেজ ছাত্র সংসদের ‘৬৬-‘৬৭ সালের নির্বাচিত জিএস। আমি ছিলাম ছাত্র ইউনিয়ন (মেনন গ্রুপের) কেন্দ্রীয় নেতা। তিনি জিএস থাকাকালীন পাবনায় ভূট্টা বিষক্রিয়ায় প্রায় ২০০ শতাধিক জনতা অসুস্থ্য হয়ে পড়লে ছাত্র-জনতা বিক্ষুব্ধ ও মারমুখী হয় সে আন্দোলনে। আরো পড়ুন

সোভিয়েত ইউনিয়নের কমিউনিস্ট পার্টির ঊনবিংশ কংগ্রেসে প্রদত্ত ভাষণ

কংগ্রেসে ভাষণ

যে সমস্ত ভ্রাতৃপ্রতিম পার্টি ও সংগঠনের প্রতিনিধিরা এখানে উপস্থিত হয়ে আমাদের পার্টি কংগ্রেসকে সম্মানিত করেছেন, অথবা যাঁরা বন্ধুত্বপূর্ণ অভিনন্দন জ্ঞাপন করেছেন, আমাদের প্রতি আস্থা রেখেছেন, আমাদের আরও সাফল্য কামনা করেছেন, পার্টি কংগ্রেসের নামে তাদের ধন্যবাদ জানানোর অনুমতি আমাকে দিন। আরো পড়ুন

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের উৎস ও চরিত্র

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের উৎস

এটা ভাবা ভুল যে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ হঠাৎ ঘটে গেছে বা কোনও কূটনীতিজ্ঞর ভুলের জন্য এই যুদ্ধ বেধেছে। অবশ্য ভুল যে হয় না তা নয়। বাস্তবে, আধুনিক একচেটিয়া পুঁজির বিশ্বজুড়ে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক বিকাশের অবশ্যম্ভাবী পরিণতিতেই এই যুদ্ধ বেধেছে। মার্কসবাদীরা একাধিকবার ঘোষণা করেছে পুঁজিবাদী বিশ্ব অর্থনৈতিক ব্যবস্থা সাধারণ সংকট ও সশস্ত্র সংঘর্ষের জন্ম দেয়। আরো পড়ুন

দেশপ্রেম নিহত হয়নি, আহত হয়েছে

দেশপ্রেম

দেশ বলতে কেবল ভূমি বোঝায় না, ভূমি তো বোঝাবেই, কিন্তু দেশ ভূমির চেয়েও বড়, অনেক অনেক বড়। কেননা, দেশে মানুষ আছে, মানুষ থাকে এবং সে জন্যই দেশ অমন তাৎপর্যপূর্ণ। দেশপ্রেম বলতে আসলে দেশের মানুষের প্রতি ভালোবাসাই বোঝায়। আমাদের এই দেশপ্রেম বারবার পরীক্ষা ও নির্যাতনের মুখে পড়েছে। একাত্তরের কথা আমরা ঘুরে ঘুরে বলি। কেননা, চরম একটা পরীক্ষা তখনই হয়েছে। আরো পড়ুন

যুদ্ধবিরোধী আন্দোলন হচ্ছে দেশের সশস্ত্র সংঘাত শুরু করা বা চালিয়ে যাওয়ার বিরোধিতা

একটি যুদ্ধবিরোধী আন্দোলন (ইংরেজি: Antiwar movement) হচ্ছে এমন একটি সামাজিক আন্দোলন, যাতে হয়তোবা যুদ্ধের যথাযথ শর্তহীন কারণ বিদ্যমান থাকা সত্ত্বেও সাধারণত কোনও নির্দিষ্ট দেশের সশস্ত্র সংঘাত শুরু করার বা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করা হয়। যুদ্ধবিরোধী শব্দটি শান্তিবাদকেও বোঝাতে পারে, যা বিরোধের সময় সামরিক শক্তির সমস্ত রকমের ব্যবহারের বিরোধিতা অথবা যুদ্ধবিরোধী বই, চিত্রকর্ম এবং অন্যান্য … Read more

বাংলায় রাজনৈতিক আন্দোলন হচ্ছে নয়া গণতান্ত্রিক বিপ্লবী সাম্যবাদ অভিমুখী আন্দোলন

রাজনৈতিক আন্দোলন

বাংলায় বা বঙ্গভূমিতে বা বঙ্গে বা বঙ্গদেশে বা বাংলাদেশে জনগণের রাজনৈতিক আন্দোলন (ইংরেজি: Political Movements in Bengal) হচ্ছে নয়া গণতান্ত্রিক বিপ্লবী মুক্তিকামী সাম্যবাদ অভিমুখী জনগণের গত দুইশত বছরের আন্দোলন। এই আন্দোলনের উপনিবেশিক ও নয়া-উপনিবেশিক পর্যায়ে জনগণের সাথে শাসকশ্রেণির দ্বন্দ্ব বিভিন্ন স্তর অতিক্রম করেছে। বঙ্গভূমিতে জনগণের সাথে শাসকশ্রেণির দ্বন্দ্বগুলো পেকে ওঠে গড়ে কুড়ি বছর পরপর। আরো পড়ুন

এসইউসিআই (সি) ভারতের একটি সংশোধনবাদী সমাজ-গণতন্ত্রী রাজনৈতিক সংগঠন

সোস্যালিস্ট ইউনিটি সেন্টার অফ ইন্ডিয়া এসইউসিআই (কমিউনিস্ট) বা এসইউসিআই (সি) ভারতের একটি সংশোধনবাদী সমাজ-গণতন্ত্রী রাজনৈতিক সংগঠন। এই সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন সুবিধাবাদী-সংশোধনবাদী শিবদাস ঘোষ (১৯২৩—৫ আগস্ট, ১৯৭৬) যিনি ১৯৪৮ সালে এই সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন। এছাড়াও সংগঠনটিতে কাজ করেছেন সুবোধ ব্যানার্জী এবং নীহার মুখার্জী। সংগঠনটির বর্তমান প্রধান সংগঠক হচ্ছেন প্রভাস ঘোষ। আরো পড়ুন

সিপিবির জাতীয়তাবাদ অভিমুখি বিচ্যুতিটি হচ্ছে শ্রমিক শ্রেণির সংগে বিশ্বাসঘাতকতা

সিপিবির জাতীয়তাবাদ

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি বা সিপিবির জাতীয়তাবাদ অভিমুখি বিচ্যুতিটি হচ্ছে বাংলাদেশের শ্রমিক শ্রেণির সংগে অবিরাম বিশ্বাসঘাতকতার ইতিহাস। সিপিবি হচ্ছে সাম্যবাদবিরোধী সেই সংগঠন যাদের মার্কসবাদ-লেনিনবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করার দীর্ঘদিনের ঐতিহ্য রয়েছে। আরো পড়ুন

নিচু মাত্রার যুদ্ধ হচ্ছে স্থানীয়ভাবে সংঘটিত প্রচলিত যুদ্ধের তীব্রতার চেয়ে কম সহিংস সংঘাত

নিচু মাত্রার যুদ্ধ বা নিচু মাত্রার সংঘাত (ইংরেজি: Low-intensity conflict; এলআইসি) হচ্ছে দুই বা ততোধিক রাষ্ট্র বা বেসরকারী গোষ্ঠীর মধ্যে, সাধারণত স্থানীয়ভাবে সংঘটিত, একটি সামরিক সংঘাত যা প্রচলিত যুদ্ধের তীব্রতার চেয়ে কম সহিংস। নিচু মাত্রার যুদ্ধ সেটার নিজস্ব নীতি বা উদ্দেশ্যগুলির সাথে রাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীকে প্রযুক্ত করে শত্রুপক্ষকে হীনভাবে বশ্যতা স্বীকার এবং দমনে কাজে লাগায়। … Read more

জাতীয় মুক্তিযুদ্ধ হচ্ছে স্বাধীনতা অর্জনের জন্য জাতিসমূহের দ্বারা পরিচালিত জনগণের যুদ্ধ

জাতীয় মুক্তিযুদ্ধ বা জাতীয় মুক্তির বিপ্লবসমূহ (ইংরেজি: Wars of national liberation বা national liberation revolutions) হচ্ছে জনগণের সেসব যুদ্ধ যা স্বাধীনতা অর্জনের জন্য জাতিগুলি পরিচালনা করে। বিদ্রোহী জাতীয়তার মানুষেরা পৃথক সার্বভৌম রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্যে বিদেশী শক্তির বিরুদ্ধে বা কমপক্ষে যাদেরকে বিদেশী হিসাবে চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে এই শব্দটি যুদ্ধের সাথে একত্রে ব্যবহার করে। ভিন্ন দৃষ্টিকোণ … Read more

error: Content is protected !!