ক্লান্তি মুছতে স্মৃতিরা তোমার দ্বারে

কবিতা হতে পারে মেঘলা দিনের হাওয়ার মতো
প্রিয় স্মৃতি নিয়ে তোমার আশেপাশে বেহালার সুর হয়ে ঘুরবে
মধ্যদুপুরে ভাতঘুমের মতো চোখে নেশা হয়ে থাকবে
বা ফিসফিস করে কানে এসে মোহিত কথা শুনাবে।

প্রকৃতি থেকে ঘুম যখন বুনোফুলের গা ঝেড়ে তোমার ঘরে আসে
তখন দেখবে জীবন কত সুন্দর, দিনের ক্লান্তি মুছে দিতে সে এসেছে তোমার নীড়ে
যখন দেখবে বসন্ত বোমার মতো ফেটে তোমার ধরণীতে সুবাস ছড়াচ্ছে
ঠিক তখনই জীবন মরণকে পাশে রেখে পরখ করে দেখতে পারবে।

নিজেকে আন্দোলিত করো প্রিয়ও, কিছুটা অবসর আনো চিত্তে
ক্লান্তিকে উপলব্ধি করো, ভালবাসতে শেখো নিজের চুল, নখ, ঠোঁটকে
দেখবে বসন্ত তোমার কাছে মখমলের মতো
আর কণ্ঠ হবে শিকল ছেঁড়া গান।

এই মুহুর্তে যখন তুমি বসে লীলাউদ্যানের কথা ভাবছো
তোমার জন্য সন্ধ্যার হিমেল যখন মালা গাঁথছে
চুরুটের ধোঁয়া যখন আঁধারে মিলিয়ে যাচ্ছে
ঠিক তখনই নষ্ট হওয়া মনকে আমার এই কবিতা পড়াও।

২১.০৩.২০২৩
সারদাঘোষ রোড, ময়মনসিংহ

আরো পড়ুন:  ফুলকির জন্য অপেক্ষা

Leave a Comment

error: Content is protected !!