পাশা ঢেকিয়া বাংলাদেশের সর্বত্রে জন্মানো ভেষজ প্রজাতি

লতা

পাশা ঢেকিয়া

বৈজ্ঞানিক নাম: Drymoglossum piloselloides (L.) Presl, Tent. Pterid. 227 (1836). সমনাম: Pteris piloselloides L. (1753). ইংরেজি নাম: জানা নেই। স্থানীয় নাম: পাশা ঢেকিয়া।
জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্য: Plantae. বিভাগ: Polypodiophyta. অবিন্যাসিত: Polypodiopsida. বর্গ: Polypodiales. পরিবার: Polypodiaceae. গণ: Drynaria প্রজাতির নাম: Drynaria quercifolia.

ভূমিকা: পাশা ঢেকিয়া (বৈজ্ঞানিক নাম: Drynaria quercifolia) এক প্রকারের ভেষজ উদ্ভিদ। দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে পাওয়া গেলেও বাংলাদেশে পার্বত্যঞ্চলে জন্মে।

পাশা ঢেকিয়া-এর বর্ণনা:

গ্রন্থিক দীর্ঘ-লতানও, পুরোটাই শল্কযুক্ত, শল্ক ছোট, প্রায় গোলোকার হতে ডিম্বাকার, ঢালাকৃতি, মধ্যাংশ গাঢ়, প্রান্ত হালকা বর্ণের, তুলনামূলকভাবে লম্বা রোমযুক্ত কচি অবস্থায় সাদা, দ্রুত বাদামী বর্ণে পরিণত। পত্রদন্ড সুস্পষ্ট নয়। পাতা দ্বিরূপী, অনুর্বর পাতা প্রায় গোলাকারকার, ১ সেমি লম্বা, ২ সেমি চওড়া, গোড়ার দিকে ক্রমাগত সরু, শীর্ষ চওড়া গোলাকার, বয়ণ অত্যন্ত সরস, পৃষ্ঠ মসৃণ, বিক্ষিপ্ত কান্ডের সাথে নিবিষ্ট তারকাকার রোম বিশিষ্ট, মধ্যশিরা কেবলমাত্র গোড়ার অর্ধেকে দৃশ্যমান। উর্বর পাতা ২-৪ সেমি লম্বা, ১-২ সেমি চওড়া, গোড়ার দিকে ক্রমাগত সরু, শীর্ষ চওড়া গোলাকার, বয়ণ সরস, তারকাকার রোম উপস্থিত। সোরাস অনেক, প্রতিটি সোরাস একটি চওড়া প্রান্তীয় রেখা সৃষ্টিকারী, পাতার শীর্ষের চারিপাশ ঘুরে উভয়পার্শ্বে প্রায় গোড়া পর্যন্ত বিস্তৃত।

আবাসস্থল ও বংশ বিস্তার: বৃক্ষের গুঁড়ি অথবা শাখায় ব্রততী (creeper)। গ্রন্থিক এবং রেণু দ্বারা বংশ বিস্তার হয়।

পাশা ঢেকিয়া-এর বিস্তৃতি:

উত্তর-পূর্ব ভারত, মায়ানমার, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া এবং নিউগিনি। বাংলাদেশের সর্বত্র মোটামুটি ব্যাপক বিস্তৃত (Mirza and Rahman, 1997)।

অন্যান্য তথ্য:

বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষের ৫ম খণ্ডে (আগস্ট ২০১০) পাশা ঢেকিয়া প্রজাতিটির সম্পর্কে বলা হয়েছে যে, বাংলাদেশে এটি আশংকামুক্ত হিসেবে বিবেচিত। বাংলাদেশে পাশা ঢেকিয়া সংরক্ষণের জন্য কোনো পদক্ষেপ গৃহীত হয়নি। প্রজাতিটি সম্পর্কে প্রস্তাব করা হয়েছে যে এই প্রজাতিটি বাগানে চাষ করা প্রয়োজন।

আরো পড়ুন:  ঢেকিয়া শাক বাংলাদেশের সর্বত্রে জন্মানো জনপ্রিয় শাক

তথ্যসূত্র:

১. মমতাজ মহল মির্জা (আগস্ট ২০১০)। “অ্যানজিওস্পার্মস ডাইকটিলিডনস” আহমেদ, জিয়া উদ্দিন; হাসান, মো আবুল; বেগম, জেড এন তাহমিদা; খন্দকার মনিরুজ্জামান। বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ। ৫ম (১ সংস্করণ)। ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি। পৃষ্ঠা ৩১৫-৩১৬ আইএসবিএন 984-30000-0286-0

Leave a Comment

error: Content is protected !!