দেশী ছোট এলাচ বা মধুনিক্কন দক্ষিণ এশিয়ার ভেষজ বিরুৎ

বিরুৎ

দেশী ছোট এলাচ

বৈজ্ঞানিক নাম: Alpinia calcarata (Haworth) Rosc., Trans. Linn. Soc. ৪: 347 (1807). সমনাম: Renealmia calcarata Haworth (1805), Languas calcarata (Rosc.) Alston (1931). ইংরেজী নাম: Cardamon Ginger; Miniature Ginger. স্থানীয় নাম: দেশী ছোট এলাচি।
জীববৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্য: Plantae, বিভাগ: Tracheophytes. অবিন্যাসিত: Angiosperms. অবিন্যাসিত: Monocots. বর্গ: Zingiberales. পরিবার: Zingiberaceae. গণ: Alpinia, প্রজাতি: Alpinia calcarata.

ভূমিকা: দেশী ছোট এলাচ (বৈজ্ঞানিক নাম: Alpinia calcarata) দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে জন্মে। এটি বাগান বা টবে লাগানো যায়। বিভিন্ন সুস্বাদু রান্নাতে যেমন ব্যবহৃত হয় তেমনি এতে নানা ভেষজ গুণও আছে।

দেশী ছোট এলাচ-এর বর্ণনা:

সরু, রাইজোমসমৃদ্ধ বহুবর্ষজীবী বীরুৎ, ১.০-১.৫ . মি মি. লম্বা। পাতা প্রায় অবৃন্তক, বৃন্ত ৬ মিমি পর্যন্ত লম্বা, পত্রফলক, রেখ-ল্যান্সাকার, ৩৭-৪৭ সেমি, সূমাগ্র;

পাতার গোড়ার দিকে কীলকাকার, মসৃণ, প্রান্তে খাট লোম আছে, লিগিউল আনুমানিক ২ সেমি লম্বা, ঝিল্লিবৎ, অখন্ড, স্থুলাগ্র, রোমশ।

পুষ্পবিন্যাস অগ্র, খানিকটা খাটো, ১৩.৫ সেমি পর্যন্ত লম্বা, মঞ্জরীঅক্ষ রোমশ, দুইটি নৌকাকৃতির ইনভোলিউকার দ্বারা অপরিণত পুষ্পমঞ্জরী আবৃত থাকে।

পুষ্প অতি খাটো বৃন্ত যুক্ত, জোড়ায় থাকে, প্রতিটিতে ১.১ সেমি লম্বা নৌকাকৃতির সাদা, রোমশ, উপ-মঞ্জরীপত্র থাকে, আশপাতি।

বৃতি প্রায় ৯ মিমি লম্বা, ঘন্টাকৃতির, রোমশ, ত্রিখন্ড, এক পাশে বিদীর্ণ।

দলনল বৃতির সমান বা খাটো, রোমশ, পাপড়ি ৩ টি, আয়তাকার, ১.৫-২.০ সেমি লম্বা, পৃষ্ঠদেশেরটি ৫-৮ মিমি প্রশস্ত, পাশেরগুলি সরু।

লেবেলাম ডিম্বাকার, প্রায় ৩ X ২ সেমি, অবতল, খাতাগ্র, গোড়ার তিন-চতুর্থাংশ সাদা, মাঝের অংশ গোলাপি-বেগুনী দাগ ও ফোটা সমৃদ্ধ, সীমানায় লাল-হলুদ, উপরের এক-চতুর্থাংশ হাল্কা গোলাপির উপরে শাখান্বিত লাল রেখায় অংকিত।

স্টেমিনোড লেবেলামের গোড়ার দু’প্রান্ত থেকে উৎপন্ন এক জোড়া তুরপুন আকার অঙ্গ আঙ্গ।

পরাগদণ্ড প্রায় ১.৬ সেমি লম্বা, গোড়া বেগুনী, পরাগধানী ৯ মিমি লম্বা, পরাগ-কোষ মোটামুটি সমান্ত রাল।

আরো পড়ুন:  লাইজাবরি দক্ষিণ এশিয়ায় জন্মানো ভেষজ বিরুৎ

গর্ভাশয় সেরিসিয়াস, প্রায় ৪ মিমি লম্বা, উপগোলাকার, গর্ভমুন্ড স্ফীত, অবতল, রোমশ, গর্ভাশয় উপরস্থ গ্রন্থি প্রায় ২ মিমি লম্বা, পৃষ্ঠদেশে যুক্ত।

ক্রোমোসোম সংখ্যা : 2n = ৪৮ (Kumar and Subramaniam, 1986).

আবাসস্থল ও বংশ বিস্তার:

বাড়ির আশেপাশে ছায়াযুক্ত এলাকায় লাগানো হয়। ফুল ধারণ এপ্রিল-জুন, কখনো সারা বছর। রাইজোম দ্বারা সহজেই বংশ বিস্তার করা যায়।

দেশী ছোট এলাচ-এর বিস্তৃতি:

ভুটান, চীন, ভারত, মালয়েশিয়া এবং শ্রীলংকা। বাংলাদেশের অনেক এলাকায় এটি এলাচি (Elleteria cardamomum) হিসেবে চাষ করা হয়।

অর্থনৈতিক গুরুত্ব ও অন্যান্য:

ভারতে কচি কান্ড রান্না করে খাওয়া হয়। রাইজোম টনিক, পাকস্থলীর শক্তি বর্ধক, যৌনশক্তি বর্ধক, মূত্র বর্ধক, কফ নির্গমক, বায়ু নিরোধক ও উত্তেজক।

বাত, জ্বর, সর্দি, মাথা ব্যথা, বহুমূত্র এবং তলপেটের যন্ত্রনায় ব্যবহার হয়। বীজ পরিবর্তক, পাকস্থলীর শক্তি বর্ধক, পেটের ব্যাথা, ডায়েরিয়া এবং বমিতে উপকারী।

অন্যান্য তথ্য: বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষের  ১২ খণ্ডে (আগস্ট ২০১০) দেশী ছোট এলাচি প্রজাতিটির সম্পর্কে বলা হয়েছে যে, এদের শীঘ্র কোনো সংকটের কারণ দেখা যায় না এবং বাংলাদেশে এটি আশঙ্কামুক্ত হিসেবে বিবেচিত।

বাংলাদেশে দেশী ছোট এলাচি সংরক্ষণের জন্য কোনো পদক্ষেপ গৃহীত হয়নি। প্রজাতিটি সম্পর্কে প্রস্তাব করা হয়েছে যে এই প্রজাতিটির বর্তমানে সংরক্ষণের প্রয়োজন নেই। 

তথ্যসূত্র:

১. মোহাম্মদ ইউসুফ (আগস্ট ২০১০) “অ্যানজিওস্পার্মস ডাইকটিলিডনস” আহমেদ, জিয়া উদ্দিন; হাসান, মো আবুল; বেগম, জেড এন তাহমিদা; খন্দকার মনিরুজ্জামান। বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ (১ সংস্করণ)। ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি। খন্ড ১২, পৃষ্ঠা ৪৪৫-৪৪৬। আইএসবিএন 984-30000-0286-0

বি. দ্র: ব্যবহৃত ছবি উইকিমিডিয়া কমন্স থেকে নেওয়া হয়েছে। আলোকচিত্রীর নাম: Forest and Kim Starr

Leave a Comment

error: Content is protected !!